× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, বুধবার , ১৪ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০ সফর ১৪৪৩ হিঃ

নোয়াখালীতে ছবি তোলাকে কেন্দ্র করে গুলিবিদ্ধ ৩

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার নোয়াখালী থেকে
২৪ জুলাই ২০২১, শনিবার

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে দুই কিশোরীর (১৫) ছবি তোলাকে কেন্দ্র করে ৩ জন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। এ ঘটনায় অন্তত আরও ৩ জন আহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে উপজেলায় গোপালপুর ইউনিয়নের পূর্ব মধুপুর গ্রামের চুঙ্গার পোল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। গুলিবিদ্ধরা হলো- উপজেলার গোলাপুর ইউনিয়নের মির্জানগর গ্রামের মৃত কালা মিয়ার ছেলে মো. বেচু মিয়া (৫০) ও তার ছেলে মো. নুর নবী (১১) মধুপুর গ্রামের আব্দুর রবের ছেলে মো. হাসান (২৬)। আহতরা হলো- একই গ্রামের আবুল খায়েরের ছেলে আবুল হোসেন (৪১), আবুল খায়েরের ছেলে আবুল হোসেন (৪১) মধুপুর গ্রামের জসিম উদ্দিনের ছেলে মো. আলাউদ্দিন (৪০)। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ঈদুল আজহা উপলক্ষে উপজেলার গোপালপুর ইউনিয়নের পূর্ব মধুপুর গ্রামের কিশোরী সামলা ও শান্তা সাজগোজ করে বাড়ির পাশে ঘুরতে বাহির হয়। এ সময় একই ওয়ার্ডের পশ্চিম মধুপুর গ্রামের কয়েকজন বখাটে ছেলে তাদের মুঠোফোনে দুই কিশোরীর সঙ্গে ছবি তোলার চেষ্টা করে। বিষয়টি পূর্ব মধুপুরের কয়েকজন ছেলের নজরে পড়লে তারা পশ্চিম মধুপরের ছেলেদের ছবি তুলতে বারণ করে।
এ সময় দুই পক্ষের মধ্যে বাকবিতণ্ডা শুরু হয়। পরে ইভটিজিংয়ের শিকার কিশোরীরা বিষয়টি বাড়িতে গিয়ে তাদের স্বজনদের অবহিত করলে তারা এসেও অভিযুক্ত ছেলেদের শাসিয়ে যায়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ওইদিন সন্ধ্যায় পশ্চিম মধুপুরের বখাটে অস্ত্রধারী কালু, বিজয়, শাকিল, বাহারের নেতৃত্বে ১৫-২০ জন দলবেঁধে পূর্ব মধুপুর গ্রামে এসে এলাকাবাসীর ওপর এলোপাতাড়ি গুলি ছোড়ে। এতে ২ পথচারীসহ ৩ জন গুলিবিদ্ধ হয়। পরে এলাকাবাসী আহতদের উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। বেগমগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. রুহুল আমিন বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। গুলিবিদ্ধ ৩ জন নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। পরবর্তীতে এ ঘটনায় আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর