× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ২১ জুন ২০২১, সোমবার, ৯ জিলক্বদ ১৪৪২ হিঃ

গোবর-গোমূত্র নিয়ে সরব আলোচনা, অখিলেশ যাদবের টুইট (ভিডিও)

বিশ্বজমিন

 মানবজমিন ডেস্ক
(১ মাস আগে) মে ১২, ২০২১, বুধবার, ৪:০৩ অপরাহ্ন

গোবর এবং গোমূত্র করোনা ভাইরাস সারায়। শুধু তা-ই নয়। এই দুটি উপাদান মিশ্রিত করে গায়ে লেপন করলে তাতে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে। হিন্দু সম্প্রদায়ের কিছু মানুষের এমন বিশ্বাস ও এর চর্চা নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই মিডিয়ায় আলোচনা, সমালোচনা। চিকিৎসকরা বলেছেন, এমন বিশ্বাসের কোনো বৈজ্ঞানিক ভিত্তি নেই। সর্বশেষ এর সঙ্গে যুক্ত হলেন সমাজবাদী পার্টির নেতা ও সাবেক মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদব। গুজরাটের আহমেদাবাদ থেকে সম্প্রতি গোবর ও গোমূত্র লেপনের যে ভিডিও প্রকাশ পেয়েছে সে বিষয়ে তিনিও কথা বলেছেন। অখিলেশ বলেন, এ দৃশ্য দেখে আমাদের কাঁদা উচিত নাকি হাসা উচিত।
টুইটারে এমন মন্তব্য করে অখিলেশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের পোস্ট করা একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন। রিপোর্টে বলা হয়েছে, আহমেদাবাদের শ্রীস্বামীনারায়ণ গুরুকুল বিশ্ববিদ্যা প্রতিষ্ঠানম থেকে ধারণ করা হয়েছে ওই ভিডিও। এতে দেখা গেছে বেশ কিছু মানুষ লাইন দিয়ে বসে বালতি থেকে গোবর এবং গোমূত্রের মিশ্রণ গায়ে মাখছেন। তারা সপ্তাহে একদিন সেখানকার গোশালায় যান এই গোবর ও গোমূত্র সংগ্রহ করতে। তাদের সামনে থাকে বালতি ভরা গোবর আর গোমূত্রের মিশ্রণ। প্রতিজন মানুষ ওই বালতির ভিতর নিজের হাত ঢুকিয়ে দিচ্ছেন এবং তুলে নিচ্ছেন হাতভর্তি গোবর। সেই গোবর মিশ্রণ সারা শরীরে, মাথায় মাখছেন। এরপর দাঁড়িয়ে যান বৃত্তাকারভাবে এবং প্রার্থনা করেন। এই চর্চার সঙ্গে জড়িত গৌতম মনিলাল বরিসা। তিনি রয়টার্সকে বলেছেন, চিকিৎসকরা পর্যন্ত এখানে আসেন। তারা মনে করেন, এই থেরাপি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা উন্নত করে। উল্লেখ্য, মনিলাল গত বছর করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। তিনি একটি ফার্মাসিউটিক্যাল প্রতিষ্ঠানের সহযোগী ম্যানেজার। তার দাবি, তার করোনা হওয়ার পর এই রীতি চর্চা করে তিনি মুক্তি পেয়েছেন। কিন্তু এর বিরুদ্ধে বার বার সতর্কতা দিয়ে যাচ্ছেন চিকিৎসক ও বিজ্ঞানীরা। তারা বলছেন, এর মধ্য দিয়ে নিরাপত্তার এক ভুয়া ধারণা দেয়া হচ্ছে। স্বাস্থ্যগত সমস্যাকে আরো জটিল করে তোলা হচ্ছে। ইন্ডিয়ান মেডিকেল এসোসিয়েশনের প্রধান ড. জেএ জয়লাল বলেছেন, গোবর বা গোমূত্র করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে রোগ প্রতিরোধ সৃষ্টি করে এমন কোনো বৈজ্ঞানিক তথ্যপ্রমাণ নেই। পক্ষান্তরে এ থেকে অনেক সংক্রামক রোগ ছড়াতে পারে। গোমূত্র ও গোবর করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে চিকিৎসায় ভাল ফল দেয় বলে হিন্দু সম্প্রদায়ের কিছু সদস্যের মধ্যে এ ধারণা আছে। এক্ষেত্রে রয়টার্সের রিপোর্টই প্রথম নয়। এর আগেও এমন রিপোর্ট প্রকাশ হয়েছে। গত সপ্তাহে বার্তা সংস্থা এএনআই একটি ভিডিও পোস্ট করেছে। তাতে দেখা যায়, উত্তর প্রদেশের বিতর্কিত ব্যক্তিত্ব বিজেপির এমএলএ সুরেন্দ্র সিং দাবি করছেন যে, গোমূত্র পান করার ফলে তা তাকে করোনা ভাইরাস থেকে সুরক্ষা দিয়েছে। গত বছর মার্চে বিজেপির পশ্চিমবঙ্গ শাখার প্রধান দীলিপ ঘোষ জানিয়ে দেন, গোমূত্র পান করায় ক্ষতির কোনো কারণ নেই। গোমূত্র সেবনে আমার কোনো সংশয় নেই। উত্তর কলকাতায় এক কর্মসূচিতে করোনার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে গোমূত্র পানের আহ্বান জানানো হয়েছিল। তারপরই তিনি এমন মন্তব্য করেছিলেন। দীলিপ ঘোষের রাজনৈতিক সহচর লকেট চট্টোপাধ্যায় তার এ মতের বিরোধিতা করেন দ্রুততার সঙ্গে। লকেট বলেছিলেন, এমন অবৈজ্ঞানিক বিশ্বাসকে এড়িয়ে চলা ভাল। এই মহামারির বিরুদ্ধে এই পদ্ধতি আমাদেরকে কোনো সাহায্য করবে না।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
SM.Rafiqul Islam
১৪ মে ২০২১, শুক্রবার, ৭:০২

২০২১ সালে এসেও আমাদেরকে এগুলো দেখতে হচ্ছে। এরা এখনও মধ্য যুগে অবস্থান করছে।দূর্ভাগ্য মানবজাতির।

কাজী
১২ মে ২০২১, বুধবার, ১০:১২

মানব কুলে জন্ম নিলেও নিকৃষ্টতম রুচি।

ফজলু
১৩ মে ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৯:১২

রুচিবোধটা দেখ! কি অদ্ভুত! তবে এসব নোংরা লাগিয়ে রাখলে গায়ে লোম গজাবে ভাল। তখন জঙ্গলের বন্ধুদের অভিনন্দন জানাতে আর কোন সঙ্কোচ থাকার কথা নয়। যতসব।

Kazi
১২ মে ২০২১, বুধবার, ৩:২২

People of India trust rumors. Don't hear scientists they believe in prejudice.

অন্যান্য খবর