× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, সোমবার , ৫ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১১ সফর ১৪৪৩ হিঃ

৫৫-ঊর্ধ্ব রোহিঙ্গাদের টিকা দেয়ার সিদ্ধান্ত ভারতের সঙ্গে চালু হচ্ছে এয়ার বাবল

দেশ বিদেশ

কূটনৈতিক রিপোর্টার
২৮ জুলাই ২০২১, বুধবার

পঞ্চান্ন বছর ঊর্ধ্ব রোহিঙ্গাদের টিকা প্রদানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন জানিয়েছেন, পরিবহন এবং সংরক্ষণ পদ্ধতি সহজ হওয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সিনোফার্মের টিকা দেয়া হবে। কক্সবাজার জেলার দু’টি উপজেলা উখিয়া ও টেকনাফ এবং নোয়াখালীর ভাষানচরে রোহিঙ্গাদের বাস। ওই দুই জেলায় বাংলাদেশের নাগরিকদের সিনোফার্মের টিকা দেয়া হচ্ছে। দেশব্যাপী করোনা সংক্রমণ এবং মৃত্যু উদ্বেগজনক হারে বাড়ছে। রোহিঙ্গা ক্যাম্পও এ থেকে মুক্ত নয়। এ অবস্থায় রোহিঙ্গাদের সুরক্ষায় ক্যাম্প এলাকাকে টিকা কার্যক্রমের আওতায় নিয়ে আসতে তাগিদ দিচ্ছিলো জাতিসংঘসহ বিশ্ব সম্প্রদায়। দেশে টিকার সংকট থাকায় এতোদিন বাংলাদেশ সরকার টিকা কার্যক্রমে নাগরিকদের অগ্রাধিকার দিচ্ছেলো।
বর্তমানে টিকার মজুত এবং প্রাপ্তির অঙ্গীকার কিছুটা বাড়ার প্রেক্ষিতে বয়োজ্যেষ্ঠ রোহিঙ্গাদের টিকা কার্যক্রমের আওতায় নিয়ে আসার সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র সচিব। গতকাল সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপে সচিব মাসুদ বিন মোমেন বলেন, রোহিঙ্গা অধ্যুষিত এলাকার (হোস্ট কমিউনিটি) সুরক্ষার জন্য হলেও রোহিঙ্গাদের টিকা দেয়া জরুরি হয়ে পড়ছে। কারণ নানা কারণে রোহিঙ্গাদের সঙ্গে হোস্ট কমিউনিটির ইন্টারেকশন বা মেলামেশা রয়েছে। তাছাড়া বাংলাদেশে কর্মরত বিদেশিদের সরকার টিকা দিচ্ছে। এখন তাদের পরিবারের সদস্যদেরও এর আওতায় নিয়ে আসা হবে। বাংলাদেশ কি নিজস্ব তহবিল ব্যয়ে কেনা টিকা রোহিঙ্গাদের দিতে যাচ্ছে- এমন প্রশ্নে সচিব বলেন, না ঠিক তা না। সরকার কোভ্যাক্সের আওতায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে অনুদান হিসেবে উল্লেখযোগ্যসংখ্যক টিকা পেয়েছে। আরও কিছু পাবে। সেটি প্লাস মাইনাস বা বিভাজনে না গিয়ে পরিবহন এবং সংরক্ষণের সুবিধা বিবেচনায় রোহিঙ্গাদের চীনের তৈরি (কেনা এবং উপহার হিসেবে পাওয়া) সিনোফার্মের টিকা দিচ্ছে। বাংলাদেশে ৫৫ ঊর্ধ্ব কতো রোহিঙ্গা রয়েছেন এমন পরিসংখ্যান এখনো হাতে পাননি বলে জানান সচিব।
এয়ার বাবল চালুর উদ্যোগ: এদিকে ভারতে করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় চিকিৎসাসহ জরুরি কাজে দেশটিতে যাতায়াতকারীদের সুবিধায় এপ্রিলে এয়ার বাবল নামীয় বিশেষ বিমান যোগাযোগ পুনর্বহালের চিন্তা রয়েছে বলে জানান পররাষ্ট্র সচিব। এদিকে লকডাউন চলাকালে ভারতের সঙ্গে স্থলসীমান্ত বন্ধ থাকছে জানিয়ে সচিব বলেন, ৩১শে জুলাই পর্যন্ত স্থল সীমান্ত এমনিতেই বন্ধ। এটি লকডাউনের কারণে ৫ই আগস্ট পর্যন্ত বর্ধিত হবে। ৩-৪ঠা আগস্ট হয়তো রিভিউ মিটিং হবে। সেখানে পরিস্থিতি বিবেচনায় স্থল সীমান্ত সংক্রান্ত বিধি-নিষেধ কিছু শিথিল হতে পারে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর