× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, সোমবার , ৪ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১১ সফর ১৪৪৩ হিঃ

টেন্ডারে আয়রন ব্রিজ নির্মিত হলো সুপারি গাছ দিয়ে

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল থেকে
২৮ জুলাই ২০২১, বুধবার

টেন্ডার হলো লাখ টাকার আয়রন ব্রিজের। হাজার টাকা খরচ করে সেই ব্রিজ নির্মিত হল সুপারি গাছ দিয়ে। আয়রন ব্রিজের স্থলে সুপারি গাছ দিয়ে তৈরি করা ব্রিজের জন্য লাখ টাকা উত্তোলন করে নিয়ে গেলেন ঠিকাদার। বরিশালের বানারীপাড়ার উদয়কাঠিতে এ ঘটনা ঘটে। জানা যায়, বরিশাল জেলা পরিষদ থেকে ২০১৭-১৮ অর্থবছরে বানারীপাড়ার উদয়কাঠি ইউনিয়নের পূর্ব উদয়কাঠি মুন্সী বাড়ির সামনে একটি আয়রন ব্রিজ নির্মাণের জন্য লাখ টাকার বরাদ্দ দেয়া হয়। কিন্তু সেটি সুপারি গাছ দিয়ে তৈরি করা হয়। তিন বছরেও এ বিষয়ে কেউ মুখ খোলেননি। দেখা গেছে, বাঁশ ও সুপারি গাছের সাঁকো সংস্কার করে ৪টি লোহার বিমের ওপর তিনটি সুপারি গাছ দিয়ে সাঁকো নির্মাণ করা হয়েছে।
সেখানে থাকা নামফলকে উদয়কাঠির মুন্সী বাড়ির সামনে ২০১৭-১৮ অর্থবছরে এক লাখ টাকা প্রাক্কলিত ব্যয়ে আয়রন ব্রিজ নির্মাণ কাজ বাস্তবায়ন ও অর্থায়নে জেলা পরিষদ লেখা রয়েছে। এ প্রসঙ্গে উদয়কাঠি ইউনিয়নের সন্তান বরিশাল জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান ও বানারীপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মাওলাদ হোসেন সানা বলেন, এলাকাবাসীর দাবির প্রেক্ষিতে পূর্ব উদয়কাঠি গ্রামের মুন্সী বাড়ির সামনের খালে আয়রন ব্রিজ নির্মাণের জন্য জেলা পরিষদ থেকে আমি এক লাখ টাকা বরাদ্দ দেই। জেলা পরিষদে প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি দিয়ে ব্রিজ ও রাস্তা নির্মাণ করার বিধান না থাকায় টেন্ডার প্রক্রিয়ায় লটারির মাধ্যমে একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ওই কাজটি পায়। ঠিকাদার লোহার ব্রিজ নির্মাণ না করার বিষয়টি জেলা পরিষদের তৎকালীন প্রকৌশলী গোলাম মোস্তফাকে জানিয়ে সরজমিন পরির্দশনের কথা বলেছিলাম। লকডাউন শেষে অফিস খোলার পরে ঠিকাদারকে খুঁজে বের করে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। বরিশাল জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহীর অতিরিক্ত দায়িত্বে থাকা স্থানীয় সরকার উপ-সচিব (ডিডিএলজি) মো. শহীদুল ইসলাম বলেন, এ বিষয়ে তদন্ত পূর্বক প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর