× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ৩১ জুলাই ২০২১, শনিবার, ২০ জিলহজ্জ ১৪৪২ হিঃ

বৃটিশ পাসপোর্টে জেরুজালেম হলো ‘দখলকৃত ফিলিস্তিনি ভূখণ্ড’

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক
(১ মাস আগে) জুন ১৮, ২০২১, শুক্রবার, ৯:৫৬ পূর্বাহ্ন

নতুন এক বৃটিশ-ইসরাইলি নাগরিকের পাসপোর্টে জেরুজালেমকে ‘দখলকৃত ফিলিস্তিনি ভূখণ্ড’ হিসেবে তালিকাভুক্ত করেছে বৃটেন। বৃটিশ-ইসরাইলি দ্বৈত নাগরিক আয়েলেত বালাবান সম্প্রতি তার পাসপোর্ট নবায়ন করার পর এটি দেখতে পান। পূর্বের পাসপোর্টে তার জন্মস্থানের স্থলে শুধু জেরুজালেম লেখা ছিল। কিন্তু নবায়নকৃত পাসপোর্টে তা ‘দখলকৃত (অকুপাইড) ফিলিস্তিনি ভূখণ্ড’ হিসেবে বর্ণনা করা হয়েছে। এ খবর দিয়েছে দ্য হারেৎস।  
ইসরাইলি গণমাধ্যম কান’কে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে বালাবান বলেন, প্রাথমিকভাবে এই পরিবর্তন তাকে হতভম্ব করে দিয়েছিল। তিনি ভেবেছিলেন কোনো ভুল থেকে এমনটা হয়ে থাকতে পারে।
তিনি বলেন, আমি ভেবেছিলাম তারা হয়তো ভুল বুঝেছে।
কারণ আমি গাজা থেকে স্থানান্তরিত হয়ে আসা ইহুদিদের মোশাভ-এ (কমিউনিটি) থাকি। যদিও সেটি আমার জন্মস্থান নয়।  তিনি অভিযোগ করেন, আমি এ পাসপোর্ট নিয়ে কিভাবে চলবো? এটা আমার ব্যক্তিগত পাসপোর্ট।
বালাবান জানান, দুই বছর আগে ইস্যু হওয়া তার ভাইয়ের পাসপোর্টে তার জন্মস্থানের স্থলে জেরুজালেমই উল্লেখ করা। এ থেকে ধারণা পাওয়া যায় যে, বৃটিশ নীতিমালায় কোনো সম্ভাব্য পরিবর্তন এসে থাকলে তা সাম্প্রতিক সময়েই এসেছে।   
বালাবান ইসরাইলে নিযুক্ত লন্ডনের রাষ্ট্রদূত জিপি হটোভেলি ও আলিয়া সংগঠন নেফেশ বি,নেফেশ-এর সঙ্গে এ বিষয়ে যোগাযোগ করেছেন। তবে কোথাও থেকে এখনো সাড়া পাননি।
জেরুজালেমে অবস্থিত বৃটিশ কনস্যুলেটের ওয়েবসাইটে দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, জেরুজালেমের উপর কোনো পক্ষের সার্বভৌমত্বকে স্বীকৃতি দেওয়া থেকে দীর্ঘ সময় ধরে বিরত রয়েছে বৃটেন।
উল্লেখ্য, পশ্চিম জেরুজালেমে ইসরাইলের কর্তৃত্বকে স্বীকৃতি দিলেও পূর্ব জেরুজালেমকে ইসরাইলের দখলকৃত ভূখণ্ড হিসেবে বিবেচনা করে বৃটিশ সরকার। এ বিষয়ে ইসরাইলের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও ইসরাইলে বৃটিশ দূতাবাসের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে কান। মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, তারা ঘটনাটি খতিয়ে দেখছে। তবে বৃটিশ দূতাবাস থেকে এখনো কোনো সাড়া মেলেনি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
রেজাইল করিম
১৯ জুন ২০২১, শনিবার, ১১:২৮

ইসরাঈল দখলদরিত্ব রাস্ট্র আবার প্রমানিত হলো। ইংল্যান্ডকে ধন্যবাদ

কালাম ফয়েজী
১৮ জুন ২০২১, শুক্রবার, ৬:৩৩

যথার্থ কাজ করার জন্য ইংল্যান্ডকে ধন্যবাদ

অন্যান্য খবর