× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২৩ জুলাই ২০২১, শুক্রবার, ১২ জিলহজ্জ ১৪৪২ হিঃ

বিচার চেয়ে দ্বারে দ্বারে ঘুরছে কৃষক নীলচান মল্লিক

বাংলারজমিন

বোয়ালমারী (ফরিদপুর) প্রতিনিধি
১৫ জুন ২০২১, মঙ্গলবার

ফরিদপুরের বোয়ালমারী  উপজেলার দাদপুর ইউনিয়নের পূর্বভাটদী গ্রামের বাসিন্দা নীলচান মল্লিক (৬৩) ন্যায়বিচারের দাবিতে দ্বারে দ্বারে ঘুরছে। জানা গেছে, পূর্বভাটদী ৩১ নং মৌজার ৬ একর ৯১ শতাংশ জমি তার (নীলচান মল্লিক) ও তার পিতা আইনউদ্দিন মল্লিকের নামে রয়েছে। ওই ৬ একর ৯১ শতাংশ জমি একই গ্রামের মো. চুন্নু মল্লিক (৪৫) গংরা দখলের চেষ্টা করছে। এই জমিতে নীলচান মল্লিক চাষবাস করতে গেলে চুন্নু মল্লিক গং তাকে খুন ও জখম করার ভয়ভীতি দেখিয়ে তাড়িয়ে দেয়। জমিতে থাকা তালগাছ বিক্রি করতে গেলে বাধা দেয় এবং জমির মধ্যে তিনটি পুকুর রয়েছে- এমনকি পুকুরে মাছ মাষ করতে বাধা দিচ্ছে। সে জমিতে গেলে চুন্নু মল্লিক তার লোকজন নিয়ে জমির মালিককে তাড়িয়ে দেয় বলে অভিযোগ করেন। এ ঘটনায় নীলচান মল্লিক বিচারের দাবিতে চুন্নু মল্লিককে প্রধান করে আটজনের নামে বোয়ালমারী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন। নীলচান মল্লিক বলেন, চুন্নু মল্লিক গংদের পেছনে বড় ধরনের একটি শক্তি রয়েছে।
যার কারণে তারা আমার নিজের রাখা সম্পত্তি এবং আমার পৈতৃক সম্পত্তি দখলের চেষ্টা করছে। আমি জমিতে চাষবাস করতে গেলে আমাকে জীবননাশের হুমকি দিয়ে এবং বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখিয়ে জমি থেকে তাড়িয়ে দেয়। আমি আমার পরিবার নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। যার কারণে আমি বিচারের দাবি জানিয়ে বোয়ালমারী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি। এব্যাপারে চুন্নু মল্লিকের সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি বলে তার বক্তব্য দেয়া সম্ভব হলো না। এব্যাপারে অভিযোগ পাওয়ার কথা নিশ্চিত করে জয়নগর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই পলাশ বলেন, তাদের কিছু জমি নিয়ে কোর্টে মামলা ছিল। মামলার রায় নীলচান মল্লিকের পক্ষে হয়েছে। ওই জমি নিয়েই ঝামেলা চলছে। আমি অভিযোগ তদন্ত করে আদালতে পাঠিয়ে দেবো।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর