× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, বুধবার , ৭ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৩ সফর ১৪৪৩ হিঃ
ভ্যাকসিন ছাড়াই ২০ জনকে সুঁচ পুশ

ঘটনার সত্যতা পেয়েছে তদন্ত কমিটি

শেষের পাতা

দেলদুয়ার (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি
৩ আগস্ট ২০২১, মঙ্গলবার
প্রতীকী ছবি

টাঙ্গাইলের দেলদুয়ারে গত রোববার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সিনোফার্ম ভ্যাকসিন নিতে আসেন উপজেলার প্রায় হাজারখানেক মানুষ। কর্তৃপক্ষ সকাল ১০টায় ২টি বুথ খুলে ভ্যাকসিন দেয়া শুরু করেন। সুশৃঙ্খলভাবে লাইনে দাঁড়িয়ে ভ্যাকসিন গ্রহণ করছিলেন সাধারণ মানুষ। এর মধ্যে ২নং বুথে সাজেদা আফরিন নামে এক সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক একের পর এক ভ্যাকসিন দিয়ে যাচ্ছিলেন। অতিদ্রুত কর্মসম্পাদন করায় ভ্যাকসিন নিতে আসা এক যুবকের সন্দেহ হয়। সে ভ্যাকসিন না নিয়ে সংবাদকর্মীদের ঘটনা খুলে বলে। সংবাদকর্মীদের তথ্যে কর্তৃপক্ষ পরিত্যক্ত সিরিঞ্জগুলো পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখতে পান ২০ জনের দেহে শুধু সুঁচ পুশ করা হয়েছে। ভ্যাকসিন প্রবেশ করানো হয়নি।
এ ঘটনায় ঐ দিনই ডা. মো. শামিম হোসেনকে সভাপতি, ডা. নূর-ই-আলম তাহমিদ ও এনামুল হক এমটি (ইপিআই)কে সদস্য করে ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। গতকাল তদন্ত রিপোর্ট ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট পাঠানো হয়েছে বলে জানা গেছে।
তদন্ত কমিটির সদস্য মো. এনামুল হক (এমটি ইপিআই) জানান, তদন্তে ঘটনার সত্যতার প্রমাণ পাওয়া গেছে। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. প্রবীর কুমার সরকার জানান, তদন্ত রিপোর্ট ইতিমধ্যেই ঊর্ধ্বতন কর্তপক্ষের নিকট পাঠানো হয়েছে।
এ ব্যাপারে সহকারী সিভিল সার্জন ডা. মো. শামিমের মোবাইল একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Dr Shameem Hassan
৩ আগস্ট ২০২১, মঙ্গলবার, ২:৪৭

Highest punishment expected.

Mohammed awal
৩ আগস্ট ২০২১, মঙ্গলবার, ১১:০০

manus rupi soytan

ইমরান হোসেন
২ আগস্ট ২০২১, সোমবার, ৯:০১

যেখানে মানুষের জীবন মরণ সমস্যা। সেখানে এই ধরনের কাজ খুবই দুঃখজনক।এরা মানুষ নয় ।এদের দ্রুত বিচার বাংলার মানুষ দেখতে চায়।

Kazi
২ আগস্ট ২০২১, সোমবার, ৩:৫৮

ঘটনার তদন্তে যেহেতু ভুল ধরা পড়েছে তা নিয়ে ফেদলানোর দরকার আছে কি ? এই ফোন করে আর কি জানতে চান সাংবাদিক ? একদিকে নিজের সময় অপচয় অপর দিকে সহকারি সিভিল সার্জনের সময় অপচয় ছাড়া কোন লাভ তো হবে না ।

Fazlu
৩ আগস্ট ২০২১, মঙ্গলবার, ৪:৫৭

এরা কারা? কি এদের পরিচয়? এরা কেন বার বার এভাবে সরকারকে বিব্রতকর অবস্থায় ফেলে? কেন এদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়না?

অন্যান্য খবর