× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ২১ জুন ২০২১, সোমবার, ৯ জিলক্বদ ১৪৪২ হিঃ

কুমিল্লায় অপহরণকারী চক্রের ৩ সদস্য গ্রেপ্তার

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, কুমিল্লা থেকে
১১ মে ২০২১, মঙ্গলবার

কুমিল্লায় পলিটেকনিকের ছাত্র জালাল হোসেন ও মাসুদ রানা নামে এক কিশোরসহ দুইজনকে অপহরণ করে এক লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে সংঘবদ্ধ অপহরণকারী চক্র। এ ঘটনায় র‌্যাব কুমিল্লার একটি দল অভিযান পরিচালনা করে গতকাল ভোররাতে অপহৃতদের উদ্ধার এবং অপহরণকারী চক্রের এক নারীসহ ৩ সদস্যকে গ্রেপ্তার করে। অপহৃত জালাল হোসেন জেলার বরুড়া উপজেলার ভবানীপুর ইউনিয়নের নাটেহর গ্রামের মোখলেছুর রহমানের ছেলে এবং মাসুদ রানা একই বাড়ির আবদুল জব্বারের ছেলে। গ্রেপ্তারকৃতরা হচ্ছে- কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার উত্তর দুর্গাপুর গ্রামের রিনা আক্তার (৪০), শংকরপুর গ্রামের শাহপরান (১৯) ও বুড়িচং উপজেলার এতবারপুর গ্রামের শরীফ ইসলাম (২২)। গতকাল দুপুরে র‌্যাব-১১, সিপিসি-২ কুমিল্লা ক্যাম্পের অধিনায়ক মেজর তালুকদার নাজমুছ সাকিব এক প্রেস ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান। র‌্যাব জানায়, কুমিল্লা সিসিএন পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ছাত্র জালাল হোসেন (২২) ও তার চাচাতো ভাই মাসুদ রানা (১৬) মোবাইল ফোন ক্রয়ের জন্য রোববার দুপুরে বাড়ি থেকে কুমিল্লা শহরে আসে। মোবাইল না কিনে তারা টমছম ব্রিজ থেকে সিএনজিযোগে বাড়ি ফিরছিল। পথিমধ্যে মহাসড়কের নন্দনপুর এলাকায় কোটবাড়ি সড়কে পৌঁছালে সংঘবদ্ধ অপহরণকারী চক্র তাদের বহনকারী সিএনজির পথরোধ করে এবং মোবাইল চুরির অপবাদ দিয়ে তাদেরকে সিএনজি থেকে নামিয়ে জোরপূর্বক মোটরসাইকেলে তুলে অপহরণ করে নিয়ে যায়।
পরে তাদেরকে আদর্শ সদর উপজেলার উত্তর দুর্গাপুর এলাকায় চক্রের নারী সদস্য রিনা আক্তারের ঘরে আটকে রেখে নির্যাতন চালায় এবং ৫০ হাজার টাকা করে দুইজনের স্বজনদের নিকট মোবাইল বিকাশের মাধ্যমে এক লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। তাদের অপহরণ-মুক্তিপণ দাবির বিষয়টি অপহৃত মাসুদ রানার ভাই কাইয়ুম হোসেন র‌্যাবকে জানালে রাত ১০টার দিকে অপহৃতদের উদ্ধারে অভিযানে মাঠে নামে র‌্যাব।  

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর