× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, মঙ্গলবার , ১৩ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৯ সফর ১৪৪৩ হিঃ

মাসে ১ কোটি ভ্যাকসিন দেয়ার পরিকল্পনা হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার
(২ মাস আগে) জুলাই ২৫, ২০২১, রবিবার, ৪:২৬ অপরাহ্ন

দেশে প্রতি মাসে ১ কোটি লোককে করোনাভাইরাস প্রতিরোধী ভ্যাকসিন দেয়ার পরিকল্পনা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক। তিনি বলেন, আমাদের ৮ কোটি ভ্যাকসিন রাখার সক্ষমতা আছে। আগামী দিনে প্রতিমাসে ১ কোটি লোককে ভ্যাকসিন দেয়ার পরিকল্পনায় কাজ করছি।
আজ রোববার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) কনভেনশন সেন্টারে নির্মাণাধীন ফিল্ড হাসপাতাল পরিদর্শনে গিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা বলেন তিনি।


জাহিদ মালেক বলেন, যেভাবে রোগী বাড়ছে হাসপাতালের বেড সংকট দেখা দিতে পারে। ইতিমধ্যে ৮০ শতাংশ বেড রোগীতে ভর্তি হয়ে গেছে। এই ফিল্ড হাসপাতালের কার্যক্রম আগামী সাতদিনের মধ্যে চালু করতে পারবে। ভিসির সঙ্গে কথা বলেছি, আশা করছি আগামী শনিবার থেকে আমরা রোগী ভর্তি করতে পারবো।

ভ্যাকসিনের ব্যবস্থাপনা নিয়ে আজই স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়ে উল্লেখ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আমরা যাচাই করেছি আগামী দিনগুলোতে কোন দেশ থেকে কতো ভ্যাকসিন পাবো। সবমিলিয়ে আমাদের হিসাবে ২১ কোটির মতো ভ্যাকসিনের ব্যবস্থা করা আছে। এই ২১ কোটি ভ্যাকসিন দেয়ার ব্যবস্থা, রাখার ব্যবস্থা এবং জনবলের যে ব্যবস্থা সেই পরিকল্পনা আমরা করেছি।
দেশে সবমিলিয়ে ৮ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন সংরক্ষণের সক্ষমতা রয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, তাপমাত্রা সেনসিটিভ ভ্যাকসিনও প্রায় ৩০ লাখ সংরক্ষণের ব্যবস্থা আছে।
আরও কিছু ফ্রিজের অর্ডার করা হয়েছে। সেগুলো আসলে এই তাপমাত্রা সেনসেটিভ ভ্যাকসিন সংরক্ষণের ব্যবস্থাও সবমিলিয়ে কোটির কাছে চলে যাবে। আমাদের প্ল্যান হচ্ছে প্রত্যেক মাসে ১ কোটি মানুষকে ভ্যাকসিন দেয়া।

এসময় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা, আবুল বাসার মোহাম্মদুরশিদ আলম, বিএসএমএমইউ’র ভিসি অধ্যাপক ডা. শরফুদ্দিন আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।
 

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Kazi
২৫ জুলাই ২০২১, রবিবার, ৫:০৬

মাসে এক কোটি টিকা দিলে আটারো কোটি লোককে দুইটি করে টিকা দিতে তিন বছর লাগবে । এটা দীর্ঘ সময়। যেহেতু বাংলাদেশের লোক সংখ্যা বেশি জনবল ও বেশি পাওয়া যাবে । তাই যদি টিকার আমদানি প্রচুর থাকে তবে মাসে দেড় কোটি টিকার টার্গেট করতে হবে যাতে আয়ুষ্কাল সবাইকে টিকার আওতায় আনা যায়। ১৮ কোটি x 2 = ৩৬ কোটি ।

অন্যান্য খবর