× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২৪ জুলাই ২০২১, শনিবার, ১৩ জিলহজ্জ ১৪৪২ হিঃ

বিশ্বকাপ বাছাইয়ে আজ শেষ ম্যাচ বাংলাদেশের

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার
১৫ জুন ২০২১, মঙ্গলবার

বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপ বাছাইয়ে ‘ই’ গ্রুপে আজ নিজেদের শেষ ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। কাতারের দোহায় জসিম বিন হামাদ স্টেডিয়ামে তপু-জিকুদের প্রতিপক্ষ ওমান। বাংলাদেশ সময় রাত ১১টায় শুরু হবে এই ম্যাচ।
বিশ্বকাপ বাছাইয়ের তৃতীয় রাউন্ড থেকে অনেক আগেই ছিটকে গেছে বাংলাদেশ। ভারতের বিপক্ষে ২-০ গোলে হেরে এশিয়ান কাপে সরাসরি খেলার শেষ আশাটুকু ধূলিসাৎ হয়েছে লাল-সবুজ দলের। এখন এশিয়ান কাপে খেলতে হলে প্লে-অফের কঠিন পথ পাড়ি দিতে হবে বাংলাদেশকে। তার আগে এই ওমান পরীক্ষা। যে দলটির কাছে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের প্রথম লেগে ৪-১ গোলে হেরেছিল জেমি ডে’র শিষ্যরা। ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশের চেয়ে ১০৪ ধাপ এগিয়ে ওমান।
তারওপরে  কার্ডজনিত জটিলতায় থাকছেন না নিয়মিত অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া, ডিফেন্ডার রহমত মিয়া ও মিডফিল্ডার বিপলু আহমেদ। ইনজুরি আক্রান্ত মাসুক মিয়া জনির খেলার সম্ভাবনাও কম এই ম্যাচে। জামালের অনুপস্থিতিতে আজ বাংলাদেশের নেতৃত্ব দেবেন ডিফেন্ডার তপু বর্মণ। জাতীয় দলের ম্যানেজার ইকবাল হোসেন বলেন, ‘কোচ ও টিম ম্যানেজম্যান্টের সঙ্গে আলোচনা করে আমরা তপুর হাতে আর্মব্যান্ড দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি’। আফগানিস্তানের বিপক্ষে সমতাসূচক গোলটি করেছিলেন জাতীয় দলের হয়ে এই পর্যন্ত ৩৫ ম্যাচে মাঠে নামা তপু। ভারত ম্যাচের ফলাফল আশানুরূপ না হলেও ওমানের সঙ্গে ভালো ফুটবল খেলতে চায় বাংলাদেশ এমনটা জানিয়ে তপু বলেন, আমরা ভারত ম্যাচে ভালো খেলতে পারিনি। তার মানে এই না আমাদের সব শেষ হয়ে গেছে। আজ আমরা ঘুরে দাঁড়াতে চাই। প্রমাণ করতে চাই আমরা ভালো দল’।
তবে সামপ্রতিক বছরে এত বেশি চোটের হানা দেখা যায়নি বাংলাদেশ দলে। চোটে পড়ে শেষ সময়ে কাতার যেতে পারেননি ফরোয়ার্ড সাদউদ্দিন। নাবিব নেওয়াজ জীবন, বিশ্বনাথ ঘোষ, আশরাফুল ইসলামরা ছিটকে যান আগেই। করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় দোহায় যেতে পারেননি মাহবুবুর রহমান সুফিলও। কাতার যাওয়া ২৪ ফুটবলারের মধ্যে এখন ওমান ম্যাচের জন্য আছেন মাত্র ১৯ জন। তিন গোলকিপার বাদে ওমানের বিপক্ষে একাদশের বাইরে মাত্র ছয়জন খেলোয়াড় পাবেন কোচ। বদল করা যাবে পাঁচজন। মাসুক মিয়া জনি, সোহেল রানা ও জামাল ভূঁইয়া না থাকায় আজ মাঝমাঠে দল শক্তি হারাবে নিশ্চিত। রাকিব হোসেন, মানিক মোল্লা, মোহাম্মদ ইব্রাহিম ও আবদুল্লাহদের খেলতে হবে শুরু থেকেই। আক্রমণে অনভিজ্ঞ সুমন রেজা, জুয়েল, মেহেদি হাসানদের ওপরই নির্ভর করতে হবে। বাংলাদেশ দলের ভেতর তাই বইছে দুশ্চিন্তার চোরা স্রোত। ওমান এমনিতেই শক্তিধর প্রতিপক্ষ, তাদের সঙ্গে ভাঙাচোরা দল নিয়ে নামতে হবে ভেবে ভাবনায় পড়েছেন কোচিং স্টাফরা।
ভারতের কাছে ২-০ গোলে হারের পর বাংলাদেশের আসলে চাওয়া-পাওয়ার আর কিছু নেই। খেলোয়াড়েরা সরাসরি কিছু না বললেও শক্তিশালী ওমানের বিপক্ষে যে যতটা সম্ভব কম গোলে হারই লক্ষ্য, সেটা বুঝতে অসুবিধা হচ্ছে না কারও। খেলোয়াড়দের প্রায় সবার মুখেই অভিন্ন সুর-ওমান ম্যাচে ভালো খেলার চেষ্টা করবেন তারা। এখন দেখার বিষয় সেরা একাদশ ছাড়া ওমান ম্যাচে কেমন করে বাংলাদেশ।
‘ই’ গ্রুপে আট ম্যাচে ২৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে রয়েছে স্বাগতিক কাতার। এক ম্যাচ কমখেলে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে ঠিক তার পরের স্থানে রয়েছে ওমান। ৭ ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে ভারত তিনে আর ৫ পয়েন্ট নিয়ে চার নম্বরে আছে আফগানিস্তান। সম্যানে ম্যাচে তলানিতে থাকা বাংলাদেশের সংগ্রহ মাত্র ২ পয়েন্ট।  

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর