× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২৭ জুলাই ২০২১, মঙ্গলবার, ১৬ জিলহজ্জ ১৪৪২ হিঃ
পরীমনিকে ধর্ষণচেষ্টা মামলা

নাসির উদ্দিনসহ গ্রেপ্তার ৩

অনলাইন

অনলাইন ডেস্ক
(১ মাস আগে) জুন ১৪, ২০২১, সোমবার, ৩:২৪ অপরাহ্ন

অভিনেত্রী পরীমনিকে ধর্ষণচেষ্টা ও হত্যাচেষ্টার মামলায় প্রধান আসামি নাসির উদ্দিন মাহমুদসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। আজ দুপুরে রাজধানীর উত্তরার বাসা থেকে অভিযান চালিয়ে নাসির উদ্দিনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার হারুন অর রশিদ গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান।
এর আগে সকালে আবাসন ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন মাহমুদসহ ছয়জনকে আসামি করে সাভার থানায় মামলা দায়ের করেন পরীমনি।

মামলায় আসামি হিসেবে ঢাকা বোট ক্লাবের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও আবাসন ব্যবসায়ী নাসিরউদ্দিন মাহমুদ ও তার বন্ধু অমির নাম উল্লেখ করে আরও চারজনের নাম অজ্ঞাত রাখা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ৯ই জুন (বুধবারে) রাতে ঢাকা বোট ক্লাবে পরীমনিকে ধর্ষণ ও হত্যা চেষ্টা করা হয়। গতকাল প্রথম ধর্ষণ ও হত্যা চেষ্টার অভিযোগ করে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে স্ট্যাটাস দেন আলোচিত এ অভিনেত্রী। প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিচার চান তিনি। পরে রাতে সংবাদ সম্মেলনে ও পুলিশ কর্মকর্তাদের কাছে ঘটনার বিস্তারিত বিবরণ দেন তিনি।
এসময় তিনি বারবার কান্নায় ভেঙে পড়েন। সংবাদ সম্মেলনে এক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন পরীমনি। তার অভিযোগ ঢাকা বোট ক্লাবের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য (বিনোদন ও সংস্কৃতি) নাসির ইউ মাহমুদের বিরুদ্ধে। ঢাকা বোট ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য নাসির একজন আবাসন ব্যবসায়ী। তিনি উত্তরা ক্লাবের সাবেক সভাপতি। অভিযোগের ব্যাপারে এখন পর্যন্ত নাসির ইউ মাহমুদের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

পরীমনি বলেন, উত্তরার বোট ক্লাবে (ঢাকা বোট ক্লাব) তার সঙ্গে ঘটনাটি ঘটে। নাসির উদ্দিন নামে একজন নেশাজাতীয় কিছু খাইয়ে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। চার মদ্যপ ব্যক্তি তাকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করেন। চড়-থাপ্পড় মারেন। গায়ে আঘাত করেন।

পরীমনি বলেন, ‘আমি সুইসাইড করার মতো মেয়ে না। আমি যদি মরে যাই, আপনারা বুঝবেন আমাকে মেরে ফেলা হয়েছে। আমি সুইসাইড করতে পারি না। আমি সুইসাইড করব না। আমি আমার বিচার নিয়ে মরব। আমার সাথে অন্যায় করা হয়েছে। আমার সাথে অন্যায় হয়েছে, বিচার চাই। আমি আজকে মরে গেলে... আমি সুইসাইড করি নাই, সবাই জেনে রাখেন। আর আমাকে যদি কেউ মারে, আমি যদি মরে যাই; ভাইয়ারা আপনারা বিচার কইরেন, আল্লাহর কসম।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Blue
১৪ জুন ২০২১, সোমবার, ৫:২৭

PORIRA - OMONI HOY.

জাফর আহমেদ
১৪ জুন ২০২১, সোমবার, ৬:২১

রাত বারোটার পর ও মহিলা এখানে গেছে কেন, নিচ্ছ‌ই স‌ইচছায় এখন টাকা পয়সা নিয়ে ঝামেলা থেকে এতো কিছু, কারো চরিত্র তো দুধের দোয়া তুলসীর পাতা নয়,

Desher Bhai
১৪ জুন ২০২১, সোমবার, ৬:০৩

I am surprised that Porimoni was seeking justice from the illegal Indian RAWami (RAW + Awami) League PM SHW. Well, SHW is not the head of the judiciary system in Bangladesh. Porimoni should have gone to the court. However, the police started working after Porimoni complained with illegal SHW on Facebook. This again proves that illegal SHW is controlling the judiciary system of Bangladesh.

Adv. N. I. Bhuiyan
১৪ জুন ২০২১, সোমবার, ৪:৪৮

এই মামলায় প্রধান প্রধান আসামি নাসিমকে দিয়ে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি ওড়াতে না পারলে কোনোভাবেই ভালো বিচার আশা করা যায় না দেখা যাবে এখন তদন্তকারী কর্মকর্তা কতটা দক্ষ তা প্রমাণ হবে

সুলতান
১৪ জুন ২০২১, সোমবার, ৪:৪৮

এই কুলাংগারকে আবাসন ব্যবসায়ীই না বলে নারী লোভী, মেরুদণ্ডহীন ও আল্লাহ্রর জমিনে অশান্তি সৃষ্টি এবং বরবাদীদের অন্তর ভুক্ত শয়তান বলতে লজ্জা পাওয়ার বা ভয়ের কিছু নেই।

Tofazzel Hossain
১৪ জুন ২০২১, সোমবার, ৫:৪২

What was her activity in the boat club at night?

shiblik
১৪ জুন ২০২১, সোমবার, ৫:২৫

ছোট গডফাদারে ছেয়ে গেছে দেশ। অনেক কিছু পরিষ্কার করতে হবে গরম পানি, ব্লীচ, এবং তারের ব্রাশ দিয়ে।

kabir
১৪ জুন ২০২১, সোমবার, ৪:০৮

Confused about his real father.

Wadud
১৪ জুন ২০২১, সোমবার, ৪:০৭

আমার দুঃখ লাগে এজন্য যে, বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর সদস্যদের এ সমস্ত বিনোদন মূলক আকামের জন্য মূল্য বান সময় নষ্ট করাচ্ছে কারণ রাত 12 টার পরে বাসায় ক্লাবে গেস্ট হাউজে কি করলেন আর তার জন্য এত কিছু,,,,,

ওবাইদুল
১৪ জুন ২০২১, সোমবার, ৪:৫৬

দুর্বল, ধীরগতি ও সুবিধাবাদীদের প্রচন্ড প্রভাবের ভিতর থাকা বিচার ব্যাবস্থা, দুর্নীতির ঘুণেধরা প্রসাশন তার সাথে সরকারের ভিতর লুকিয়ে থাকা ক্ষমতাধর দুর্নীতিবাজদের আশ্রয়, প্রশ্রয় ও সাহায্যে এই সব দুর্বৃত্বরা দর্দন্ড প্রতাপে অপরাধ করে পার পেয়ে যাচ্ছে। যার ফলে শুধু অমানবিকই নয় হাড় হিম করা অপরাধ দিন দিন বাড়ছে আর এর কোন প্রতিকার হচ্ছে না।

kabir
১৪ জুন ২০২১, সোমবার, ৩:৫৩

Son of batch.

Neutral and Sufferer
১৪ জুন ২০২১, সোমবার, ৪:৩৭

Nothing would happen. Because Nasir and his groups are powerful. These peoples are the friend of Mr. Banzir Ahmed the IGP. After few months all of the witnessed will stop either by receiving some money or by receiving many types of threat. The case will go away from the court. Justice will stop. Question remains, how long the peoples in Bangladesh will suffer like that? This is the same incident as Sylhet MC college happen. Only difference is Sylhet MC college rapist were less powerful. Here rapists are more powerful. These rapist are same powerful as Bashudara group. The Bashudara group can put someone in a position to make sure that person should suicide. They would not receive any punishment. Here Nasir and his group would not receive any punishment. Peoples in Bangladesh in one day will reply all of these criminal activities. The persons who did criminal activity they all should receive punishment. The peoples who are helping these criminals they all should receive punishment. JAGO BANGLADESH.

Delwar Karim Chowdhu
১৪ জুন ২০২১, সোমবার, ৪:৩৭

Celebrity can go every where. They have no geographical area. That's why they are celebrity.

MIK
১৪ জুন ২০২১, সোমবার, ৩:০৩

শুধু নাম ও রিয়েল এষ্টেট ব্যবসায়ী না বলে এই গুনধরের আরো একটু খোলাসা করে পরিচয় উল্লেখ করুন না কেন ? লোকজনের চেনার দরকার ।

rassel
১৪ জুন ২০২১, সোমবার, ৩:৫৭

Good girls don't go to clubs at night.

Borno bidyan
১৪ জুন ২০২১, সোমবার, ২:৪২

প্রায় সব আবাসন ব্যবসায়ীই অপরাধী! এরা নিজেদেরকে আইনের উর্ধে মনে করে ! জমি দখল, জালিয়াতি, খুন ধর্ষণ করতে করতে এরা এতটাই বেপরোয়া যে, এরা এই দেশের হর্তাকর্তা বলে নিজেদেরকে ভাবতে শুরু করেছে! এদের এক পকেটে পুলিশ আর অন্য পকেটে রাজনৈতিক নেতারা থাকে! বড় আবাসন ব্যবসায়ী বেঁচে গেলেও এবার ফেঁসে গেলো ছোট ব্যবসায়ী ! এমন শত শত আবাসন মাফিয়া ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে দেশজুড়ে!

অন্যান্য খবর