× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ৩০ জুলাই ২০২১, শুক্রবার, ১৯ জিলহজ্জ ১৪৪২ হিঃ

নজর দিন প্রধানমন্ত্রী, প্রবাসীরা আপনার সোনার খনি

শেষের পাতা

এম এস সেকিল চৌধুরী
২০ জুন ২০২১, রবিবার

প্রতিবছর বাজেট আসে, বাজেট যায়। কিছুদিন নানামুখী আলোচনা হয় তারপর সব স্বাভাবিক হয়ে যায়। করোনা পরবর্তী পৃথিবী নতুন করে তৈরি হচ্ছে, প্রত্যেকে নিজেদের সম্পদ ও সক্ষমতাকে পুঁজি করে যে যার ঘর গুছিয়ে নিচ্ছে।
প্রায় ১৬ কোটি মানুষের দেশ বাংলাদেশ। কৃষি এদেশের প্রাণ। নিরন্তর কৃষাণ-কৃষাণীরা আর্থ-সামাজিক জীবনে এক অনবদ্য অবদান রেখে চলেছে। কারখানায় শ্রমিক মজুর খাটে, উৎপাদন করে নিত্যপণ্য, দেশের জন্য, বিদেশের জন্য। পণ্য রপ্তানি হয়, দেশ সমৃদ্ধ হয়।
দিন শেষে এই পরিশ্রমী মানুষগুলো ঘরে ফিরে, শান্তির নীড়ে। যেখানে সারাদিন অপেক্ষা করে বৃদ্ধ মা-বাবা, প্রিয়তমা স্ত্রী অথবা সন্তানরা। উদ্যমী মানুষগুলো বলিয়ান হয় নতুন শক্তিতে পরের দিনের জন্য। এই হলো দেশের সংগ্রামী মানুষের রোজনামচা। এই আমাদের বাংলাদেশ।
এ জাতির আরেকটি অংশ, প্রায় এক দশমাংশ বসবাস করে বিদেশে, নিরন্তর সংগ্রাম করে, বেঁচে থাকার সংগ্রাম, প্রতিদিন, প্রতিক্ষণ। এরা প্রবাসী কর্মী। প্রতিবছর এই সাধারণ প্রবাসীরা তাদের অর্জনের সঞ্চয় পাঠায় দেশে,  প্রায় ২১শ’ ২২ বিলিয়ন ইউএস ডলার, নিজেদের জন্য, দেশের জন্য। অর্থনীতিতে বৈদেশিক মুদ্রার সর্ববৃহৎ অবদান  এই রেমিট্যান্স। দিন শেষে এই প্রবাসীরাও ঘরে ফিরে । তবে সেটি পরিবারের সকলকে নিয়ে শান্তির ঠিকানা নয়, মাথাগোঁজার ঠাঁই এবং বেশির ভাগ ক্ষেত্রে অনাত্মীয় ও অসচ্ছল পরিবেশে।
বিদেশে সরকার ও মিশনগুলো প্রবাসীদের ভরসা, সুখ-দুঃখের ঠিকানা। কোনো কোনো ক্ষেত্রে  মিশনের অসাধু ব্যক্তি ও কর্মকর্তারা এদের কষ্ট দেয়, তবু তারা ভালোবাসে দেশকে। দেশে এসেও প্রবাসীরা নানা বিড়ম্বনার শিকার হয়, তবু এরা বার বার দেশেই আসে।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, খেটে খাওয়া মানুষের পাশাপাশি বিশেষ নজর দিন প্রবাসীদের প্রতি, আপনার সোনার খনির প্রতি। এ বছরের বাজেটে অনেক আশা নিয়ে আমরা আপনার কাছে প্রবাসীদের জন্য বেশকিছু প্রস্তাবনা দিয়েছি যার মধ্যে স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘমেয়াদি কিছু গুরুত্বপূর্ণ দাবি রয়েছে ।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, প্রবাসীদের প্রতি আপনার মমতার বিষয়টি আমি জানি, বহুবার আপনার সঙ্গে আলাপকালে তার প্রমাণ পেয়েছি। দেশে-বিদেশে আমলাতন্ত্র, রাজনৈতিক বিভাজন ও সুবিধাবাদী দালালদের হাত থেকে প্রবাসীদের সুরক্ষা দিতে আপনি নজর দিন, নজর দিন আপনার সোনার খনি প্রবাসীদের প্রতি।
(লেখক সেন্টার ফর এনআরবি’র চেয়ারপারসন)

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
এস ও এম কলিম উল্যা
২০ জুন ২০২১, রবিবার, ১১:১০

Very good proposal. M S Sakil chowdhury thanks.

Mijanur Rahman
২০ জুন ২০২১, রবিবার, ৪:৪৯

Thank you so much for remember & thinking about us sir.

md belal ksa
২০ জুন ২০২১, রবিবার, ২:৪০

many many thank,s sir...

Razzak (From, KSA)
২০ জুন ২০২১, রবিবার, ১২:২৪

স্যার আপনাকে অসংঙ্ক্ষ দন্যবাদ

AMIR
২০ জুন ২০২১, রবিবার, ১২:০৬

প্রবাসীরা আপনার সোনার খনি -------কথাটা ফেলে দেবার নয়!

mohammad razon
২০ জুন ২০২১, রবিবার, ১:০৫

স্যার আপনাকে অসংঙ্ক্ষ দন্যবাদ।

অন্যান্য খবর