× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২৮ জুলাই ২০২১, বুধবার, ১৭ জিলহজ্জ ১৪৪২ হিঃ

মাতৃ সেবায় অনন্য অবদান রাখছে সিলেট মা ও শিশু হাসপাতাল

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, সিলেট থেকে
২৩ জুন ২০২১, বুধবার

শিশু ও মাতৃ সেবায় অনন্য অবদান রাখছে সিলেট মা ও শিশু হাসপাতাল। সার্বক্ষণিক মা ও শিশুর চিকিৎসা সেবা, সময়ের পূর্বে জন্ম নেয়া অত্যন্ত কম ওজনের কিছু ক্ষেত্রে ৮০০ থেকে ৯০০ গ্রামের বাচ্চাকে পরিপূর্ণ পরিচর্যার মাধ্যমে ১.৫ থেকে ২ কেজি ওজনের একটি সুস্থ সবল বাচ্চা উপহার দিয়ে মা, বাবা সর্বোপরি একটি পরিবারকে আনন্দের বন্যায় ভাসিয়ে দিতে অনন্য অবদান রেখে যাচ্ছে সিলেট মা ও শিশু হাসপাতাল। এ হাসপাতালে রয়েছে ২৪ ঘণ্টা নরমাল ডেলিভারি ও প্রয়োজন বোধে সিজারের ব্যবস্থা, গাইনি ও স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ সার্জন সুবিধা, ইমার্জেন্সি সেবা ও অত্যাধুনিক এবং সুসজ্জিত ল্যাব, এম্বুলেন্স সেবা। এ ছাড়া দীর্ঘদিন যাবৎ যে সমস্ত মহিলাদের বাচ্চা হচ্ছে না তাদের জন্য চালু আছে ইনফার্টিলিটি সেন্টার, যার সফলতা এখন বিদ্যমান। বর্তমানে এ হাসপাতালটি সিলেটের মানুষের আস্থার ঠিকানা। গতকাল দুপুরে সিলেট মা ও শিশু হাসপাতালের হল রুমে এক সংবাদ সম্মেলনে এ সকল তথ্য প্রদান করেন হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক অধ্যাপক ডা. মো. তারেক আজাদ। সংবাদ সম্মেলনে তিনি তার বক্তব্যে বলেন, গত ৫ বছরে হাসপাতাল থেকে শত শত রোগী চিকিৎসা নিয়ে হাসি মুখে গেছেন। আর সকল ধরনের রোগীদের কথা বিবেচনা করে আউটডোর, ইনডোরে সব ধরনের চিকিৎসা ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।
হাসপাতালের সেবা নিয়ে সেবা গ্রহীতারা অনেকটা খুশি। তিনি আরও বলেন, সিলেট মা ও শিশু হাসপাতাল যাত্রা শুরু করে ২৩শে এপ্রিল ২০১৬ সালে। শুরু থেকেই গাইনি ও শিশুদের সেবা দিয়ে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। মাত্র ৫ বছরে মানুষের আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে এ প্রতিষ্ঠান। সিলেট বিভাগের মধ্যে বিশেষ করে বাচ্চা রোগীদের জন্য এনআইসিইউ, পিআইসিইউ সেবায় অগ্রণী ভূমিকা রাখছে অত্র প্রতিষ্ঠান। সিলেট বিভাগের সব জেলায় যখন কোনো বাচ্চা রোগীর নিবিড় পর্যবেক্ষণ প্রয়োজন হয়, তখন সবার মনে পড়ে সিলেট মা ও শিশু হাসপাতালের কথা। সার্বক্ষণিক কনসালটেন্ট সুবিধা দিতে পারে কেবল মাত্র সিলেট মা ও শিশু হাসপাতাল। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সিলেট মা ও শিশু হাসপাতালের চেয়ারম্যান ডা. মো. জাকারিয়া হোসাইন, পরিচালক জামাল উদ্দিন চৌধুরী, আব্দুল হাদী পাভেল, ব্যবস্থাপক পারভেজ আহমদ, ব্যবস্থাপক এডমিন মর্শেদুর রহমান, প্রধান হিসাবরক্ষক নাজিম উদ্দিন, সুপারভাইজার বশির আহমদসহ প্রমুখ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
sunon
২২ জুন ২০২১, মঙ্গলবার, ১১:৫৯

তোমাদের লজ্জা সরম নেই ডাকাত এর দল আমি একদিন আমার বাচ্চা নিয়ে ছিলাম কোন ধরনের টেষ্ট ছাড়া ৭০০০ টাকা বিল দিয়ে অনেকটা জোর করে বের হয়ে আসছি গলা কাটা বিল নেয়ে একদিন এ শুধু সার্ভিস ফি নিয়েছে ৩৮০০ টাকা

অন্যান্য খবর