× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, মঙ্গলবার , ৬ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১২ সফর ১৪৪৩ হিঃ

দুর্গাপুরে মানবজমিন প্রতিনিধিকে মারধর

বাংলারজমিন

নেত্রকোনা প্রতিনিধি
৫ আগস্ট ২০২১, বৃহস্পতিবার

নেত্রকোনার দুর্গাপুরে জাতীয় দৈনিক মানবজমিন পত্রিকার উপজেলা প্রতিনিধি মো. ইয়াসিন মিয়ার ওপর হামলা ও মারধরের অভিযোগ উঠেছে মাদকদ্রব্য ও চোরাচালান কারবারি সক্রিয় দুই সদস্যের বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত দু’জন হলেন- কলমাকান্দা উপজেলার  কালাপানি গ্রামের সুভাষ রংদীর পুত্র রাজু রংদী (৩৪) ও কাউবাড়ী এলাকার উদয় রংদীর স্ত্রী ময়না রংদী (৪০)। গত ১লা জুলাই সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ফুলবাড়ী বাজার এলাকায় বড় ভাই রফিকুল ইসলামের দোকানে যেতে চাইলে গতিরোধ করে এ অতর্কিত হামলা ও মারধরের ঘটনাটি ঘটে। আহত সাংবাদিক মো. ইয়াসিন মিয়া দুর্গাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। ভুক্তভোগীর বড় ভাই রফিকুল ইসলাম কলমাকান্দা থানায় একটি অভিযোগ দাখিল করেছেন বলে নিশ্চিত করেছেন।
চিকিৎসাধীন সংবাদকর্মী মো. ইয়াসিন মিয়া সাংবাদিকদের জানান, আমার বড় ভাই কলমাকান্দা উপজেলার ফুলবাড়ী বাজারের বড় ব্যবসায়ী। আমি প্রায় সময়ই দুর্গাপুর থেকে তার খোঁজখবর নেয়ার জন্য যাই। ঘটনার দুইদিন আগে স্থানীয় বিজিবি সদস্যগণ টহল অভিযান পরিচালনা করে অভিযুক্ত দুই ব্যক্তির বাড়ি থেকে বিপুল পরিমাণ ভারতীয় অবৈধ পণ্য উদ্ধার করে। বিষয়টি আমি কোনোভাবেই জ্ঞাত নই।
আমার তথ্যের ভিত্তিতেই বিজিবি সদস্যরা ওইসব ভারতীয় পণ্য জব্দ করে এমন ধারণা থেকেই আগে থেকে ওত পেতে থাকা অভিযুক্ত ব্যক্তিরা পথরোধ করে এলোপাতাড়ি মারধর করে। তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন দৌড়ে এলে মাদক কারবারিরা ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। স্থানীয়রা উদ্ধার করে উপজেলা সরকারি হাসাপাতালে ভর্তি করে।
দুর্গপুর উপজেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি এসএম রফিকুল ইসলাম রফিক বলেন, সাংবাদিক পেটানোর ঘটনাটি অত্যন্ত ন্যক্কারজনক। যারা এ মারধরের ঘটনাটি ঘটিয়েছে আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার জরুরি হস্তক্ষেপে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করা উচিত। কলমাকান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত (কর্মকর্তা) আব্দুল আহাদ খান জানান, কেবল অভিযোগ পেয়েছি। পুলিশ ঘটনাস্থল তদন্ত শেষে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর