× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, সোমবার , ৪ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১১ সফর ১৪৪৩ হিঃ

মোটরসাইকেলে আঁচল পেঁচিয়ে প্রাণ গেল স্কুলশিক্ষিকার

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, ময়মনসিংহ থেকে
২৮ জুলাই ২০২১, বুধবার

সেলিনা পারভীন শেলী নামে এক শিক্ষিকা চলন্ত মোটরসাইকেলে শাড়ির আঁচল পেঁচিয়ে প্রাণ হারিয়েছেন। গতকাল দুপুরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন মমেক হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের কর্তব্যরত উপ-পরিদর্শক (এসআই) শফিকুল ইসলাম।
জানা গেছে, নেত্রকোনার দত্ত উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র সহকারী শিক্ষক সেলিনা পারভীন শেলী সকালে নেত্রকোনা সদর উপজেলার কাইলাটি ইউনিয়নের ফচিকা গ্রাম থেকে স্বামী শফিকুল ইসলামের সঙ্গে মোটরসাইকেলে করে নেত্রকোনা শহরে যাচ্ছিলেন।
বিদ্যালয়ের জরুরি বৈঠকে অংশগ্রহণ করতে যাচ্ছিলেন তিনি। পথে পৌনে ১২টায় শহরের মোক্তারপাড়া এলাকায় পৌঁছাতেই শাড়ির আঁচল মোটরসাইকেলের চাকায় পেঁচিয়ে যায়। এতে গলায় ফাঁস লেগে মোটরসাইকেল থেকে পড়ে যান তিনি।
স্থানীয়রা দ্রুত উদ্ধার করে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে আইসিইউতে নেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান সেলিনা পারভীন। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহজাহান কবির সাজু বলেন, সেলিনা পারভীন দশম শ্রেণির অ্যাসাইনমেন্ট কমিটির আহ্বায়ক ছিলেন। তিনি আমাকে সকাল সাড়ে ৯টায় ফোন করেছিলেন।
শ্রেণি শিক্ষকদের সঙ্গে সভায় বসার কথা ছিল। সেজন্য বিদ্যালয়ে আসছিলেন তিনি। সেলিনা পারভীন শেলীর দেবর জহিরুল কবির শাহীন বলেন, ঈদে সবাই গ্রামের বাড়ি গিয়েছিলেন। আমাদের বাড়ির কাছাকাছি সদর উপজেলার কাইলাটি ইউনিয়নের ফচিকা গ্রামে ভাবীর বাবার বাড়ি। সেখান থেকেই ফিরছিলেন তিনি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর