× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, বুধবার , ১৪ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০ সফর ১৪৪৩ হিঃ
কলকাতা কথকতা

ভারতের প্রথম মহিলা চিকিৎসকের হেরিটেজ বাড়ির একাংশে শপিং মল, অন্য অংশ ভেঙে পড়ছে

কলকাতা কথকতা

জয়ন্ত চক্রবর্তী, কলকাতা
(২ মাস আগে) জুলাই ১৯, ২০২১, সোমবার, ১২:০৭ অপরাহ্ন

তিনি ছিলেন ভারতের প্রথম মহিলা চিকিৎসক। শুধু তাই নয়, মেডিকেল কলেজে মেয়েরা পড়তে পারবে না- এই ফতোয়ার বিরুদ্ধে বিদ্রোহীনি হয়ে তিনি প্রথম মেডিকেল কলেজে ভর্তি হয়ে স্নাতক হন। পরে বৃটেন থেকে চিকিৎসা বিজ্ঞানে উচ্চতর পাঠ নিয়ে প্রাকটিস শুরু করেন। তিনি কাদম্বিনী গঙ্গোপাধ্যায়। যাঁকে নিয়ে দুটি বাংলা সিরিয়াল হইচই ফেলে দিয়েছে। সেই কাদম্বিনী গাঙ্গুলির ১৩ নম্বর বিধান সরণির বাড়িটি অবহেলায়, অনাদরে আজ পড়ে রয়েছে। রোববার ছিল কাদম্বিনী গাঙ্গুলির ১৬০তম জন্মদিন। এই দিন তার এবং তার প্রেরণা স্বামী দ্বারকানাথ গঙ্গোপাধ্যায় এর বাড়িটি ঘুরে দেখলো মানবজমিন।
১৯৯৭ সালে হেরিটেজ এর তকমা পাওয়া বাড়িটির উত্তর দিকে চলছে একটি মল। দক্ষিণ দিকটি জরাজীর্ণ। যে কোনোদিন ভেঙে পড়তে পারে। বাড়িটির ইতিহাস অনুসন্ধান করতে দেখা গেল ব্যারিস্টার গোবিন্দ গুপ্ত বাড়িটি বিক্রি করে দেন উত্তর কলকাতার সম্পন্ন ব্যাবসায়ী লাহাদের কাছে। লাহারা এই বাড়িটি দেন সাধারণ ব্রাহ্ম সমাজকে। এই সাধারণ ব্রাহ্ম সমাজের কর্তা ব্রজকিশোর বসু এই বাড়িতে বসবাস করতেন। তারই মেয়ে কাদম্বিনী বসু। বেথুন স্কুলে পড়ার জন্যে এই বাড়িতে বাস করার সময়ই তার প্ৰেম দ্বারকানাথ গঙ্গোপাধ্যায় এর সঙ্গে। পরে বিবাহ। সত্যজিৎ রায় এর ঠাকুরদা দ্বারকানাথ-কাদম্বিনীর জামাতা উপেন্দ্র কিশোর রায়চৌধুরি কিছুদিন এই বাড়িতে বাসও করেছেন। কাদম্বিনী গাঙ্গুলির স্মৃতি বিজড়িত বাড়িটি যেন উপেক্ষার আঁধারে। কে বলতে পারে কোনো প্রোমোটারের থাবা উঁচিয়ে আছে কিনা?

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর