× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২৯ জুলাই ২০২১, বৃহস্পতিবার, ১৮ জিলহজ্জ ১৪৪২ হিঃ

‘বাসায় রেখে চলবে খালেদা জিয়ার চিকিৎসা’

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার
(১ মাস আগে) জুন ২০, ২০২১, রবিবার, ১২:২০ পূর্বাহ্ন

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে বাসায় রেখে চিকিৎসা দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন তার চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ডের চিকিৎসক ডা. এফ এম সিদ্দিকী। তিনি জানান, তার অবস্থা স্ট্যাবল। তবে তিনি পুরোপুরি সুস্থ নন। তাই তাকে বাসায় রেখে চিকিৎসা চলবে।

শনিবার রাত ৯ টার দিকে খালেদা জিয়ার বাসভবন ফিরোজার সামনে এসব কথা বলেন তিনি।

ডা. এফ এম সিদ্দিকী বলেন, হাসপাতালে খালেদা জিয়া কিছু জীবাণু দিয়ে সংক্রমিত হচ্ছিলেন। আমরা তার রক্ত পরীক্ষা করে  বুঝতে পেরেছি, এই সংক্রমণ হাসপাতালে থেকেই হয়েছে। এই সংক্রমণ তার বর্তমান স্ট্যাবল অবস্থাকে বিনষ্ট করতে পারে।
এই আশঙ্কা থেকে তাকে হাসপাতাল থেকে বাসায় নিয়ে আসার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, আমরা বলছি যে, খালেদা জিয়া স্ট্যাবল৷ মানে হচ্ছে তার যে আসল অসুখগুলো ছিলো, সেটা স্থিতাবস্থায় এসেছে। আমরা বলছি না, তিনি পুরোপুরি সুস্থ হয়ে বাসায় এসেছেন। আমরা বলছি, তার যে হার্ট ও কিডনী জটিলতা, ও লিভারের জটিলতা যেগুলো কোভিডের কারণে ভয়ঙ্কর হয়ে উঠেছিলো, তার উত্তরণ ঘটেছে। কিন্তু সেই অসুস্থতাগুলো এখনও রয়েই গেছে।

ডা. সিদ্দিকী বলেন, তার চিকিৎসায় জন্য যে টেকনোলজি দরকার, এবং যে প্রস্তুতি, প্রক্রিয়া দরকার, এটা আমরা কিন্তু এখনো পরিপূর্ণভাবে করতে পারিনি। যে জন্য একটা রিস্ক থেকেই যাচ্ছে। এখন আমরা প্ল্যান করেছি, তাকে বাসায় রাখবো। কিন্তু এমনও হতে পারে তাকে আগামী দুই বা তিন সপ্তাহ পরে আবার হাসপাতালে নিয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষা করে রিভিউ করার প্রয়োজন হতে পারে।

তিনি আরও বলেন, খালেদা জিয়ার লিভারের যে সমস্যা, সেই জন্য তার যে চিকিৎসা দরকার এবং সেই চিকিৎসা উন্নত টেকনোলজি আমাদের দেশে নেই। তার লিভারের উন্নত চিকিৎসার প্রয়োজন।

এরআগে রাত ৮ টা ৩৫ মিনিটে হাসপাতাল থেকে খালেদা জিয়াকে বাসায় নিয়ে আসা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ভাইস চেয়ারম্যান ডা. জাহিদ হোসেন, বিএনপির চেয়ারপারসনের মিডিয়া ইউংয়ের সদস্য শামসুদ্দিন দিদার, শায়রুল কবির খান।

আর রাত ৮ টার দিকে এভার কেয়ার হাসপাতালে খালেদা জিয়াকে দেখতে যান বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য মোহাম্মদ হারুন, যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল, যুবদলের সভাপতি সাইফুল আলম নীরব।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর