× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, মঙ্গলবার , ৬ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১২ সফর ১৪৪৩ হিঃ

মানুষের করোনা হয়েছে কী না সেটা ধরে দিতে পারে সারমেয়

শরীর ও মন

সেবন্তী ভট্টাচার্য
২২ মে ২০২১, শনিবার
সর্বশেষ আপডেট: ৪:৩২ অপরাহ্ন

ফরাসি দেশে একটি নতুন গবেষণায় উঠে এসেছে চাঞ্চল্যকর তথ্য। গবেষণা বলছেন ৯৭% শতাংশ ক্ষেত্রে সারমেয়রা শুধুমাত্র গন্ধ শুঁকে মানুষের করোনা হয়েছে কী না সেটা চিহ্নিত করে দিতে পারে। গন্ধ শুকে সারমেয়রা ৯১% করোনা নেগেটিভও ধরে দিতে পারে। ফ্রান্সের একটি পশু চিকিত্সা স্কুলে এই পরীক্ষা করা হয়। এই পরীক্ষায় যারা অংশ নিয়েছিলেন তাদের বগল থেকে তুলোর প্যাডের সাহায্যে ঘাম নেওয়া হয়। তারপর সেই তুলোর প্যাড কিছুক্ষণ একটি জারের মধ্যে রেখে দেয়া হয়। তারপর সেই তুলোর প্যাড দুটো আলাদা সারমেয়কে দেওয়া হয়। এই সারমেয়দের সঙ্গে অংশগ্রহণকারীদের পূর্ব পরিচয় ছিল না।


৩৩৫ জন মানুষ এই পরীক্ষায় অংশ নেয়। এর মধ্যে ১০৯ জন পিসিআর টেস্টে পজিটিভ ধরা পড়েছে। ৯টি সারমেয় এই কাজটি সুচারুভাবে করে। তবে ঠিক কোন সারমেয়গুলো এই করোনা পজিটিভ চিহ্নিত করেছে সেটা নির্দিষ্ট করে গবেষণায় ধরা পড়ে নি। গবেষণায় দেখা গেছে যে সারমেয়দের এই কাজে ব্যবহার করা হয়েছে তারা সঠিকভাবে করোনা পজিটিভদের চিহ্নিত করতে পারছে।

ফিনল্যাণ্ড, দুবাই ও সুইজারল্যান্ড সারমেয়দের এই কাজে প্রশিক্ষণ দিচ্ছে। ১৬ মার্চ থেকে ৯ এপ্রিলের মধ্যে এই পরীক্ষা হয়। এতে ২৫ হাজার ইউরো খরচ হয়। এই পরীক্ষায় একদিকে যেমন খরচ কম লাগছে অন্যদিকে তেমন জনবহুল জায়গায় কোনো করোনা রোগী থাকলে তাকে নিমেষে সারমেয় দ্বারা চিহ্নিত করিয়ে বিপুল পরিমাণ মানুষের থেকে বিচ্ছিন্ন করে হাসপাতালে পাঠানো যাচ্ছে। বিভিন্ন জনাকীর্ণ জায়গা যেমন বিমান বন্দর, রেল স্টেশন বা কোনও জনবহুল জায়গায় এই সারমেয়দের করোনা চিহ্নিতকরণের কাজে ব্যবহার করা যেতে পারে, যেমন ড্রাগ ও বোমা শনাক্ত করার কাজে সারমেয়দের ব্যবহার করা হয়। এর ফলে দ্রুত, কম খরচে করোনা রোগীদের চিহ্নিত করা যাবে। আসলে করোনা আমাদের বিশ্বে বিপুল পরিমাণ ক্ষতি করেছে ও করছে তাতে কোনও সংশয় নেই। তবে করোনা আমাদের শিক্ষাও দিয়ে যাচ্ছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর