× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, সোমবার , ৪ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১১ সফর ১৪৪৩ হিঃ

আবার বন্ধ টুইটার প্রধান কার্যালয়, নিউ ইয়র্কের অফিস

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক
(১ মাস আগে) জুলাই ২৯, ২০২১, বৃহস্পতিবার, ১২:৪৭ অপরাহ্ন

ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট আতঙ্কে সান ফ্রান্সিসকোতে প্রধান কার্যালয় এবং নিউ ইয়র্কের অফিস অবিলম্বে বন্ধ করে দিচ্ছে টুইটার কর্তৃপক্ষ। দু’সপ্তাহ আগে সব অফিস খুলে দেয় তারা। একই সঙ্গে স্টাফদের অফিসে ফেরার অনুমোদন দিয়েছিল। কিন্তু বুধবার কোম্পানি থেকে বলা হয়েছে, তারা এসব সিদ্ধান্ত আবার স্থগিত করছে। করোনা ভাইরাস সংক্রমণ আবার বাড়ছে, টিকা দেয়ার হার খুব কম। এরই মধ্যে ব্যক্তিগতভাবে অফিসে উপস্থিত হয়ে কাজ করার প্রচেষ্টা চলছিল। কিন্তু তা এখন বন্ধ হয়ে গেল। টুইটারের এক মুখপাত্র এক বিবৃতিতে যুক্তরাষ্ট্রের বিখ্যাত ফোরবস ম্যাগাজিনকে বলেছেন, তারা অফিস খোলার বিষয়ে বিরতি দিচ্ছেন।
এতে যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রাল অ্যান্ড প্রিভেনশনের (সিডিসি) মঙ্গলবারের নতুন নির্দেশনার উল্লেখ করা হয়েছে। তাতে টিকা নিন বা না নিন- সব মার্কিনিকে ঘরের ভিতর বা অফিসে মুখে মাস্ক পরার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। কারণ, করোনা ভাইরাসের বিস্তার ঘটছে। এর মধ্যে সান ফ্রান্সিসকোতে এবং নিউ ইয়র্ক সিটির ৫টি বরো অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

কমপক্ষে এক বছর টুইটারের কর্মীরা বাধ্যতামূলকভাবে বাসা থেকে অফিসের কাজ সম্পন্ন করেছেন। এরপর ১৬ দিন আগে নিউ ইয়র্কের অফিস এবং সান ফ্রান্সিসকোতে প্রধান কার্যালয় খুলে দেয়া হয়। কিন্তু আবার সিডিসির নির্দেশনার পর তারা বাসা থেকে অফিস করার রীতিতে ফিরে যাচ্ছে। টুইটারের প্রধান অর্থ বিষয়ক কর্মকর্তা নেড সেগাল মধ্য জুলাইতে টুইটে বলেছেন, আমরা সবাইকে অফিসে ফিরতে বলি না। টুইটার অফিস খোলার আগে যেসব স্টাফ কাজে ফিরেছিলেন তাদেরকে প্রমাণ দিতে হয়েছিল যে, তারা টিকা নিয়েছেন।

উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্রের ৫০টি রাজ্যের সব জায়গায়ই করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে। বেড়েছে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের তীব্রতা। একই সঙ্গে কিছু রাজ্যে বা স্থানে টিকা দেয়ার হার কম। অনেক স্থানে অফিস খুলে দেয়ার দাবি উঠেছে। ফেসবুক, গুগল এবং মর্গান স্ট্যানলের মতো প্রতিষ্ঠানে কর্মীদের ফেরার আগে নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে, তারা টিকা নিয়েছেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর