× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, রবিবার , ৩ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১০ সফর ১৪৪৩ হিঃ

তালেবান-সেনা লড়াইয়ে নিরাপত্তা পরিস্থিতি সঙ্কটজনক

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক
(১ মাস আগে) আগস্ট ২, ২০২১, সোমবার, ১:২৫ অপরাহ্ন

কান্দাহার, হেলমান্দ এবং হেরাত প্রদেশে তীব্র লড়াই চলছে তালেবান ও সেনাবাহিনীর মধ্যে। সেখানে নিরাপত্তা পরিস্থিতি সঙ্কটজনক হয়ে উঠেছে। আফগানিস্তানের সেনাবাহিনীকে উদ্ধৃত করে এ খবর দিয়েছে অনলাইন আল জাজিরা। এতে বলা হয়, ২০ বছর যুদ্ধের পর আগামী ৩১ শে আগস্টের মধ্যে আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটো বাহিনী। এ ঘোষণা দেয়ার পর থেকেই যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তানে তালেবান ও সেনাবাহিনীর মধ্যে লড়াই তীব্র থেকে তীব্রতর হয়ে উঠেছে। দেশটির অর্ধেক অংশ তালেবানরা দখলে নিয়েছে। এখন তারা প্রাদেশিক রাজধানীগুলো দখলের চেষ্টা করছে। এর আগে বেশ কিছু প্রশাসনিক জেলা তারা নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে।
উদ্ভূত পরিস্থিতিতে আজ সোমবার পার্লামেন্টে বক্তব্য রাখার কথা আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট আশরাফ গণির।

ওদিকে রাশিয়ার বার্তা সংস্থা ইন্টারফ্যাক্স নিউজ এজেন্সি বলেছে, আফগান সীমান্তে সামরিক মহড়ায় অংশ নিতে অতিরিক্ত ৮০০ সেনা পাঠাবে রাশিয়া। আগে যেটা পরিকল্পনা করা হয়েছিল, তার চেয়ে দ্বিগুন বেশি হার্ডওয়্যার ব্যবহার করা হবে। এই মহড়া হওয়ার কথা ৫ থেকে ১০ই আগস্ট পর্যন্ত। এতে যুক্ত হওয়ার কথা উজবেক ও তাজিক বাহিনীর। আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনাদের প্রত্যাহার করার ফলে দ্রুত নিরাপত্তা পরিস্থিতির অবনতি ঘটতে পারে বলে এ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। রাশিয়া বলেছে, এই মহড়ায় তাদের ১৮০০ সেনা সদস্য অংশ নেবে। প্রাথমিকভাবে বলা হয়েছিল, এই সেনা সংখ্যা হবে ১০০০। সব মিলে মহড়ায় অংশ নেবে কমপক্ষে ২৫০০ সেনা সদস্য। মস্কো এতে ব্যবহার করবে ৪২০টি ইউনিট সামরিক হার্ডওয়্যার।

আফগান সেনাবাহিনীর মুখপাত্র জেনারেল আজমল ওমর শিনওয়ারি রোববার বলেছেন, হেলমান্দ প্রদেশের লস্করগাঁয়ের পরিস্থিতি মারাত্মক। সেখানে তালেবানদের মুখোমুখি হওয়ার পরিকল্পনা করছে সেনাবাহিনী। এ জন্য তারা হামলা চালানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে। হেলমান্দ প্রদেশের কর্তৃপক্ষ বলেছে, রোববার লস্করগাঁয়ে শক্তি বৃদ্ধি করেছে তালেবানরা। তারা আরো নিশ্চিত করে বলে যে, শহরটির সপ্তম অঞ্চল দখলে নিয়েছে তালেবান। উল্লেখ্য, কান্দাহার, হেলমান্দ এবং হেরাত প্রদেশে লড়াই তীব্র আকার ধারণ করেছে। এর মধ্যে কান্দাহার তালেবানের জন্মভূমি বলে মনে করা হয়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর