× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ৩১ জুলাই ২০২১, শনিবার, ২০ জিলহজ্জ ১৪৪২ হিঃ

সারাদেশে ১৪ দিনের শাটডাউনের পরামর্শ জাতীয় কমিটির

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার
(১ মাস আগে) জুন ২৪, ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৬:৫৩ অপরাহ্ন

করোনা ভাইরাসের  সম্ভাব্য বিপর্যয় এড়াতে সারাদেশে ১৪ দিনের শাটডাউন দেয়ার পরামর্শ দিয়েছে করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি। কমিটির ৩৮ তম সভা  থেকে এই পরামর্শ দেয়া হয়। বৃহস্পতিবার কমিটির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এতথ্য জানানো হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, দেশে কোভিড-১৯ রোগের বিশেষ ডেল্টা ধরনের সামাজিক সংক্রমণ চিহ্নিত হয়েছে। ইতোমধ্যে এর প্রকোপ অনেক বেড়েছে। এ প্রজাতির জীবাণুর সংক্রমণ ক্ষমতা তুলনামূলকভাবে অনেক বেশি। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য বিশ্লেষণে সারাদেশেই উচ্চ সংক্রমণ, পঞ্চাশোর্ধ্ব জেলায় অতি উচ্চ সংক্রমণ লক্ষ্য করা গেছে। এটি প্রতিরোধ খণ্ড খণ্ডভাবে নেয়া কর্মসূচির উপযোগিতা প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে।
অন্যান্য দেশ, বিশেষত পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতের অভিজ্ঞতা হলো, কঠোর ব্যবস্থা ছাড়া এর বিস্তৃতি প্রতিরোধ করা সম্ভব নয়। ভারতের শীর্ষস্থানীয় বিশেষজ্ঞদের সঙ্গেও এ বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। তাদের মতামত অনুযায়ী, যে সব স্থানে পূর্ণ ‘শাটডাউন’ প্রয়োগ করা হয়েছে সেখানে সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বর্তমান পরিস্থিতিতে রোগের বিস্তার নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাওয়া এবং জনগণের জীবনের ক্ষতি প্রতিরোধের জন্য কমিটি সর্বসম্মতিক্রমে সারাদেশে কমপক্ষে ১৪ দিন সম্পূর্ণ ‘শাটডাউন’ দেয়ার সুপারিশ করছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জরুরি সেবা ছাড়া যানবাহন, অফিস-আদালতসহ সবকিছু বন্ধ রাখা প্রয়োজন। এ ব্যবস্থা কঠোরভাবে পালন করতে না পারলে আমাদের যত প্রস্তুতিই থাকুক না কেন স্বাস্থ্য ব্যবস্থা অপ্রতুল হয়ে পড়বে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, প্রধানমন্ত্রী কোভিড-১৯ এর ভ্যাকসিন সংগ্রহের জন্য সর্বাত্মক উদ্যোগ নিয়েছেন। এজন্য সভায় তাকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা হয়। এ রোগ থেকে পূর্ণ মুক্তির জন্য ৮০ শতাংশের ঊর্ধ্বে মানুষকে ভ্যাকসিন দেয়া প্রয়োজন। বিদেশ থেকে টিকা সংগ্রহ, লাইসেন্সের মাধ্যমে দেশে টিকা উৎপাদন করা এবং নিজস্ব টিকা তৈরির জন্য সরকারি ও বেসরকারি উদ্যোগে গবেষণার জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রচেষ্টার প্রতি কমিটি পূর্ণ সমর্থন জানায়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
জনগন
২৪ জুন ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৮:৪৭

এমপি মন্ত্রীরা সেভ থেকে জনগনকে দাখাতে একটা তথা কথিত ভুয়া লকডাউন দিয়ে দিন।

নাসির
২৪ জুন ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৭:১৫

প্রশাসন কে আরো কঠোর হতে হবে। সরকার যতোই ব্যবস্থা নেয় জনগন ততো ঢিলেঢালা হয়। আমি মনে করি প্রধানমন্ত্রী প্রতিটা জেলার ডিসি ও এসপি কে সরাসরি নির্দেশ দিবেন যেনো প্রশাসন সর্বোচ্চ কড়াকড়ি আরোপ করে। করোনার ভয়াবহতা যে কি তা আমি জানি। নিশ্চয়ই জীবনের চেয়ে জীবিকা বড় নয়।

শহীদ
২৪ জুন ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৭:৪৯

শাটডাউন দেয়ার সাথে সাথে কভিড নিয়ন্ত্রণ! মানুষকে আর্থিকভাবে আর কত ক্ষতিগ্রস্থ করতে চায় এ বিশেষজ্ঞরা। করোনাকালীন তাদের বেতন, ভাতা, সরকারি গাড়ি বন্ধ করে দেয়া হোক। মানুষের অবস্থাটা তাদের বুঝার দরকার আছে। ঋনে পর্যুদস্ত, অভাবের তাড়নায় দিশেহারা না হলে তারা কী বুঝবে? গত শাটডাউনের ধকল সামলাতে কয়েক বছর না যুগও পেরিয়ে যেতে পারে।

ম নাছিরউদ্দীন শাহ
২৪ জুন ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৬:১৩

ভারতথেকে শিক্ষা নিয়েযদি কঠোরভাবেলকডাইন দিতেন বাংলাদেশের এই ভয়াবহ পরিস্থিতি হতোনা এখন দেশের জিলা গুলো যাহা পরিস্থিতি শিক্ষা নিয়ে দেশে কঠোরভাবে লকডাউন দিচ্ছে না। যখনই কিছু করার থাকবেনা তখন লকডাউন কাজ হবে না। চীনের পাশ্ববর্তী উত্তর কোরিয়া সিমান্ত বন্ধ চীনের সাথে বানিজ‍্য ও বন্ধ। উত্তর কোরিয়া করোনা ভাইরাস শূণ্য। সরকার মানুষের জীবন বাচাতে কঠোর সিদ্ধান্তের প্রয়োজন।

অন্যান্য খবর