× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, সোমবার , ৫ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১১ সফর ১৪৪৩ হিঃ

এক মাসে ২ কোটি ডোজ টিকা পাচ্ছে বাংলাদেশ

শেষের পাতা

কূটনৈতিক রিপোর্টার
১৯ জুলাই ২০২১, সোমবার

টিকা সরবরাহের বৈশ্বিক জোট কোভ্যাক্সের মাধ্যমে অনুদান হিসেবে সিনোফার্মের অর্ধকোটি ডোজ টিকা পাওয়ার আশা করছে বাংলাদেশ। চীন এরই মধ্যে কোভ্যাক্সকে অনুদান হিসেবে ১০ কোটি ডোজ টিকা দিয়েছে। যা বাংলাদেশসহ টিকা নিয়ে দুশ্চিন্তায় থাকা দেশগুলোর মধ্যে বণ্টন হবে। ঢাকার কূটনৈতিক সূত্র বলছে, কেনার পাশাপাশি অনুদান হিসেবে বাংলাদেশ বেশ কিছু টিকা পাচ্ছে। আগামী সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহের মধ্যে বিভিন্ন উৎস থেকে বাংলাদেশ প্রায় দুই কোটি ডোজের বেশি টিকা পাচ্ছে। ওই হিসাবে ২০ লাখ টিকা কাল এসেছে চীন থেকে। আর আজ আসছে কোভ্যাক্সের মাধ্যমে উপহার হিসেবে প্রদেয় যুক্তরাষ্ট্রে মডার্নার তৈরি ৩০ লাখ টিকা। সংশ্লিষ্টরা আশা করছে টিকা সরবরাহের ওই ফ্লো অব্যাহত থাকলে দেশব্যাপী চলমান টিকাদান কর্মসূচি আর বিঘ্নিত হবে না।
জেনেভার বাংলাদেশ মিশন রোববার সন্ধ্যায় মানবজমিনকে জানিয়েছে, এক মাসের মধ্যে কোভ্যাক্সের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্র  থেকে উপহার পাওয়া ৩০ লাখ টিকাসহ মোট ১ কোটি ২৯ লাখ টিকা ঢাকায় পৌঁছাবে। যার মধ্যে রয়েছে জাপানের ২৯ লাখ অ্যাস্ট্রাজেনেকা, ইউরোপের বিভিন্ন দেশ থেকে কোভ্যাক্সের নিজস্ব তহবিল ব্যয়ে সংগ্রহ করা ৬০ লাখ ফাইজার-বায়োএনটেক এবং ১০ লাখ অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা। এর বাইরে সিনোফার্মের ৫০ লাখ টিকা অনুদান হিসেবে পাওয়া ছাড়াও কোভ্যাক্স প্রতিশ্রুত ৬ কোটি ডোজ টিকার আনুপাতিক অংশ আদায়ের চেষ্টায় বাংলাদেশ রয়েছে বলে জানানো হয়েছে। উল্লেখ্য, চীন থেকে কেনা দেড় কোটি ডোজ টিকার মধ্যে আগামী এক মাসের মধ্যে ৪০ থেকে ৫০ লাখ টিকা ঢাকায় পৌঁছাবে বলে আশা করা হচ্ছে। এরমধ্যে চীন বাণিজ্যিক চুক্তির আওতায় দুই দফায় ৪০ লাখ ডোজ টিকা পাঠিয়েছে। তাছাড়া উপহার হিসেবে তারা দিয়েছে ১১ লাখ ডোজ। প্রতিবেশী ভারতে করোনা পরিস্থিতির উন্নতি এবং টিকা উৎপাদন প্রক্রিয়ায় গতি ফিরছে। ঢাকাস্থ ভারতীয় হাইকমিশন রোববারও বলেছে- ভারতে টিকা উৎপাদন বাড়লেই বাংলাদেশ টিকা পাবে। দেশটির কাছ থেকে কেনা দেড় কোটি টিকার ৭০ লাখ ডোজ পেয়েছে বাংলাদেশ। তাছাড়া বন্ধুত্বের উপহার হিসেবে মিলেছে আরও ৩৩ লাখ ডোজ টিকা। করোনা পরিস্থিতির অবনতিতে ভারত টিকা রপ্তানি বর্তমানে বন্ধ রেখেছে। সেগুনবাগিচা বলছে, ভারতের টিকা রপ্তানি বন্ধের সিদ্ধান্তে চীনের পাশাপাশি রাশিয়া থেকেও ৫০ লাখ ডোজ টিকা কেনার চেষ্টায় রয়েছে ঢাকা। এ মাসেই দেশটির সঙ্গে চুক্তি হবে। যদিও রাশিয়ার টিকা স্পুটনিক ভি এখনো বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদন পায়নি। তবে জেনেভা মিশন জানিয়েছে, চলতি মাসে মস্কোর টিকা অনুমোদন পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সেটি হলে রপ্তানিতে কোনো বাধা থাকবে না।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
H Imam uddin
১৮ জুলাই ২০২১, রবিবার, ৪:৪০

সবিনয়ে জানতে চাই,যারা অক্সফোর্ড বা ভারতিয় ভ্যাক্সিন বিদেশ যাওয়ার জন্য ১ম ডোজ দিয়েছিল,কিন্তু ষ্টক শেষ হয়ে যাওয়ার কারনে দ্বিতীয় ডোজ দিতে পারেনি,তাদের এখন করনিয় কি ? আশা করি মানবজমিন পত্রিকার সম্পাদক মহুদয় এই সম্পর্কে সঠিক খবর জেনে আমাদেরকে অবগত করবেন।

Obak
১৮ জুলাই ২০২১, রবিবার, ১:৩৭

ভারত থেকে ৩ কোটি ডোজ টকা কেনার কথা শুনলাম গত ৬ মাস আজ শুনছি দেড় কোটি ডোজ কারণ কি ??

অন্যান্য খবর