× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২৫ জুন ২০২১, শুক্রবার, ১৩ জিলক্বদ ১৪৪২ হিঃ

ছুটি বাড়ানোর দাবিতে পোশাক শ্রমিকদের বিক্ষোভ পুলিশের গুলি

প্রথম পাতা

স্টাফ রিপোর্টার
১১ মে ২০২১, মঙ্গলবার

পোশাক শ্রমিকদের বিক্ষোভে উত্তাল ছিল রাজধানীর মিরপুর ও গাজীপুরের টঙ্গী এলাকা। ঈদের ছুটি বাড়ানোর দাবিতে গতকাল বিক্ষোভ করেছেন তারা। গাজীপুরের টঙ্গীতে ও ঢাকার মিরপুরে সকাল থেকেই বিক্ষোভ শুরু হয়। টঙ্গীর মিলগেট এলাকায় পোশাক শ্রমিকদের সঙ্গে সংঘর্ষ হয় পুলিশের। এ সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে রাবার বুলেট, ছররা গুলি নিক্ষেপ করেছে পুলিশ। এতে পুলিশসহ আহত হয়েছেন প্রায় ৩০ জন।
একটি পোশাক কারখানায় ঈদের ছুটি বৃদ্ধির দাবিতে আন্দোলন করছিল শ্রমিকরা। গতকাল সকালে শ্রমিকরা কারখানার কাজ বন্ধ করে রাস্তায় জড়ো হতে থাকে। সরকারি নির্ধারিত ৩ দিনের ঈদের ছুটি ১০ দিন করার দাবিতে শত শত শ্রমিক জড়ো হয়ে ঢাকা-ময়মনসিংহ সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করে।
‘আমাদের দাবি, আমাদের দাবি, মানতে হবে, মানতে হবে’ বলে স্লোগান দিতে থাকেন তারা।
বেলা ১১টার দিকে সড়ক থেকে শ্রমিকদের সরিয়ে দিতে চেষ্টা করে ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশ। এতে শ্রমিকরা আরো উত্তেজিত হয়ে ওঠে। এ সময় পুলিশের সঙ্গে বাকবিতণ্ডা ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। একপর্যায়ে লাঠিচার্জ করে পুলিশ। এ সময় কারখানার শ্রমিকরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। ঘটে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা। পুলিশ ও শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে রাবার বুলেট ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে পুলিশ। পুলিশ শ্রমিকদের সঙ্গে ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়ায় ৮ জন পুলিশ সদস্য ও অন্তত ২২ জন শ্রমিক আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।
এ বিষয়ে ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার জালাল হাওলাদার জানান, শ্রমিকরা সরকারি নির্দেশ অমান্য করে বিক্ষোভ কর্মসূচি ও মহাসড়ক অবরোধ করেছিল। পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করছে তারা। এ সময় পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করেছে বলে জানান তিনি। সংঘর্ষে আহত শ্রমিকদের টঙ্গী শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়। সংঘর্ষে গুরুতর আহত ১২ জন শ্রমিককে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তারা হচ্ছেন, হাসান (২৬), মামুন (২৫), রনি ইসলাম (২৪), মিজানুর রহমান (২৪), রুবেল (২২), সোহেল (২২), জাহিদুর (২৬), ইমরান (১৯), রুবেল (২৬), সাবিনা (২৫), কাঞ্চন (২২) ও সাব্বির (২৪)। আহত শ্রমিকদের অনেকের পায়ে, পিঠে ছররা গুলির চিহ্ন রয়েছে।
এদিকে, একই দাবিতে মিরপুরের কালসীতে বিক্ষোভ করেছেন পোশাক শ্রমিকরা। গতকাল সকাল থেকে  বিক্ষোভ করে পোশাক শ্রমিকরা। বিক্ষোভকারীরা জানান, গত দুইদিন ধরে মিরপুর-১০ ও ১১ এলাকায় বিক্ষোভ করছেন তারা। বিক্ষোভকারী মনোয়ারা বেগম জানান, ঈদের ছুটি মাত্র তিনদিন। বাড়িতে আসা-যাওয়া করতেই দুইদিন রাস্তায় চলে যায়। মাত্র একদিন বাড়িতে থাকার সুযোগ হয়।
মনোয়ারার মতোই কাজল বলেন, এই ছুটিতে আমাদের হয় না। সারা বছর আমাদের কাজ করতে হয়। ঈদের ছুটিতে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে ঈদ করতে যাবো। তিনদিনের ছুটিতে হয় না। আমরা তো বারবার বাড়িতে যাই না। এজন্যই তিনদিনের ছুটির পরিবর্তে সাতদিন ছুটির দাবিতে আমরা রাস্তায় অবস্থান করছি। সেইসঙ্গে বাড়িতে সুষ্ঠুভাবে গিয়ে ঈদ উদ্‌যাপন করতে দূরপাল্লার যানবাহন চালুরও দাবি জানান শ্রমিকরা।
এ বিষয়ে পল্লবী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওয়াজেদ আলী বলেন, ছুটি বাড়ানোর দাবিতে আন্দোলন করেছেন শ্রমিকরা। তারা রাস্তায় মিছিল করেছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে আমরা শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলেছি। তাদের বোঝানোর চেষ্টা করেছি। যেন কোনো ধরনের জনভোগান্তি সৃষ্টি না হয়। একপর্যায়ে বুঝিয়ে তাদের কাজে ফেরানো সম্ভব হয়েছে বলে জানান তিনি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Shobuj Chowdhury
১১ মে ২০২১, মঙ্গলবার, ৬:৩৭

Time is coming close to those who oppress the weeks, Inshallah.

অন্যান্য খবর