× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ২১ জুন ২০২১, সোমবার, ৯ জিলক্বদ ১৪৪২ হিঃ

ইসলামিক স্টেট ইয়াজিদিদের বিরুদ্ধে গণহত্যা চালিয়েছে: জাতিসংঘ

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক
(১ মাস আগে) মে ১১, ২০২১, মঙ্গলবার, ৭:২৩ অপরাহ্ন

২০১৪ সালে সংখ্যালঘু ইয়াজিদি সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে যে হত্যাযজ্ঞ সংগঠিত হয়েছিল তাকে গণহত্যা বলে স্বীকৃতি দিয়েছে জাতিসংঘ। সংস্থাটির একটি তদন্তকারী দল সেখানে ওই গণহত্যা নিয়ে গবেষণা করে আসছিল। তাদের প্রতিবেদনের ভিত্তিতেই ওই হত্যাযজ্ঞকে গণহত্যা বলে স্বীকৃতি দিয়েছে জাতিসংঘ। সংস্থাটি জানিয়েছে, ইসলামিক স্টেটের জিহাদিরা সফলভাবে রাসায়নিক অস্ত্র উৎপাদন করেছিল এবং সেগুলো এই গণহত্যায় ব্যবহার করেছিল। এ খবর দিয়েছে আল-জাজিরা।
গত সোমবার জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে জানানো হয়, ইসলামিক স্টেট টিকরিট এয়ার একাডেমির নিরস্ত্র ক্যাডেটদের নির্যাতনের পর হত্যা করেছে। শুধু মাত্র শিয়া মতবালম্বী হওয়ায় ২০১৫ সালে তাদেরকে হত্যা করা হয়। সেই ভিডিওও প্রকাশ করেছিল ইসলামিক স্টেট।
২০১৭ সালে নিরাপত্তা পরিষদে ইরাকে সংগঠিত হওয়া যুদ্ধাপরাধ, মানবতাবিরোধী অপরাধ ও গণহত্যা নিয়ে তদন্তের সিদ্ধান্ত হয়। এরপরই ইসলামিক স্টেটের নৃসংশ বর্বরতা নিয়ে তদন্ত করতে দল পাঠানো হয় সেখানে।
জিহাদিরা সেখানে গণহত্যা চালিয়েছে, এরপক্ষে ৬টি প্রতিবেদন জমা দেয়া হয় জাতিসংঘে। সেখানে থাকা গণকবরগুলো থেকে তথ্য প্রমাণ হাজির করা হয়েছে এই দফায়। ইসলামিক স্টেটের কাছ থেকে পাওয়া তথ্য ও হার্ড ড্রাইভ থেকেও উদ্ধার করা তথ্য বিশ্লেষণ করে গণহত্যার সময়কাল নিশ্চিত করা হয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Sohel
১১ মে ২০২১, মঙ্গলবার, ১:৫৩

আর ইসলামী স্টেট এর বিরুদ্ধে শিয়া মিলিশিয়া এবং আপনারা সবাই যে গণহত্যা চালিয়েছেন সেটা ও বলছেন না কেন

শহীদ
১১ মে ২০২১, মঙ্গলবার, ১১:৪৪

ইসলামিক স্টেট যেমন গণহত্যা করেছে তেমনি ন্যাটোও গণহত্যা করেছে। রাশিয়াও হত্যা করেছে মেডিকেলে ভর্তি রোগীদের উপর। শিয়ারাও হত্যা করেছে। আসাদ বাহিনীও হত্যা করেছে। সেটা অতীত। জাতি সংঘের ভাঙ্গতে যুগ পার হয়। কিন্তু আজকে যে নিরস্র, মসজিদের সেজদারত মুসলিমদের উপর ইস্রাইলী গণহত্যা চলছে সে ব্যাপারে চুপ কেন? আমেরিকা যদি গণহন্তারকদের সমর্থন দিয়ে যায় তাহলে জাতিসংঘ থেকে আমেরিকাকে বের করে দেয়া হোক।

আনিস উল হক
১১ মে ২০২১, মঙ্গলবার, ১০:০৪

এই জিহাদিরা ধর্মের নামে মানবতার বিরুদ্ধে অমার্জনীয় অপরাধ করে গেছে। এ ধরনের সন্ত্রাস রোধে জাতি ধর্ম নির্বিশেষে সকল দেশকে একযোগে কার্যকর ব্যবস্হা গ্রহণ করতে হবে।

অন্যান্য খবর