× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ২১ জুন ২০২১, সোমবার, ৯ জিলক্বদ ১৪৪২ হিঃ
আলাপন

এখন না বলা শিখেছি -ইমন

বিনোদন

মাজহারুল তামিম
১০ জুন ২০২১, বৃহস্পতিবার

সম্প্রতি চিত্রনায়ক মামুনুন হাসান ইমনের 'আগামীকাল' সিনেমা বিনা কর্তনে সেন্সর সনদ পেয়েছে। এটি পরিচালনা করেছেন অঞ্জন আইচ। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে এই সিনেমা উঠবে বড় পর্দায়। সিনেমাটি নিয়ে কতটুকু অশাবাদী আপনি? ইমন বলেন, এখন সময়টাই গল্পের ছবির। অঞ্জন দার পরিচালনায় একটা ম্যাজিক আছে। সবচেয়ে বড় কথা উনি গল্পটাকে নিয়ে আগায়। সিনেমাটির গল্প এই সময়ের। এই সিনেমার অমার সঙ্গে মম ছিল।
ওর সঙ্গে তো অনেক আগের সম্পর্ক। ‘দারুচিনি দ্বীপ’ দিয়ে শুরু আমাদের। এ ছবিতেও আমাদের ভালো একটা রসায়ন ছিল। সব মিলিয়ে আমার মনে হয় ভালো লাগবে ছবিটা। করোনার ধাক্কা সামলে অনেকেই শুটিংয়ে ফিরেছেন। আপনি ফিরছেন কবে? ইমন বলেন, করোনা আর লকডাউন যে পরপর দুইবার হবে সেটা জানতাম না। এই কারণে রোজার ইদে কোনো কাজই করিনি। গৃহবন্দিই ছিলাম ধরতে গেলে। কাছের অনেক মানুষের করোনা হয়েছিল। তাই আমি আর বাসা থেকে বের হইনি। মাঝখানে একটা সিনেমা করার কথাও ছিল। ওইটাও করোনার কারণে বন্ধ করে দিয়েছি। কারণ জীবন তো আগে। তবে এরইমধ্যে শুটিং শুরু করে দিয়েছি।নতুন একটি ওয়েব ফিল্মের শুটিং আছে সামনে। ‘আকবর’ সিনেমায় কাজ করেছিলেন।তার কি খবর? ইমন বলেন, কোটি টাকার ওপরে সিনেমার বাজেট। গত বছর করোনার কারণে লকডাউন দিয়ে দিল। তার জন্য সিনেমাটির প্রযোজকের প্রস্তুতি ছিল না। অবস্থাটা আসলে নিয়ন্ত্রনে নেই। এখন যেহেতু পরিস্থিতি একটু স্বাভাবিক। সামেন শুটিং হতে পারে। রোজার ইদে তো ছবি মুক্তি দেয়া সম্ভব হলো না। কোরবানী ঈদ নিয়েও শংকা আছে। এই পরিস্থিতিতে অনেকে বিকল্প হিসেবে ওয়েব মাধ্যমকে দেখছেন।আপনার কী মতামমত? এ নায়ক বলেন, সালমান খানের একশ কোটি টাকার বাজেটের ছবি যদি ওটিটিতে রিলিজ হতে পারে তাহলে বাজেটের সিনেমাগুলো অবশ্যই ওটিটিতে দিতে হবে। যদিও সিনেমা হলের কোনো বিকল্প নেই। সামনের পরিকল্পনা কী আপনার? ইমন বলেন, অগে না বলতে পারতাম না। এখন না বলা শিখেছি। আরও ভালো ভালো কাজ করতে চাই। অভিনয়কেন্দ্রিক ছবিতে মনোযোগ দিচ্ছি বেশি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর