× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২৪ জুলাই ২০২১, শনিবার, ১৩ জিলহজ্জ ১৪৪২ হিঃ

নোয়াখালীতে ইউপি সদস্য হত্যার বিচার দাবি

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, নোয়াখালী থেকে
১৫ জুন ২০২১, মঙ্গলবার

উপজেলা আওয়ামী লীগ সদস্য ও  ইউপি সদস্য রবীন্দ্র চন্দ্র দাস হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করেছে জেলেরা। গতকাল সকালে নোয়াখালী দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার চরঈশ্বর বাংলাবাজারে এই মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। চরঈশ্বর ইউনিয়ন আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে প্রায় সহস্রাধিক জেলে ছাড়াও বিভিন্ন পেশার দুই সহস্রাধিক লোক উপস্থিত ছিলেন। সকাল ১১টা থেকে শুরু হয়ে ১টা পর্যন্ত ছিল এই মানববন্ধন। মানববন্ধন শেষে চরঈশ্বর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আলাউদ্দিন আজাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন- জেলা যুবলীগের সদস্য জিল্লুর রহমান, উপজেলা স্বেচ্ছা সেবকলীগের সভাপতি মহিউদ্দিন মুহিন, রবীন্দ্র চন্দ্র দাসের পরিবারের পক্ষে তার পিতা সতীশ মহাজন ও ছেলে রিকেল চন্দ্র দাস প্রমুখ। বক্তারা তাদের বক্তব্যে এই হত্যার সঙ্গে জড়িত আব্দুল হালিম আজাদ, ছেলে অমি, ভাতিজা সোহেল, নাজিম ডাকাত ও রহিম ডাকাতসহ আসামিদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক বিচার দাবি করেন। প্রসঙ্গত, গত বুধবার দিবাগত রাতে হাতিয়া শ্রমিকলীগের সভাপতি আল আমিনসহ মোটর সাইকেল যোগে চরঈশ্বর থেকে ওছখালী আসছিলেন চরঈশ্বর ৩ নং ওয়ার্ডের মেম্বার রবীন্দ্র চন্দ্র দাস। তাদের মোটরসাইকেলটি চরঈশ্বর প্রধান সড়কের খাসেরহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হালিম আজাদের বাড়ির সামনে এলে একদল দুর্বৃত্ত তাদের লক্ষ্য কর কয়েক রাউন্ড গুলি ছুড়ে গতিরোধ করে।
এ সময় মোটরসাইকেলের পিছনে থাকা আল আমিন পিছন দিকে দৌড়ে পালিয়ে গেলেও হামলাকারীদের হাতে আটকা পড়ে রবীন্দ্র। হামলাকারীরা প্রথমে রবীন্দ্রকে গুলি ও পরে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে এবং তার হাতের কব্জি ও রগ কেটে ফেলে যায়। পরে টহল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে রবীন্দ্রের লাশ উদ্ধার করে। এই ঘটনায় শুক্রবার সকালে নিহত রবীন্দ্র চন্দ্র দাসের ছেলে রিকেল বাদী হয়ে ৪৪ জনের নাম উল্লেখ করে হাতিয়া থানায় একটি মামলা করে।  সোমবার পর্যন্ত পুলিশ অভিযান দিয়ে তিনজনকে আটক করেছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর