× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২৬ জুলাই ২০২১, সোমবার, ১৫ জিলহজ্জ ১৪৪২ হিঃ
নির্বাচনী সহিংসতা

বরগুনায় বাড়িতে ঢুকে চেয়ারম্যান প্রার্থীর স্ত্রীসহ ৯ জনকে কুপিয়ে জখম, ঘরে অগ্নিসংযোগ

অনলাইন

বরগুনা প্রতিনিধি
(১ মাস আগে) জুন ২১, ২০২১, সোমবার, ৯:৪০ পূর্বাহ্ন

বরগুনার বেতাগী উপজেলার সরিষামুড়ি ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. ইউসুফ শরীফের বাড়িতে ঢুকে তার স্ত্রীসহ ৯ জনকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে দুর্বৃত্তরা। এসময় ওই বাড়িতে ভাঙচুর চালিয়ে অগ্নিসংযোগ করা হয়। রোববার (২০ জুন) রাত আটটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। সোমবার (২১ জুন) ওই ইউনিয়নসহ বরগুনার ২৯টি ইউনিয়নে ইউপি নির্বাচনের ভোট গ্রহণ চলছে।

আহতদের মধ্যে চেয়ারম্যান প্রার্থী ইউসুফ শরীফের স্ত্রী তাসলিমা আক্তারের (৪৮) নাম জানা যায়। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে বরিশাল শেরই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। এছাড়াও অন্য আহতদের মধ্যে বেশ কয়েকজন নারী রয়েছেন বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।
ইউসুফ শরীফের স্বজনদের অভিযোগ, তার প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ইমাম হাসান শিপনের কর্মী ও সমর্থকরা এ ঘটনা ঘটিয়েছে। যদিও এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন সরিষামুড়ি ইউনিয়নের নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থী ইমাম হাসান শিপন।

তিনি ও তার কর্মী সমর্থকদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ প্রসঙ্গে বলেন, আমার কোনো কর্মী সমর্থক এ ঘটনায় জড়িত নয়।
নির্বাচনের আগ মুহূর্তে আমার বিরুদ্ধে এ ধরনের অভিযোগ সুপরিকল্পিত। আমি চাই পুলিশ সঠিক রহস্য উদঘাটন করুক।

ইউসুফ শরীফের ছেলে হামিম শরীফ বলেন, আমাদের বাড়ির সামনে দিয়ে শতাধিক মোটরসাইকেল নিয়ে মহড়া দিয়ে যাওয়ার সময় আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর কর্মী ও সমর্থকরা অতর্কিতভাবে আমাদের বাড়িতে ঢুকে হামলা ও ভাংচুর চালায়। এরপর বাড়িতে থাকা আমার মাসহ ৯ জনকে কুপিয়ে জখম করে। এরপর তারা আমাদের ঘর ও গোয়ালঘরে অগ্নিসংযোগ করে।

এ ঘটনার খবর পেয়ে বেতাগী থানা পুলিশ আমাদের বাড়িতে পৌঁছে আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য বেতাগী উপজেলা হাসপাতালে প্রেরণ করে আর ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

বেতাগীর ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের কর্মকর্তা মিজান সালেহ বলেন, অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট আধা ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুনে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নিরূপণের চেষ্টা চলছে বলে জানান তিনি।

বেতাগী থানার ওসি সাখাওয়াত হোসেন তপু বলেন, হামলার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহতদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করে পুলিশ। এ ঘটনায় ইতিমধ্যে তদন্ত শুরু হয়েছে। এছাড়াও এ ঘটনায় অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।
এ বিষয়ে বরগুনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর ও বেতাগী সার্কেল) মেহেদী হাসান বলেন, সরিষামুড়ির ঘটনায় খবর পেয়ে বেতাগী থানাপুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার ব্যবস্থা করে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Kazi
২০ জুন ২০২১, রবিবার, ৯:০১

প্রার্থী হওয়া কি অপরাধ । যারা কুপিয়ে জখম করেছে তারা অন্য প্রার্থীর সমর্থক হবে। এসব দেখার দায়িত্ব কার ?

অন্যান্য খবর