× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, মঙ্গলবার , ১৩ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৯ সফর ১৪৪৩ হিঃ

ভিকারুননিসার অধ্যক্ষের ফোনালাপ ফাঁস, তোলপাড় (অডিও)

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার
(২ মাস আগে) জুলাই ২৬, ২০২১, সোমবার, ৭:৫২ অপরাহ্ন

ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ কামরুন নাহার ও অভিভাভবক ফোরামের নেতা মীর সাহাবুদ্দিন টিপুর মধ্যকার একটি ফোনালাপ ফাঁস হয়েছে। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নানা আলোচনা সমালোচনা হচ্ছে।

এতে দেখা যায় প্রিন্সিপাল এক পর্যায়ে বলেন, আমি বালিশের নিচে পিস্তল রাখি। কোনো ... বাচ্চা যদি আমার পেছনে লাগে আমি কিন্তু ওর পেছনে লাগব, আমি শুধু ভিকারুননিসা না আমি তাকে দেশছাড়া করব।

এতে আরো বলতে শোনা যায়, কোন ... পোলার কী যায় আসে? আমি রাজনীতি করা মেয়ে আমি কিন্তু ভদ্র না।

আর কোনো ... বাচ্চা তদন্ত কমিটি করলে আমি কিন্তু দা দিয়ে কোপাবো তারে সোজা কথা। আমার ... আছে।

আমার বাহিনী আছে। আমার ছাত্রলীগ আছে, যুবলীগ আছে, আমার যুব মহিলা লীগ আছে।
কিচ্ছু লাগবে না।
কাপড় খুইলা রাস্তার মধ্যে পিটাব।

ফাঁস হওয়া ওই ফোনালাপের অডিওটি ভিত্তিহীন ও সুপার এডিট করা বলে মন্তব্য করেছেন কলেজের প্রিন্সিপাল কামরুন নাহার। তিনি বলেন, ওরা অভিভাবক ফোরাম চায় আমি কিছু আসন ফাঁকা রাখি যাতে তারা ভর্তি বাণিজ্য করতে পারে। আমি বলেছি শিক্ষামন্ত্রী আমাকে এখানে থাকতে বলেছেন। এ প্রতিষ্ঠানকে ঠিক করার দায়িত্ব আমাকে দিয়েছেন। আমি যদি এদের কথায় ভর্তি বাণিজ্যের অনিয়ম করে বেড়াই মন্ত্রীর কাছে আমি তখন কি জবাব দেবো। আমার ইতিহাসে অন্যায়ের কোন দাগ নেই। এর আগের কোন প্রিন্সিপাল এখানে কেন থাকতে পারেনি এখন বুঝতে পেরেছি।

ফোনালাপটি ফাঁস হওয়ার পর শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মাঝে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। একজন কলেজ অধ্যক্ষ এমন ভাষায় কথা বলতে পারেন কিনা এ নিয়ে প্রশ্ন রেখে অনেকে তার অপসারণ দাবি করছেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Md. Saidur Rahman Mo
২৭ জুলাই ২০২১, মঙ্গলবার, ৬:৪০

Thanks. You deserved this position by such type of behavior. Go on this way. You may be the education minister in future.

AMIR
২৭ জুলাই ২০২১, মঙ্গলবার, ১০:২৯

একজন কলেজ অধ্যক্ষ এমন ভাষায় কথা বলতে পারেন কিনা------সকল প্রাণীই জন্মলগ্নে প্রাণী থাকে। পরিবার, পারিপার্শ্বিক অবস্থা,মগজের বৈজ্ঞানিক নরম প্রতিপালন, পূর্ববর্তীজনদের কাছ থেকে অর্জীত জ্ঞান ইত্যাদী দ্বারা কেউ পরবর্তী সময়ে জ্ঞানী প্রানী(বিশেষ করে মানবকুলে জন্ম নেওয়া গন) হয়; আবার কেউ প্রাণীই(আকৃতি বাদে) থেকে যায!

মোর্শেদ
২৬ জুলাই ২০২১, সোমবার, ৪:৩৫

এদেরকে জেনে শুনেই এমন পদে বসানো হয়েছে। সব খাত তো ধ্বংস করা শেষ। এবার শিক্ষাখাতটাকে ধ্বংস করার পালা

Zahir uddin
২৬ জুলাই ২০২১, সোমবার, ১২:১৭

আরে আপা পিস্তল বালিশের নিচে রাখেন কেন ?আপনি কি জানেন না সব ভাইস চ্যান্সেলর এবং প্রিন্সিপল স্যার পিস্তল সবসময় কোমরে গুজে রাখে কারণ বাথরুমে গেলে যদি কেউ আক্রমণ করে বসে । আপনার জন্য সত্যি আমার মায়া হয় কারণ ভিকারুন্নেসা স্কুলের মত একটা প্রতিষ্ঠানর প্রিন্সিপালের কথাবার্তা এবং আচার আচরণ কি ধরনের হয় আপনি সেটাও জানেন না কিন্তু আপনার একটা বিশেষ পরিচয়ের কারণে ভিকারুন্নেসার মত একটা প্রতিষ্ঠানর জলসর্বোচ্চ চেয়ারে বসিয়ে দিয়েছে। আমার মনে হয় আমাদের দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানর একই অবস্থা। আল্লাহ আমাদের দেশটাকে রক্ষা করুন।

আব্দুল জব্বার
২৬ জুলাই ২০২১, সোমবার, ১২:১৬

হায় হায় বলে কি! এটা প্রিন্সিপাল! তাও ভিকারুননিসার! আফসোস এধরণের ব্যক্তিত্বসম্পন্ন শিক্ষকেরাই ভিকারুননিসা স্কুল কলেজের প্রিন্সিপাল হওয়ার জন্য উপযুক্ত বিবেচিত হয়েছেন ৷ করোনার জন্য দেশের স্কুল-কলেজ প্রায় ২ বছর ধরে বন্ধ।। ছাত্রছাত্রীরা শিক্ষা থেকে একপ্রকার দুরেই অবস্থান করছে।। তখন দেশের সেরা একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানের মুখ থেকে যদি এহেন নিম্নমান ও কুরুচিপূর্ণ আওয়াজ বের হয় তাহলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখাই যুক্তিযুক্ত।। ছেলেমেয়েরা মুর্খ থাকলেও অন্ততপক্ষে গালিগালাজ আর সন্ত্রাসী ভাবাপন্ন হবেনা৷ সত্যিই দুঃখজনক!

মোঃ শাহজাহান
২৬ জুলাই ২০২১, সোমবার, ১১:৪৯

দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে অদক্ষ ও অযোগ্য ভিসি নিয়োগ দিয়ে শিক্ষা ব্যবস্থা ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে। খ্যাতিমান প্রতিষ্ঠান সমূহ ও একই দিকে ই যাচ্ছে।

অনামিকা
২৬ জুলাই ২০২১, সোমবার, ১১:৩০

দলীয় নিয়োগ, মাস্তানি করাই এদের যোগ্যতা ।

এ,টি,এম,তোহা
২৬ জুলাই ২০২১, সোমবার, ১০:৪৫

উনি নিজেই যখন বলেছেন পিস্তল তাঁর বালিশের নিচে থাকতো। এখন স্বাভাবিক ভাবেই মানুষ বলতে শুরু করেছে তিনি আসলেই পিস্তলে আসক্ত। একজন শিক্ষক, একজন নারী, একজন মা, একজন বধু, একজন শিক্ষিত মানুষের এমন অশ্লীল বাক্য শয়তানকেও হার মানায়। নারীদের মত সম্মান, সৌন্দর্য, মানবিক মানুষ পুরুষ নয়-তবে নারী যখন অশ্লীল হয়ে যায় তখন সে পৃথিবীর সর্ব নিকৃষ্ট প্রানিতে পরিনত হয়।

মোঃ জহিরুল ইসলাম
২৬ জুলাই ২০২১, সোমবার, ১০:১৫

শিক্ষক হলেন মানুষ গড়ার কারিগর। কথোপকথনে উনি যে ভাষা ব্যবহার করেছেন, তাহা কোনো অভদ্র সমাজেও দেখা যায় না। অবিলম্বে উনাকে শিক্ষকতার পেশা থেকে অপসারণ ও তদন্ত কমিটি গঠন করে স্থায়ীভাবে চাকরি থেকে অব্যহতি দেওয়া হউক।

Md.Abdullah Chowdhur
২৬ জুলাই ২০২১, সোমবার, ৯:২৩

আমার বুঝে আসেনা, এই রকম অশ্লীল ভাষায় কথা বলে, এমন একজন সন্ত্রাসী মহিলা, ভিকারুননিসা স্কুলের মত একটা প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ হয় কি করে? মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এবং শিক্ষা মন্ত্রীর কাছে অনুরোধ রইলো, একটু নেক নজরে তাকান ভিকারুননিসা স্কুলের দিকে।আরে সব মহিলারা আপনাদের দলের সুনাম কতটুকু বাড়াচ্ছে একবার ভেবে দেখার অনুরোধ রইলো।।।

Rubel Chowdhury
২৬ জুলাই ২০২১, সোমবার, ৯:০৪

She didn't deserve any education section, wrong person at right place!! She pride herself with this nasty personality!!

মাছুম
২৬ জুলাই ২০২১, সোমবার, ৯:৪২

পেগাসাস তোদের কে ও ছাড়ছে না । এবার দেখ কেমন লাগে ।

hasan
২৬ জুলাই ২০২১, সোমবার, ৮:৩৮

দেশের অনেকগুলা মানুষ একশাথে পিশাচে পরিণত হয়ে গেসে। ভবিষ্যৎ অনেক অন্ধকার এই দেশের। গ্যারান্টি দিয়া বলে দিলাম।

Mahmud
২৬ জুলাই ২০২১, সোমবার, ৭:৩৭

একজন প্রিন্সিপাল কঠোর হবেন এটাই প্রত্যাশিত ।‌‌ কিন্তু তিনি অশ্লীল , অভদ্র বা মাস্তানির ভাষায় কথা বলবেন এটা কখনোই কাম্য হতে পারে না। উনার কথাতেই বুঝা যায় উনি অন্য কোন যোগ্যতায় এই পদে আসীন হয়েছেন।‌‌ অযোগ্যদের নিয়োগ দিয়ে শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠানগুলোকে ধ্বঙস করার মে মিছিল শুরু হয়েছে তার শেষ কোথায় আমরা কেউই জানি না ।

Shahab
২৬ জুলাই ২০২১, সোমবার, ৭:৩৪

This is Bangladesh everything possible, her also have signe board. Have a great future of the nation.

Fuad
২৬ জুলাই ২০২১, সোমবার, ৭:৩৩

রাজনীতি সব নষ্ট কিছু কে ভালো jaigai বসিয়ে সব নষ্ট করছে.

Anisur rahman
২৬ জুলাই ২০২১, সোমবার, ৭:২৫

Now a days we are watching so many unwanted incidents in our educational institutions. I don't want to know who is responsible for selecting this type of person as principal. Just I would like to say the principal should be removed from the post as early as possible. Please don't finish our institutions by political appointments. Allready done so many things. We can't blame our students if they want to integrate something into the school bags, like the principal. Enough is enough.

Russel
২৬ জুলাই ২০২১, সোমবার, ৭:৫৬

ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অভিভাবক ফোরাম নির্বাচনে লক্ষ লক্ষ টাকা খরচ করে যারা নির্বাচিত হন তারা কি বেতন ভাতা পান ? কি সুবিধা পান যার জন্য এম পি নির্বাচনের মতো খরচ করেন? শিক্ষক অভিবাবক নেতা সব দুষ্ট।

অন্যান্য খবর