× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ৫ আগস্ট ২০২১, বৃহস্পতিবার , ২১ শ্রাবণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৫ জিলহজ্জ ১৪৪২ হিঃ

গোপালগঞ্জে ৭ জনের শরীরে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত

বাংলারজমিন

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি
২১ জুন ২০২১, সোমবার

গোপালগঞ্জে ৭ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হয়েছে। এদের সকলেই চোরাইপথে ভারতে যাওয়া-আসা করেছেন। এদিকে সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় সদরসহ ৩টি উপজেলার দুটি পৌরসভা ও দুটি ইউনিয়নে সপ্তাহব্যপী লকডাউন ঘোষণা করেছে স্থানীয় প্রশাসন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গোপালগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. সুজাত আহম্মেদ। তিনি বলেন, মানুষ যদি সচেতন না হয় লকডাউন দিয়ে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ হতে গোপালগঞ্জের মানুষকে রক্ষা করা যাবে না। তিনি বলেন, গোপালগঞ্জ জেলার সদর, মুকসুদপুর, কাশিয়ানী, কোটালীপাড়া ও টুঙ্গিপাড়া উপজেলার বৌলতলী, সাতপাড়, ঠুটামান্দ্রা, জলিরপাড়, গান্দিয়াশুর, তেলিভিটা, সিংগা, কালিগঞ্জ, রাধাগঞ্জ, কলাবাড়ী, রামশীল, গোপালপুর, জোয়ারিয়া, পাথরঘাটা, বন্যাবাড়ী, মিত্রডাঙ্গা ও রঘুনাথপুরসহ গোটা গোপালগঞ্জ জেলার বিভিন্ন গ্রামের পাড়া-মহল্লায় বসবাসরত অসংখ্য নারী-পুরুষ গোপালগঞ্জ থেকে চোরাই পথে ভারতে যাচ্ছে এবং ভারত হতে রোগ শরীরে জড়িয়ে চোরাই পথে গোপালগঞ্জ জেলায় প্রবেশ করছে। নিজেরা আক্রান্ত হচ্ছেন অন্যদেরও আক্রান্ত করছেন। গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার বৌলতলী ইউনিয়নের তেলিভিটা গ্রামে এমন ৭ জনের শরীরে করোনার ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট ধরা পড়েছে।
করোনায় আক্রান্ত হয়ে গোপালগঞ্জ জেলায় এ পর্যন্ত মারা গেছেন ৪৩ জন। মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৪ হাজার ২৬৯ জন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর