× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ২১ জুন ২০২১, সোমবার, ৯ জিলক্বদ ১৪৪২ হিঃ
আলাপন

নিজের চেয়ে মেয়ের গানের প্রশংসা শুনতে ভালো লাগে -ন্যান্সি

বিনোদন

ফয়সাল রাব্বিকীন
১১ জুন ২০২১, শুক্রবার

জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী নাজমুন মুনিরা ন্যান্সি। এরইমধ্যে ধারাবাহিকভাবে শ্রোতাপ্রিয় গান উপহার দিয়েছেন। এখনও নিয়মিত গান করে চলেছেন। এদিকে গেলো ঈদে ন্যান্সির কণ্ঠে কয়েকটি গান প্রকাশ হয়। সব মিলিয়ে কি খবর? কেমন চলছে দিনকাল? এ গায়িকা বলেন, খুব ভালো চলছে। জীবন একটাই, বেশি চাপ নিতে চাই না। ঈদে কয়েকটি গান প্রকাশ হয়েছে। সাড়া কেমন মিললো? ন্যান্সি বলেন, ঈদে অনুপম থেকে প্রকাশ হয়েছিলো আমার কন্ঠে পুরোনো দিনের গান ‘হারানো দিনের মত’।
গানটির ভিডিওতে প্রথমবার পারফরমও করেছি। অনেকেই বলেছেন গান-ভিডিওটি ভালো লেগেছে। এর বাইরে ‘তুই আমার হয়ে যা’, ‘শুকনো মোমবাতি’ শিরোনামের দুটি গান প্রকাশ হয়েছে। এ গানগুলোও অনেকে পছন্দ করছেন। এদিকে ন্যান্সি ময়মনসিংহ থাকলেও মাঝেমধ্যেই তাকে ঢাকায় আসতে হয় রেকর্ডিং, শো কিংবা অনুষ্ঠানে অংশ নিতে। এ গায়িকা জানালেন বড় বাসা ছেড়ে একটি ছোট ফ্ল্যাটে উঠেছেন তিনি। ছোট ফ্ল্যাটটিকে সাজিয়েছেন নিজের মতো। তার ছবিও আপলোড করেছেন ফেসবুকে। বাসার ইন্টেরিয়র, সাজানোর বেশ প্রশংসাও করেছেন নেটিজেনরা। কেমন লাগছে? ন্যান্সি বলেন, হ্যা। অনেকেই প্রশংসা করেছেন। আসলে মংমনসিংহ থেকে কাজের জন্য আমাকে ঢাকায় আসতে হয়। এবার পুরোনো বাসা বদলে ছোট ফ্ল্যাটে উঠেছি। আমার বাসার সবাই নাক মুখ কুঁচকে রাখলো! কারণ বাবার চাকরি এবং আমার পেশার বদৌলতে সারাজীবন আয়েশি জীবন যাপন করেছি। আমি পরিপাটি থাকতে পছন্দ করি। খুব আরামপ্রিয় মানুষ। পরিবারের সবাই ভেবেছিলো তিনদিনের বেশি এ বাসায় থাকতে পারবো না। বিষয়টাকে চ্যালেঞ্জ হিসেবেই  নিলাম। রুম নিজের মতো সাজিয়েছি। এখন আমার পরিবারের সবাইও অবাক ও চুপ। আপনার মেয়ে রোদেলাও গান করছে নিয়মিত। তাকে নিয়ে কি পরিকল্পনা? ন্যান্সি বলেন, সত্যি বলতে রোদেলা নিজের মতো করে গাওয়ার চেষ্টা করছে। সংগীতাঙ্গনের মানুষ ও শ্রোতারা বেশ উৎসাহ যোগাচ্ছে ওকে। সবশেষ হাবিব ভাইয়ের সুর ও সংগীতে গেয়েছে ও। এটা ওর বড় প্রাপ্তি। নিজের গানের প্রশংসা অনেক শুনেছি। এখন নিজের চেয়ে মেয়ের গানের প্রশংসা শুনতে ভালো লাগে। তবে ভবিষ্যতে রোদেলা কি করবে সেটা ওর ওপরই ছেড়ে দেবো।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর