× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ৩০ জুলাই ২০২১, শুক্রবার, ১৯ জিলহজ্জ ১৪৪২ হিঃ
সিলেট-৩ উপনির্বাচন

হাবিবে একাট্টা আওয়ামী লীগ

দেশ বিদেশ

ওয়েছ খছরু, সিলেট থেকে
২০ জুন ২০২১, রবিবার

সিলেটে নৌকার প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিবের পক্ষে একাট্টা হচ্ছে আওয়ামী লীগ। পুরাতন বিরোধ, বিভক্তি ভুলে সব বলয়ের নেতারা একীভূত হয়ে উপনির্বাচনে নামার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। শুরু হয়েছে ওয়ার্ড, ইউনিয়ন, উপজেলাভিত্তিক নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠন। আওয়ামী লীগ প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিবের পূর্ণ ভরসায় দলীয় নেতাকর্মীরা। এ কারণে ঐক্যবদ্ধভাবে দলের সবাইকে নিয়ে তিনি নির্বাচনে ঝাঁপিয়ে পড়তে চান। ইতিমধ্যে সিলেট আওয়ামী লীগের নেতারা নির্বাচনী পরিকল্পনা সাজিয়ে দিচ্ছেন। এ ক্ষেত্রে তারা দুটি আইডিয়া নিয়ে মাঠে নামতে শুরু করতে চাচ্ছেন। এর মধ্যে একটি হচ্ছে- সিলেট-৩ (ফেঞ্চুগঞ্জ, দক্ষিণ সুরমা ও বালাগঞ্জ) আসনের ঘরে ঘরে নৌকার পক্ষে ভোট চাওয়া এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এক যুগের উন্নয়ন ঘরে ঘরে পৌঁছানো।
এই লক্ষ্যে আওয়ামী লীগ সহ অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের এক সারিতে এনে পরিকল্পনা সাজাচ্ছেন। দলীয় নেতারা জানিয়েছেন, এখনো যেহেতু আনুষ্ঠানিক নির্বাচনী প্রচারণা শুরু হয়নি, এ কারণে আওয়ামী লীগ মাঠ সাজানোর কাজ শুরু করেছে। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের তারা হালকা ভাবে নিচ্ছেন না। প্রথমে সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের তত্ত্বাবধানে ফেঞ্চুগঞ্জে উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা করা হয়েছে। শুক্রবার দক্ষিণ সুরমা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা হয়েছে। আর গতকাল অনুষ্ঠিত হয়েছে বালাগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা। এসব বর্ধিত সভার মাধ্যমে উজ্জীবিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন খান মানবজমিনকে জানিয়েছেন, ‘সিলেট আওয়ামী লীগে এখন আর কোনো গ্রুপিং নেই। আমরাও গ্রুপিং চাই না। এ কারণে সিলেট-৩ আসনের সব উপজেলাতেই নৌকার পক্ষে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা একাট্টা হয়ে গেছেন। সিনিয়র নেতা থেকে আওয়ামী লীগের সব নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ হয়েছেন। ঘরে ঘরে চালানো হবে নৌকার প্রচারণা।’ তিনি বলেন- ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কয়েক হাজার কোটি টাকার উন্নয়নের সাক্ষী হচ্ছে সিলেট-৩ আসন। আগামীতে নৌকার প্রার্থীই কেবল এ আসনে উন্নয়ন ধারা অব্যাহত রাখতে পারবে।’ আওয়ামী লীগের তৃণমূলের নেতারা জানিয়েছেন, সিলেট-৩ আসনের নির্বাচনকে ঘিরে নির্বাচনী এলাকায় আওয়ামী লীগের অভ্যন্তরে দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে শৃঙ্খলা ফিরে এসেছে। ‘চেইন অব কমান্ডে’ এসেছে এলাকার দলীয় রাজনীতি। পূর্বে নেতারা বিভক্ত ছিলেন। এখন আওয়ামী লীগ প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিবের পক্ষে সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে মাঠে রয়েছেন। সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি শফিকুর রহমান চৌধুরী জানিয়েছেন, নির্বাচনে আমাদের  মেসেজ ক্লিয়ার। সেটি হচ্ছে নৌকার পক্ষে সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে। ঘরে ঘরে গিয়ে নৌকার পক্ষে ভোট প্রার্থনা করতে হবে। এবং দলীয় নেতারা সেটিই করবেন বলে প্রতিজ্ঞা করেছেন। নিজ নিজ উপজেলায় নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠন করার কাজ শুরু হয়েছে। সেটি গঠন করে জেলা নেতৃবৃন্দের কাছে পাঠাতে বলা হয়েছে। ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও সাংবাদিক শাহ মুজিবুর রহমান জকন জানিয়েছেন, জেলা নেতৃবৃন্দের নির্দেশক্রমে সেন্ট্রাল কমিটি, আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠন করা হচ্ছে। ফেঞ্চুগঞ্জে সব নেতারা ঐক্যবদ্ধ হয়ে বিভেদ ভুলে নৌকার পক্ষে কাজ করছেন। অতীতের মতো এবারও সিলেট-৩ আসনে নৌকার জয়-জয়কার হবে বলে জানান তিনি। এদিকে, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের নেতা ছিলেন হাবিবুর রহমান হাবিব। সিলেট-৩ আসনের নির্বাচন ঘিরে তিনি অনেক আগে থেকেই এলাকায় সক্রিয় রয়েছেন। একযুগ ধরে তিনি এ আসনের নৌকার এমপি হওয়ার স্বপ্ন বুনছিলেন। সেই স্বপ্ন তার সত্যি হয়েছে। বয়সে তরুণ হলেও তিনি দলীয় ফোরামের বাঘা বাঘা প্রার্থীদের সঙ্গে লড়াই করে নৌকার প্রার্থী হয়েছেন। আর হাবিবুর রহমান হাবিবকে নৌকার প্রার্থী ঘোষণার পর থেকে মাঠে থাকা অন্য প্রার্থীরা নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। ফলে হাবিব নিজ দলের বিদ্রোহ কিংবা বিরোধিতার মুখোমুখি হচ্ছেন না। ভেতরে ভেতরে বিরোধিতার বিষয়টি পরিলক্ষিত হচ্ছে না। এতে করে ভোটের মাঠ হাবিবের জন্য সহজ হয়ে উঠেছে। জেলার নেতারা তার পক্ষে ঐক্যবদ্ধ রয়েছেন। হাবিবুর রহমান হাবিব নৌকার প্রার্থী হিসেবে দলীয় নেতাকর্মীদের কাছে সহযোগিতা কামনা করছেন। তিনি জানিয়েছেন, সিলেট-৩ সংসদীয় আসন শিল্প এলাকা। এই আসনকে শিল্পে উন্নত করতে চান তিনি। প্রয়াত এমপি মাহমুদ-উস সামাদ চৌধুরীর অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করতে চান। আর নির্বাচিত হলে চলমান ধারাবাহিকতায় তিনি উন্নয়নের জন্য কাজ করবেন বলে জানান।
দক্ষিণ সুরমা বিশেষ বর্ধিত সভা: সিলেট-৩ আসনের নির্বাচন উপলক্ষে দক্ষিণ সুরমায় বিশেষ বর্ধিত সভা করেছে আওয়ামী লীগ। এ সভায় জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট লুৎফুর রহমান বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সিলেট-৩ আসনে উপনির্বাচনে জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য হাবিবুর রহমান হাবিবকে মনোনয়ন দিয়েছেন। আমাদের দায়িত্ব হচ্ছে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মনোনীত প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিবকে নির্বাচিত করা। এজন্য আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের সকল নেতাকর্মীকে ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে হাবিবুর রহমান হাবিবের পক্ষে সমর্থন আদায় করতে হবে। তিনি সুষ্ঠু ও সুন্দর নির্বাচনী পরিবেশ বজায় রেখে আগামী ২৮শে জুলাই ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে আসার সুযোগ করে দিতে দলীয় নেতাকর্মীদের সচেষ্ট থাকার আহ্বান জানান। উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সাইফুল আলমের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট শামীম আহমদের পরিচালনায় সভায় প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নাসির উদ্দীন খান। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সিলেট-৩ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী ও জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য হাবিবুর রহমান হাবিব, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য শফিকুর রহমান চৌধুরী ও সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এডভোকেট নিজাম উদ্দিন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর