× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, মঙ্গলবার , ৬ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১২ সফর ১৪৪৩ হিঃ

নারায়ণগঞ্জে স্বামীকে জামিন করাতে গিয়ে দুই দফা ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ থেকে
২৮ জুলাই ২০২১, বুধবার

মাদকের মামলায় নারায়ণগঞ্জ কারাগারে বন্দি স্বামীকে জামিনে মুক্ত করতে টেকনাফ থেকে নারায়ণগঞ্জ এসে দুই দফায় ধর্ষণের শিকার হয়েছে এক গৃহবধূ (৪০)। এ ঘটনায় ধর্ষিতা গৃহবধূ বাদী হয়ে গতকাল দুপুরে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছেন। মামলায় জামালপুর জেলার ইসলামপুর থানার অমপুরের মো. লেবু মিয়ার পুত্র, ফতুল্লা থানার ইসদাইরস্থ আইডিয়াল স্কুল সংলগ্ন আলামিনের বাড়ির চতুর্থ তলার ভাড়াটিয়া মো. ফিরোজ মিয়া (২৮)কে আসামি করা হয়েছে। মামলা সূত্রে জানা গেছে, ভুক্তভোগী গৃহবধূর স্বামী মাদক মামলায় নারায়ণগঞ্জ জেলা কারাগারে আটক রয়েছে। স্বামীকে জামিনে মুক্ত করার কথা বলে ফিরোজ মিয়া ১৫ই জুলাই ওই গৃহবধূকে নারায়ণগঞ্জ আসতে বলেন। পরে সেইদিনই টেকনাফ থেকে নারায়ণগঞ্জে আসে ওই গৃহবধূ। পরে ফিরোজ মিয়া তাকে তার ভাড়া বাসায় থাকার জন্য প্রস্তাব দিলে সে রাজি হয়। সেখানে ওই গৃহবধূর স্বামীকে কারাগার থেকে মুক্ত করার কথা বলে ৫৫ হাজার টাকা নেয় ফিরোজ।
পরে ২০শে জুলাই দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে ফিরোজ মিয়া ঘুমন্ত অবস্থায় গৃহবধূকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরবর্তীতে ২৬শে জুলাই সকাল ১০টার দিকে স্বামীর সঙ্গে দেখা করিয়ে দেয়ার কথা বলে গৃহবধূকে অজ্ঞাত একটি স্থানে নিয়ে হত্যার হুমকি দিয়ে ফিরোজ মিয়া জোরপূর্বক দ্বিতীয় দফায় ধর্ষণ করে। ধর্ষণ শেষে গৃহবধূকে রিকশায় করে শহরের চাষাঢ়া বাসস্ট্যান্ড এলাকায় পাঠিয়ে দেয়। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ফতুল্লা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক রউফ জানান, অভিযুক্ত ধর্ষককে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। নির্যাতিত গৃহবধূকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর