× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, মঙ্গলবার , ৬ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১২ সফর ১৪৪৩ হিঃ

রক্তাক্ত ছেলেকে দেখে পিতার মৃত্যু

বাংলারজমিন

গঙ্গাচড়া (রংপুর) প্রতিনিধি
৫ আগস্ট ২০২১, বৃহস্পতিবার

রক্তাক্ত অবস্থায় ছেলেকে দেখতে পেয়ে স্ট্রোক করে মারা গেলেন পিতা। গতকাল সকালে গঙ্গাচড়া উপজেলার মর্নেয়া ইউনিয়নের খলিফার বাজারে এ ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ওই ইউনিয়নের নিলার পাড়া গ্রামের মাহাবুল ইসলামের (৫৮) ছোট ছেলে ছানারুল ইসলাম গত রোববার তার বড় ছেলে আনিছুর রহমান ওরফে টাংরুর স্ত্রী আমিনা খাতুনকে শারীরিক নির্যাতন করে। স্বামী টাংরু এর প্রতিবাদ না করায় আমিনা গত মঙ্গলবার তার পিতার বাড়িতে গিয়ে অভিযোগ জানায়। বুধবার সকালে টাংরু অটোরিকশা চালানোর জন্য বাড়ি থেকে বের হয়ে খলিফা বাজারের দিকে যাওয়ার পথে একই ইউনিয়নের মৌভাষা মুন্সিটারী গ্রামে শ্বশুরবাড়িতে ঢুকে। এ সময় শ্বশুর আইয়ুব আলী জামাতা টাংরুকে লাঠি দিয়ে এলাপাতাড়ি মারপিট করে। এতে টাংরুর মাথা ফেটে রক্ত ঝরতে থাকে। রক্তাক্ত অবস্থায় টাংরু স্থানীয় খলিফার বাজারে যায়।
সংবাদ পেয়ে টাংরুর পিতা মাহাবুল ইসলাম খলিফার বাজারে উপস্থিত হয়ে ছেলেকে রক্তাক্ত অবস্থায় দেখে অজ্ঞান হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন ও ঘটনাস্থলেই মারা যান। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মোসাদ্দেক আলী জানান, মাহাবুল হার্টের রোগী ছিলেন। তাই ছেলের রক্তাক্ত অবস্থা সহ্য করতে পারেননি। গঙ্গাচড়া মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) নূর আলম জানান, মৃত্যুর ঘটনায় কারো কোনো অভিযোগ না থাকায় ও মৃতের পরিবারের লোকদের ইচ্ছাতেই তারা পারিবারিকভাবে লাশ দাফনের ব্যবস্থা করছেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর