× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২৮ জুলাই ২০২১, বুধবার, ১৭ জিলহজ্জ ১৪৪২ হিঃ

রায়পুরায় দু’গ্রুপের গোলাগুলি, ককটেল বিস্ফোরণ, টেঁটাযুদ্ধ, গুলিবিদ্ধ ৬

বাংলারজমিন

রায়পুরা (নরসিংদী) প্রতিনিধি
২১ জুন ২০২১, সোমবার

নরসিংদীর রায়পুরার নিলক্ষার বীরগাঁও গ্রামে আলাল মুন্সি ও সোমেদ আলী গ্রুপের মধ্যে ভয়াবহ  টেঁটা ও বন্দুকযুদ্ধ সংঘটিত হয়েছে। গতকাল বেলা ১২টা থেকে  দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত চলা এ ঘটনায় অন্তত ৬ জন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। সংঘর্ষের সময় গোলাগুলি ও ককটেল বিস্ফোরণ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা ও আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। গুলিবিদ্ধ একজন সোনাকান্দি গ্রামের সোমেদ আলী গ্রুপের মদনের ছেলে হাসান আলী (২৪)। অন্যদের পরিচয় জানা যায়নি। এলাকাবাসী জানিয়েছে, পুলিশি ঝামেলা এড়াতে গুলিবিদ্ধ ও টেঁটাবিদ্ধদের অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এলাকাবাসী জানায়, গত শনিবার র‌্যাব-১১ এর সদস্যরা এলাকার লাঠিয়াল সরদার সোমেদ আলীকে আতশ আলীর বাজার থেকে গ্রেপ্তার করেন। একই দিন বিকালে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নুরে আলম শরীফকে পুলিশ আটক করে।
একটি পেন্ডিং মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে কোর্টে চালান দেয় রায়পুরা থানা পুলিশ। নুরে আলম শরীফের আটক করাকে কেন্দ্র করে গতকাল দুপুরে দু’দলের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়। আলাল মুন্সি ও সোমেদ আলী দু’গ্রুপের মধ্যে কয়েক ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষ চলতে থাকে। এ সময় অনেক বাড়িঘর ভাঙচুর, মালামাল লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে। উভয়পক্ষের মধ্যে গুলিবিনিময়, ককটেল বিস্ফোরণ শুরু হলে এলাকায় আতঙ্ক দেখা দেয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর