× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, রবিবার , ৩ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১০ সফর ১৪৪৩ হিঃ

মুরগি বা ছাগল নয়, বেশি করে গরুর মাংস খান: বিজেপির মন্ত্রী

অনলাইন


(১ মাস আগে) জুলাই ৩১, ২০২১, শনিবার, ১০:২৫ অপরাহ্ন

মুরগির মাংস, ছাগলের মাংস কিংবা মাছের বদলে গরুর মাংস বেশি করে খান। নিজের রাজ্যের বাসিন্দাদের এমন আহবান জানিয়েছেন ভারতের মেঘালয় রাজ্যের বিজেপি মন্ত্রী সানবোর সুল্লাই। এর মধ্য দিয়ে তার তার দল যে গরুর মাংস খাওয়ার বিরোধী নয়, সেকথাই যেন প্রমাণ করতে চাইলেন তিনি।

সংবাদ প্রতিদিনের এক প্রতিবেদনে একথা জানিয়ে বলা হয়- শুক্রবার সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে সুল্লাই বলেন, “মুরগির মাংস, মাটন কিংবা মাছের পরিবর্তে আমি রাজ্যের বাসিন্দাদের গরু খাওয়ার জন্য উৎসাহিত করব। আর এতে বিজেপি যে গোমাংস খাওয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা চাপাতে পারে, মানুষের সেই ধারণাও ভুল প্রমাণিত হবে।”

উল্লেখ্য, গো-মাংস ভক্ষণের বিরোধী ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপি। দেশটির একাধিক বিজেপিশাসিত রাজ্যে এই সংক্রান্ত আইনও আনা হয়েছে। কোথাও আবার গো-মন্ত্রণালয়ও গঠিত হয়েছে। সম্প্রতি বিজেপিশাসিত আসাম বিধানসভায় ‘গবাদি পশু সংরক্ষণ’ বিল পেশ করেছেন মুখ্যমন্তী হিমন্ত বিশ্বশর্মা। যেখানে বলা হয়েছে, মন্দিরের পাঁচ কিলোমিটারের মধ্যে গোমাংস বিক্রি নয়।
একইসঙ্গে হিন্দু, শিখ ও জৈন সংখ্যাগরিষ্ঠ এলাকাগুলোতে গোমাংস ক্রয়-বিক্রয়ে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হবে। কিন্তু সেই বিজেপি দলের মন্ত্রীর গলাতেই ভিন্ন সুর! সিনিয়র বিজেপি নেতা সুল্লাই গত সপ্তাহেই মেঘালয়ের মন্ত্রিসভায় স্থান পেয়েছেন। এরপরই তিনি বলেন, গণতান্ত্রিক দেশে প্রত্যেকেরই নিজের পছন্দমতো খাবার খাওয়ার অধিকার রয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Ratan Nath
২ আগস্ট ২০২১, সোমবার, ২:১৯

fake news

Kazi Khan Baaduur
১ আগস্ট ২০২১, রবিবার, ৪:২৩

এটা বিজেপির মতামত নয়।

mahadi hasan
১ আগস্ট ২০২১, রবিবার, ৩:৩৪

Thanks you Mr. sullai

sdd
১ আগস্ট ২০২১, রবিবার, ১১:৫৭

খ্রিস্টান সংখ্যাগরিষ্ঠ মেঘালয়ের অহিন্দু জনগণ গোমাংস খেয়েই থাকে, মন্ত্রীর এ বিষয়ে বলার কোন প্রয়োজন ছিল না।

Md. Harun al-Rashid
১ আগস্ট ২০২১, রবিবার, ১১:৫৬

এমন বিধান দাতা দেখছি ভারতবর্ষে গরুর মাংসের আক্রা বাধিয়ে ছাড়বে।

Kazi
৩১ জুলাই ২০২১, শনিবার, ৯:২৫

শুদু মাত্র মেঘালয় রাজ্যের কথা বলা হয়েছে। মিজোরাম ও গো মাংস খায়। হিন্দুদের কাছে গরু দেবতা গণ্য হলে ও অন্য ধর্মের কাছে নয় । এটা বিজেপির মতামত নয়।

এ, কে, এম, মহীউদ্দীন
১ আগস্ট ২০২১, রবিবার, ১০:২৫

এদের কে কখন কী বলে তার ঠিক নেই। এদের কথার উপর আস্থা রাখা যায় না।

Professor Dr.Mohamme
১ আগস্ট ২০২১, রবিবার, ৮:৫৯

দেরীতে হোলেও ভারতীয়রা রেড মিট অর্থাৎ গরু খাওয়ার উপকারিতা অবশেষে বুঝতে পেরেছে এ জন্য ধন্যবাদ । এর ফলে, ভারতিওদের মাঝ থেকে, অপুষ্টি আর রক্ত শূন্যতা হ্রাস পাবে সাথে সাথে বাংলাদেশে গরু পাচার বন্ধ হবে বলে আমি বিশ্বাস করি আর সীমান্ত হত্যাও ।

আতাউর রহমান ভূইয়া
৩১ জুলাই ২০২১, শনিবার, ৭:০৮

এটা কি মন্ত্রী মহোদয়ের নিজের মত নাকি বিজেপির আদর্শের পরিবর্তন।

salman
১ আগস্ট ২০২১, রবিবার, ৩:৫০

thank u Mr. Sullai.

অন্যান্য খবর