× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, মঙ্গলবার , ৫ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১২ সফর ১৪৪৩ হিঃ

করোনায় প্রাণ গেল অন্তঃসত্ত্বা বিচারক সানিয়ার

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার
২৯ জুলাই ২০২১, বৃহস্পতিবার

করোনায় প্রাণ গেল ঝালকাঠি আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট মোসা. সানিয়া আক্তারের। ছিলেন সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা। স্বামীও ছিলেন একই আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট। সানিয়ার মৃত্যুতে
দেশের বিচার অঙ্গনে নেমে আসে শোকের ছায়া। তার মৃত্যুতে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন, আইনমন্ত্রী ও বাংলাদেশ জুডিশিয়াল সার্ভিস এসোসিয়েশন গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। সুপ্রিম কোর্টের স্পেশাল অফিসার মোহাম্মদ সাইফুর রহমান এক বার্তায় জানান, সানিয়া আক্তারের মৃত্যুতে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। এক বার্তায় তিনি মরহুমার বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।
সূত্র জানায়, গত ১২ই জুলাই র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট করলে সানিয়া ও তার স্বামীর করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। স্বামী ইমরানুর রহমানের শারীরিক অবস্থা ভালো থাকলেও অন্তঃসত্ত্বা সানিয়া ছিলেন খুবই অসুস্থ।
এ কারণে তাকে ওইদিনই ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে ১৬ই জুলাই রাত সাড়ে ৭টায় শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে সানিয়া আক্তারকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ভর্তি করা হয়। সেখানে তাকে কেবিনে হাই-ফ্লো ন্যাজাল কানুলায় অক্সিজেন সাপোর্টও  দেয়া হয়। কিন্তু গতকাল সকাল সাড়ে ১০টায় বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।
ডা. এসএম মনিরুজ্জামান গণমাধ্যমকে বলেন, সানিয়া আক্তার ও তার স্বামী কেএইচএম ইমরানুর রহমান গত ১২ই জুলাই ঝালকাঠিতে র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট করলে উভয়ই করোনা পজিটিভ হন। ইমরানুর রহমানের শারীরিক অবস্থা ভালো থাকলেও তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী খুবই অসুস্থ ছিলেন। তাকে ওইদিনই ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে সানিয়া আক্তারকে ১৬ই জুলাই শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ভর্তি করা হয়।
সূত্র জানায়, সানিয়া সৎ-নিষ্ঠাবান ও দায়িত্বশীল কর্মকর্তা ছিলেন। ১৯৯২ সালের ১লা আগস্ট নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার হোগলাকান্দা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন সানিয়া। দশম বিজেএস (বাংলাদেশ জুডিশিয়াল সার্ভিস) পরীক্ষার মাধ্যমে ২০১৮ সালের ১লা মার্চ চাকরিতে যোগদান করেন। তার স্বামী এএইচএম ইমরানুর রহমান ঝালকাঠিতেই সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে কর্মরত আছেন।  তিনি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইনে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেছিলেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর