× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, মঙ্গলবার , ৫ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১২ সফর ১৪৪৩ হিঃ

১০ মিনিটের ব্যবধানে দুবার টিকা প্রয়োগ

অনলাইন

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি
(১ মাস আগে) জুলাই ৩০, ২০২১, শুক্রবার, ৭:০৫ অপরাহ্ন

কুষ্টিয়ার খোকসায় ১০ মিনিটের ব্যবধানে একই ব্যক্তিকে দুবার করোনার টিকা দেয়া হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার দুপুরে কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ ঘটনা ঘটে।
জানা গেছে, খোকসা উপজেলার বুজরুক মির্জাপুর গ্রামের বাশারুজ্জামান (৩৮) বৃহস্পতিবার দুপুরে টিকার কার্ড নিয়ে খোকসা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নির্ধারিত কক্ষে টিকা নেয়ার জন্য যান। এ সময় কর্তব্যরত নার্স শারমিন তাকে টিকা দেন। এর ১০ মিনিট পর তিনি আবার ওই কক্ষে গেলে ওই একই নার্স শারমিন তাকে দ্বিতীয় দফায় টিকা প্রয়োগ করেন। টিকা গ্রহণকারী বাশারুজ্জামান জানান, তিনি নিয়ম জানেন না। কাগজ নিয়ে টিকা কেন্দ্রে গেলে সেখানকার কর্তব্যরত নার্স তাকে জামা খুলতে বলেন। তিনি জামা খুললে নার্স তাকে টিকা দেন। না বুঝে দশ মিনিট পর আবার লাইনে দাঁড়ালে নার্স তাকে আবারও দ্বিতীয় দফায় টিকা দেন।
পরে সন্দেহ হলে তিনি নার্সদের জিজ্ঞাসা করেন এই টিকা পরপর দুইবার নিতে হয় কি-না? তখনই বিষয়টি সবার নজরে আসে। এ সময় তিনি ভয় পেয়ে গেলে তাকে জানানো হয় এতে তার কোনো সমস্যা হবে না। এ বিষয়ে খোকসা উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. কামরুজ্জামান বলেন, ‘এটা একটা ভুল। তিনি একবার টিকা নিয়েছেন অথচ নার্সদের জানাননি। এরজন্য তিনিই দায়ী। দুবার টিকা দেয়া হলেও তার কোনো সমস্যা হবে না।’ কুষ্টিয়ার সিভিল সার্জন ডাক্তার এইচ এম আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, ‘সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের গাফিলতির কারণেই এমন অনাকাক্সিক্ষত ঘটনাটি ঘটেছে। কর্তৃপক্ষের এ ঘটনার দায় এড়ানোর কোনো সুযোগ নেই। বিষয়টি জানার সঙ্গে সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের মৌখিকভাবে কড়া সতর্ক করে দেয়া হয়েছে।’ তিনি বলেন, ‘আমাদের কাছে টিকা গ্রহণের জন্য অনেক নিরক্ষর মানুষ আসবে। তাদেরকে কাক্সিক্ষত সেবা দেয়া আমাদের দায়িত্ব এবং কর্তব্যের মধ্যে পড়ে। এর ব্যত্যয় ঘটার কোনো সুযোগ নেই।’

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
জীবন মানে যুদ্ধ
৩০ জুলাই ২০২১, শুক্রবার, ১২:৪৩

এর জন্য দায়ী নার্স ও কর্তৃপক্ষ।

Kazi
৩০ জুলাই ২০২১, শুক্রবার, ৯:৫৮

লোকটি শিশু নয় । টিকা নেওয়ার পর লাইনে ইচ্ছা করেই দাঁড়িয়েছিল । নিয়ম ঠিকই জানে ।

Adv. N. I. Bhuiyan
৩০ জুলাই ২০২১, শুক্রবার, ৯:০৩

বাংলাদেশের স্বাস্থ্য বিজ্ঞানীদের কাছে একটি আন্তরিক অনুরোধ যেহেতু একজনকে একদিনে দুইটি ও অপরজন 31 দিনে তিনটি দিক দিয়ে দেয়া হয়েছে তাই তাদেরকে পর্যবেক্ষণে রেখেছে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হোক যে একসাথে কোন ব্যক্তি দুইটি বা তিনটি টিকা নিলে আরো বেশি স্থায়ী বা দীর্ঘস্থায়ী এন্টিবডি তৈরি হয় কিনা যদি এতে ভালো ফল পাওয়া যায় তাহলে দেশের সবাইকে এভাবে দিলে ভালো হবে এটা পৃথিবীর জন্য একটি দৃষ্টান্ত এবং টেকসই অগ্রগতি টিকার ক্ষেত্রে হবে বলে মনে করি

Adv. N. I. Bhuiyan
৩০ জুলাই ২০২১, শুক্রবার, ৮:৫৬

টিকা টিকা টিকা বলতে বলতে টিকাকে এমন এক দিল্লির লাড্ডু বানিয়ে ফেলা হয়েছে যে, কিছু নিরক্ষর ও সহজ সরল মানুষ মনে করছে, যত বেশি টিকা নিয়ে নেয়া যায় ততই ভালো: একদিকে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ও বিজ্ঞানীরা বলে যাচ্ছেন টিকা না নিলে আর বাঁচার উপায় নাই :যে কারনে মানুষ আতঙ্কগ্রস্থ হয়ে মনে করছে যে টিকা নিলে হয়তো করণা আক্রান্ত হলেও কমপক্ষে মারাত্মক অবস্থার সৃষ্টি হবে না: যে কারণে মানুষের মধ্যে এমন একটা দিল্লির লাড্ডু খাবার অবস্থা হয়ে যাচ্ছে বলে মনে হয়

অন্যান্য খবর