× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, বুধবার , ৭ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৩ সফর ১৪৪৩ হিঃ

আগস্টের পর খুলতে পারে শিক্ষার জট

শেষের পাতা

পিয়াস সরকার
৪ আগস্ট ২০২১, বুধবার

দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর হচ্ছে শিক্ষার জট। ৫০৫ দিন ধরে বন্ধ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। করোনার ঊর্ধ্বগতির মাঝেও শিক্ষায় কিঞ্চিৎ আশার সঞ্চার হয়েছে। দেশব্যাপী গণটিকা কার্যক্রম চালু হলে আগস্টের পর ধীরে ধীরে খুলতে পারে শিক্ষার জট।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, শিক্ষা খাতে দীর্ঘ এই বিরতিতে সব থেকে বেশি ক্ষতির মুখে পড়েছেন চলতি বছরের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থীরা। তারাও পেয়েছেন সুনির্দিষ্ট ঘোষণা। ভর্তির আগেই দেড় বছরের সেশনজটে ভোগা শিক্ষার্থীরা পেয়েছেন পরীক্ষার সূচি। যদিও একাধিকবার ঘোষণার পর বদলানো হয়েছে তা। আবার একাধিকবার বলা হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় খুললেই নেয়া হবে পরীক্ষা।
আর এদিকে টিকাদান কর্মসূচি চালু হওয়ায় দ্রুত বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেয়ার কথা জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) চেয়ারম্যান। শিক্ষক- শিক্ষার্থীদের টিকা নিতে চার নির্দেশনা দিয়েছে মন্ত্রণালয়।

আর ৭ই আগস্ট থেকে ডিপ্লোমা স্তরের শিক্ষার্থীদের সশরীরে প্রাকটিক্যাল ক্লাস পরিচালনার ঘোষণা দিয়েছে কারিগরি বোর্ড। চাকরি প্রত্যাশীদেরও মিলতে শুরু করেছে সুখবর।

শিক্ষা ক্যালেন্ডার অনুযায়ী চলতি বছরের পহেলা ফেব্রুয়ারি ও পহেলা এপ্রিল হওয়ার কথা ছিল এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা। কিন্তু করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় নেয়া হয়নি সে পরীক্ষা। এমনকি প্রথম ও দ্বিতীয় ঢেউয়ের মাঝামাঝি সময়ে সংক্রমণের হার প্রায় তিন শতাংশে নেমে এলেও পরীক্ষার হলে বসা হয়নি পরীক্ষার্থীদের। অপেক্ষার প্রহর শেষ হয়েছে। নভেম্বরে ও ডিসেম্বরে হবে তাদের পরীক্ষা, তিন বিষয়ে। আর পরীক্ষা নেয়া সম্ভব না হলে মূল্যায়নের জন্য দেয়া হয়েছে অ্যাসাইন্টমেন্ট। এই অ্যাসাইনমেন্টের সাতটি বিষয়ের বিভিন্ন ছোট বড় ভুল সংশোধন করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি)।

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছিলেন, আবাসিক শিক্ষার্থীদের টিকা দেয়ার পর খুলে দেয়া হবে বিশ্ববিদ্যালয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে দেয়া হবে টিকাদান। টিকা প্রদান নিয়ে নানা জটিলতা থাকলেও ১৮ বছরের ঊর্ধ্বের সকলকে টিকা প্রদানের সিদ্ধান্তে সেই জটিলতাও কাটবে। গণমাধ্যমে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ইউজিসি চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. কাজী শহীদুল্লাহ বলেন, করোনাভাইরাস মহামারির কারণে দেড় বছর ধরে বন্ধ থাকায় সেশনজটে পড়েছে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো। এই সময় অনলাইনে ক্লাস চললেও ছয় মাস ধরে চেষ্টা করেও কোনোভাবেই ভর্তি পরীক্ষা নেয়া যাচ্ছে না। যদিও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর আগেই ভর্তিপ্রক্রিয়া শুরু করেছে। তিনি আরও বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় খোলার ব্যবস্থা দু-এক মাসের মধ্যে করা হবে।

টিকা নিয়ে তৎপরতা দেখিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ও। গত রোববার এনিয়ে নির্দেশনা জারি করা হয়। এতে বলা হয়, করোনার বিস্তার রোধে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের আওতাধীন সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীদের ভ্যাকসিন গ্রহণ ও অন্যদের ভ্যাকসিন নিতে উদ্বুদ্ধ করতে দায়িত্ব পালনের অনুরোধ করা হলো। দেয়া হয় চার নির্দেশনা এগুলো হলো, সকল প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী ও ১৮ বছরের বেশি বয়সী শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশনা অনুযায়ী নিজ নিজ ভ্যাকসিন গ্রহণের বিষয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধান উদ্বুদ্ধ করবেন। মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের আওতাধীন বিভাগ, জেলা, উপজেলা পর্যায়ের দপ্তর, সংস্থা, প্রতিষ্ঠান প্রধানরা নিজ নিজ দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ আওতাধীন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীদের ভ্যাকসিন গ্রহণে উদ্বুদ্ধ করবেন। শিক্ষকরা অনলাইনে বা ভার্চ্যুয়াল ক্লাসে শিক্ষার্থীদের এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের কোভিড-১৯ এর বিস্তার রোধে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণসহ কোভিড-১৯ এর ভ্যাকসিন বিষয়ে উদ্বুদ্ধ করবেন। সকল দপ্তর, সংস্থার কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ভ্যাকসিন গ্রহণের বিষয়ে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করতে স্থানীয় প্রশাসনকে সহযোগিতা করবেন।

২০ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষার সময় সেপ্টেম্বরে হতে পারে জানিয়েছে ভর্তি পরীক্ষা বিষয়ক কমিটি। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর ও সাধারণ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা বিষয়ক টেকনিক্যাল সাব-কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মুনাজ আহমেদ নূর বলেন, সম্প্রতি ভর্তি পরীক্ষা বিষয়ক কমিটির একটি মিটিং অনুষ্ঠিত হয়েছে। লকডাউন শেষ হলেই প্রথম পর্যায়ের আবেদন বাছাইয়ের ফল প্রকাশ করা হবে এবং দ্বিতীয় পর্যায়ের আবেদন নেয়া শুরু হবে। এজন্য সব ধরনের প্রস্তুতিও সম্পন্ন হয়েছে। আশা করছি, সেপ্টেম্বর মাসের শেষে অনুষ্ঠিত হবে গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষা।

৭ই আগস্ট থেকে সশরীরে প্রাকটিক্যাল ক্লাস শুরু হচ্ছে কারিগরি বোর্ডের অধীনে থাকা শিক্ষার্থীদের। বোর্ডের অধীন ডিপ্লোমা স্তরের সকল শিক্ষাক্রমের ১ম, ৩য়, ৫ম ও ৭ম পর্বের ১ম ও ২য় শিফটের তত্ত্বীয় ক্লাস শুরু হবে। অনলাইন এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে ব্যবহারিক ক্লাস ও পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে। ৩১শে জুলাই শনিবার বোর্ডের পরিচালিক (কারিকুলাম) প্রকৌশলী ফরিদ উদ্দিন আহম্মেদ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।
জট খুলতে শুরু করেছে চাকরি পরীক্ষারও। সেপ্টেম্বরে পুলিশে প্রায় ১০ হাজার কনস্টেবল নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে। সম্পূর্ণ নতুন পদ্ধতিতে দুর্নীতিকে জিরো টলারেন্সে রেখে এই নিয়োগ হবে। পুলিশ সদর দপ্তর সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। সূচি প্রকাশ করা হয়েছে সরকারি হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স পদের লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের স্থগিত মৌখিক পরীক্ষার। ১লা আগস্ট রোববার বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশনের (পিএসসি) এক বিজ্ঞপ্তিতে মৌখিক পরীক্ষার সূচি প্রকাশ করা হয়। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ২৭ ও ২৮শে আগস্ট দুইদিন সিনিয়র স্টাফ নার্স পদের মৌখিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ওইদিন সকাল সাড়ে ১০টায় রাজধানীর আগারগাঁওয়ে পিএসসি কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হবে। তবে এখনো ঝুলে আছে একাধিক পরীক্ষা। তবে সার্বিক পরিস্থিতিতে এই পরীক্ষাগুলো আগস্টের পরে হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর