× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ৩১ জুলাই ২০২১, শনিবার, ২০ জিলহজ্জ ১৪৪২ হিঃ

আখাউড়া চেকপোস্ট দিয়ে আসা ৮ ভারতীয়সহ ৫৪ জনের করোনা শনাক্ত

অনলাইন

আখাউড়া (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি
(১ মাস আগে) জুন ২৫, ২০২১, শুক্রবার, ১:০৭ অপরাহ্ন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া চেকপোস্ট দিয়ে আসা ৮ ভারতীয় সহ মোট ৫৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। বাংলাদেশের বিভিন্ন মেডিকেল কলেজে পড়ুয়া ভারতীয় ৩ শিক্ষার্থী ও ৫ ভারতীয় নাগরিকের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এরা গত ১৪ থেকে ১৬ জুনের মধ্যে আখাউড়া চেকপোস্ট দিয়ে ভারত থেকে বাংলাদেশে এসেছিলেন। এনিয়ে আখাউড়া চেকপোস্ট দিয়ে ভারত থেকে আসা ৫৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এদের বেশির ভাগই ভারতে চিকিৎসা শেষে নিজ দেশে ফিরে আসা বাংলাদেশি নাগরিক।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। সূত্রটি জানায়, আক্রান্তদের মধ্যে ২৪ জনের ২য় বারের নমুনা পরীক্ষার ফল ইতিমধ্যে নেগেটিভ এসেছে। আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ নূর-এ-আলম  জানান, ১২ থেকে ২০ জুনের মধ্যে বাংলাদেশে বিভিন্ন মেডিকেল কলেজে পড়ুয়া ভারতীয় নাগরিক সহ ১৪৩ জন আখাউড়া চেকপোস্ট দিয়ে এসেছেন।
এদের মধ্যে ১৩৭ জনকে ঢাকার ব্র্যাক লার্নিং সেন্টার ও ৬ জনকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে। জানা গেছে, শিক্ষার্থীদের মধ্যে ১৪, ১৫ ও ১৬ জুন আসা ৩ নারী শিক্ষার্থীর নমুনা পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত হয়েছে। এদের প্রত্যেকের নমুনা আখাউড়া চেকপোস্টে সংগ্রহ করা হয়েছিল। আরটিপিসিআর পরীক্ষায় তাদের করোনা শনাক্ত হয়। বাংলাদেশে আসা ভারতীয় শিক্ষার্থীরা ২৯শে জুন এমবিবিএস ফাইনাল পরীক্ষায় অংশ নিবে। ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিন শেষ করে এদের কেউ দুদিন, কেউ পরীক্ষার দিন ছাড়পত্র পাওয়ার কথা। এই অবস্থায় যে ৩ জন শিক্ষার্থী কোভিড টেস্টে পজেটিভ এসেছে তারা ফাইনাল পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবে কিনা এই বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যায়নি। আখাউড়া ইউএনও অফিস সূত্রে জানা যায়, ২৬ এপ্রিল থেকে আখাউড়া চেকপোস্ট দিয়ে ভারতে আটকেপড়া বাংলাদেশী ও বাংলাদেশে আটকে পড়া ভারতীয় যাত্রীদের যাতায়াত শুরু হয়। সেই থেকে ২৩ জুন পর্যন্ত ১ হাজার ৮৯৪ জন যাত্রী বাংলাদেশে ফিরেছেন। এদের মধ্যে বাংলাদেশ ও ভারত উভয় দেশের নাগরিক রয়েছেন।  মঙ্গলবার পর্যন্ত এদের মধ্যে ১ হাজার ৪৩৫ জন ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন শেষে ছাড়পত্র নিয়ে বাড়ী ফিরেছেন ।
বাংলাদেশের বিভিন্ন মেডিকেল কলেজে অধ্যয়নরত ৩ ভারতীয় শিক্ষার্থীসহ আট জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হওয়ার বিষয়টি জেলা সিভিল সার্জন মোহাম্মদ একরাম উল্লাহ নিশ্চিত করেছেন ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Shahab
২৫ জুন ২০২১, শুক্রবার, ৮:৪৯

No problem we are husband and wife.

মোস্তফা সুলতান
২৫ জুন ২০২১, শুক্রবার, ২:১৭

এভাবে আসা যাওয়া চলতে থাকলে করোনা পরিস্থিতি কঠিন ধারন করবে, তার দায়ভার কে নেবে?

monjur
২৫ জুন ২০২১, শুক্রবার, ১:৫৬

ভারত থেকে আসা যাওয়া পোর্ট ১ মাস কঠিন ভাবে বন্ধ না করা পৰ্যন্ত করোনা ভাইরাস ঠেকানো যাবে না।

অন্যান্য খবর