× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২৮ জুলাই ২০২১, বুধবার, ১৭ জিলহজ্জ ১৪৪২ হিঃ

ড্রয়ে ইউরো শুরু স্পেনের

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক
১৫ জুন ২০২১, মঙ্গলবার

ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের শুরুটা ভালো হলো না স্পেনের। আসরের অন্যতম ফেভারিটরা সোমবার রাতে গোলশূন্য ড্র করেছে সুইডেনের সঙ্গে।

ঘরের মাঠ সেভিয়ার লা কার্তুজায় ‘ই’ গ্রুপের ম্যাচে মাঠে নেমেছিল স্পেন-সুইডেন। পুরো ম্যাচে ৮৫ শতাংশ সময় বল দখলে রাখা স্পেন গোলের উদ্দেশে শট নেয় ১৭টি, এর ৫টি ছিল লক্ষ্যে। সুইডেনের ৪ শটের একটি লক্ষ্যে। করোনামুক্ত না হওয়ায় এই ম্যাচে খেলতে পারেননি স্পেন অধিনায়ক সার্জিও বুস্কেটস। ইনজুরির কারণে আগেই পুরো আসর থেকে ছিটকে যান সার্জিও রামোস।

ঘরের মাঠে শুরু থেকেই সুইডেনকে চেপে ধরে স্পেন। সপ্তম মিনিটে গোলের উদ্দেশে ম্যাচের প্রথম শট নেয় তারা। ডি-বক্সের বাইরে থেকে দানি ওলমোর জোরালো শট উড়ে যায় ক্রসবারের ওপর দিয়ে। দানি ওলমোর হেডার আরেকবার ওলসেন দুর্দান্ত সেভ দিলে গোলবঞ্চিত হয় স্পেন।
প্রথমার্ধে ০-০ স্কোরলাইনে শেষ হওয়ার ক্ষেত্রে অবদান আছে সুইডেন রক্ষণেরও। যদিও বেশ রক্ষণাত্মক কৌশলেই খেলছিল তারা। তবে প্রথমার্ধ শেষে সেটাই সঠিক সিদ্ধান্ত হিসেবে প্রমাণিত। ১৯৮০ সালের পরে ইউরোতে প্রথম অর্ধে এদিন স্পেনের ৪১৯ সফল পাসের বেশি আর কারো নেই। ৮০% পজেশন রেখে একাধিপত্যের চরম উপস্থাপনা স্পেন দেখিয়েছে সেই অর্ধে। 

দ্বিতীয়ার্ধেও বলের দখলে একাধিপত্য বজায় রেখেছে স্পেন। ৭০ মিনিট খেলেই এবারের ইউরোতে এ পর্যন্ত বেলজিয়ামের সবচেয়ে বেশি পাসের রেকর্ড ভেঙ্গে ফেলেছে স্পেন। তবে শেষের ৪৫ মিনিটে সেভাবে গোলের সুযোগ তৈরি করতে পারেনি স্পেন। তবে বক্সে ভালো একটা সুযোগ পেয়ে গিয়েছিলেন মোরাতা। কিন্তু আরেকবার ব্যর্থ হন বল জালে জড়াতে। গোলের দেখা না পেয়ে এরপর রীতিমতো হতাশায় পেয়ে বসেছিলো স্পেনের কোচ লুইস এনরিকে। গোলের সন্ধানে একের পর এক বদলি নামিয়েছেন। 

৯০ মিনিটে বদলি হিসেবে নামা পাওলো সারাবিয়ার দারুণ এক ক্রস খুঁজে নিয়েছিলো আরেক বদলি জেরার্ড মরেনোকে। আবারও দুর্দান্ত সেভ দেন ওলসেন, ফিরিয়ে দেন মরেনোর হেডার। এরপর আরেকবার গোলের একেবারে সুবর্ণ সুযোগ পেয়ে যান সারাবিয়া। বাঁ পাশে বাড়ানো বল পেয়ে আলবা ক্রস করলে ফাঁকা জায়গায় বল পেয়ে যান সারাবিয়া। বল জালে জড়ালে সেটি আনন্দের সঙ্গে স্পেনের জন্য হতো স্বস্তির এক গোল। কিন্ত সারাবিয়ার দুর্বল শটে স্পেন স্বস্তিতে মাঠ ছেড়ে যেতে পারেনি। কোচ লুইস এনরিকের জন্যও ভাবনা বাড়িয়ে দিয়েছে দলের ফিনিশিং।

নিজেদের পরের ম্যাচে আগামী শনিবার ঘরের মাঠে পোল্যান্ডের মুখোমুখি হবে স্পেন। এর আগের দিন সেন্ট পিটার্সবার্গে স্লোভাকিয়ার বিপক্ষে খেলবে সুইডেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর