× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২৭ জুলাই ২০২১, মঙ্গলবার, ১৬ জিলহজ্জ ১৪৪২ হিঃ

আত্মঘাতী গোল-লাল কার্ডে ইতিহাসের পাতায় পোলিশরা

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক
১৫ জুন ২০২১, মঙ্গলবার

সবার চোখ ছিল রবার্ট লেভানডোভস্কির ওপর। বায়ার্ন মিউনিখের গোলমেশিন চেনা ছন্দে ছিলেন না জাতীয় দলের জার্সিতে। ২-১ ব্যবধানে ম্যাচও হেরেছে পোল্যান্ড। তবে সব ছাপিয়ে রেকর্ড গড়লেন পোলিশ গোলরক্ষক ভয়চেখ স্ট্যাসনি ও মিডফিল্ডার জেগোস ক্রিখোভিয়াক।
রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গে ‘ই’ গ্রুপের ম্যাচের ১৮তম মিনিটেই এগিয়ে যায় স্লোভাকিয়া। গোলটি পোলিশ গোলরক্ষকের আত্মঘাতী হলেও এর পুরো কৃতিত্ব রবের্ত মাকের। তবে এই আত্মঘাতী গোলেই রেকর্ড গড়েন স্ট্যাসনি। ইউরোর ইতিহাসে প্রথম গোলরক্ষক হিসেবে আত্মঘাতী গোলটি করেন তিনি। ৪৬তম মিনিটে ম্যাচে সমতায় আনেন পোল্যান্ডের ক্যারোল লিনেত্তি।
এরপর ৬২তম মিনিটে দ্বিতীয় হলুদকার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন ক্রিখোভিয়াক।
প্রথমার্ধে ২৪ মিনিটে প্রথম হলুদ কার্ড দেখেছিলেন তিনি।
পোল্যান্ডের তৃতীয় খেলোয়াড় হিসেবে কোনো মেজর টুর্নামেন্টে লাল কার্ড দেখলেন ক্রিখোভিয়াক।
ইউরোর ইতিহাসে দ্বিতীয় দল হিসেবে একই ম্যাচে আাত্মঘাতী গোল ও লাল কার্ডের দেখা পেলো পোল্যান্ড। প্রথম দল হিসেবে ১৯৭৬ সালের ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে প্রথম এমন রেকর্ড গড়েছিল চেকোস্লোভাকিয়া।
১০ জনের পোল্যান্ডকে পেয়ে সুযোগ কাজে লাগাতে সময় নেয়নি স্লোভাকিয়া। ৬৯তম মিনিটে ডি-বক্সের মধ্যে স্ক্রিনিয়ার শটে স্কোরলাইন ২-১ হয়। ডানে ঝাঁপিয়েও বলের নাগাল পাননি স্ট্যাসনি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর