× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, সোমবার , ৫ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১১ সফর ১৪৪৩ হিঃ

ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, হাতের কব্জি হারালেন এক নেতা

অনলাইন

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি
(১ মাস আগে) জুলাই ২৯, ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৩:২৫ অপরাহ্ন

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে মিঠাগঞ্জ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের মধ্যে দু’দফায় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়েছে। এ সময় ইউনিয়ন ছাত্রলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল (২২) কে কুপিয়ে ডান হাতের কব্জি কেটে নিয়েছে।

বুধবার রাত ৯টায় তেগাছিয়া বাজার সংলগ্ন ব্রিজের ঢালে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ওই ইউনিয়নের ছাত্রলীগ সভাপতি তরিকুলের ভাই রায়হান (২৫) গুরুতর আহত হয়। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে কলাপাড়া হাসপাতালে নিয়ে আসে। কর্তব্যরত চিকিৎসক রাকিবুল ও রায়হানকে প্রথমে চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। বৃহস্পতিবার তাদের ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।
মিঠাগঞ্জ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আহত রাকিবুল জানান, বুধবার রাত নয়টার দিকে সে তেগাছিয়া বাজার থেকে মোটরসাইকেলে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেয়। এসময় ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় পৌঁছলে তাকে এলোপাথারী কুপিয়ে ডান হাতের কব্জি কেটে ফেলে ছাত্রলীগ সভাপতি তরিকুল ও তার ভাই রায়হানসহ বেশ কয়েকজন দুর্বত্ত। এছাড়াও তার বাম হাত এবং মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে জখম করা হয়।
পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে কলাপাড়া হাসপাতালে নিয়ে আসে।

এ ব্যাপারে আহত রায়হানের মামা মমিন বিশ্বাস জানান, দু’বছর আগে রাকিবুল রায়হানকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। এ নিয়ে একটি মামলা পটুয়াখালী জেলা আদালতে চলমান। ওই মামলা প্রত্যাহারের জন্য রায়হানকে চাপ দিয়ে আসছে। মামলা প্রত্যাহার না করায় রাকিবুল তার বাহিনী নিয়ে রায়হানকে বুধবার সন্ধ্যায় কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে।

এ ব্যাপারে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ মাইনুল হাসান বলেন, রাকিবুল ও রায়হান দু’জনের অবস্থাই গুরুতর। এদের দু’জনকেই তাৎক্ষনিক বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

কলাপাড়া থানার ওসি খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান জানান, কোন পক্ষই অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর