× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, সোমবার , ৫ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১১ সফর ১৪৪৩ হিঃ
প্রতিমন্ত্রী ইরানে, সচিব আমিরাতে

মধ্যপ্রাচ্যের সঙ্গে সম্পর্ক গাঢ় করার তাগিদ ঢাকার

দেশ বিদেশ

কূটনৈতিক রিপোর্টার
৫ আগস্ট ২০২১, বৃহস্পতিবার

মধ্যপ্রাচ্যের ভ্রাতৃপ্রতিম দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্ক গাঢ় করার উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ সরকার। স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট কারণে পরস্পরবিরোধী অবস্থানে থাকা মুসলিম দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্কের ক্ষেত্রে অনেকটা ‘ভারসাম্য’ রক্ষার নীতি নিয়েছে ঢাকা। এরই অংশ হিসেবে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমকে জরুরি ভিত্তিতে ইরানে পাঠানো হয়েছে। আজ দেশটির নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট সাইয়্যেদ ইব্রাহিম রাইসির বর্ণাঢ্য শপথ অনুষ্ঠানে অংশ নেয়া ছাড়াও নতুন নেতৃত্বের সঙ্গে পরিচিত হবেন তিনি। তেহরানে ৩ দিন কাটিয়ে প্রতিমন্ত্রী ফিরবেন দোহায়। কাতারের সঙ্গে বাংলাদেশের দ্বিপক্ষীয় স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট বিষয়ে আরও ৩ দিনের আলোচনার পর প্রতিমন্ত্রীর ঢাকা ফেরার কথা। কাঙ্খিত সেই আলোচনায় কাতারের বড় বিনিয়োগ আকর্ষণ, দেশটিতে আরও অধিক পরিমাণে বাংলাদেশি কর্মী প্রেরণের পথ উন্মুক্তকরণ তথা দুই দেশের সম্পর্কের সামগ্রিক উন্নয়ন নিয়ে কথা বলবেন তিনি।
এদিকে পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেনের নেতৃত্বে একটি উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধিদল এখন সংযুক্ত আরব আমিরাত সফর করছে।
দুবাইয়ে অনুষ্ঠেয় ওয়ার্ল্ড এক্সপো-২০২০’র প্রিপারেটরি মিটিংয়ে অংশ নিতে গেছেন তারা। করোনার কারণে বৈশ্বিক ওই বাণিজ্য প্রদর্শনী পিছিয়ে দেয়া হয়েছে। চলতি ’২১ সালের ১লা অক্টোবর থেকে দুবাই এক্সপো শুরু হচ্ছে। চলবে ৬ মাসব্যাপী। ওই আয়োজনের ভেন্যু নির্বাচনে চার বছর আগে দুবাইর পক্ষে ভোট না দিয়ে বাংলাদেশ বেশ বিপাকে পড়েছিল। আমিরাতে বাংলাদেশিদের ভিসা বন্ধ হয়েছিল। কূটনৈতিক প্রচেষ্টায় সেই বাধা নিরসন হলেও দেশটিতে অবাধে কর্মী প্রেরণের পথ পুরোপুরি উন্মুক্ত হয়নি। তাছাড়া বাংলাদেশে বড় বিনিয়োগের প্রস্তাব রয়েছে আমিরাতের যুবরাজ মুহাম্মদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ানের। বাংলাদেশে সমুদ্রবন্দর উন্নয়নে ১.১ বিলিয়ন বিনিয়োগের প্রস্তাব ঝুলে আছে বহু বছর ধরে। অভিন্ন খাতে সৌদি যুবরাজ মুহাম্মদ বিন সালমানের প্রায় কাছাকাছি ভলিয়মের একটি প্রস্তাব থাকায় এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণে ঢাকা ধীরে চলো নীতি নিয়েছে। বিষয়টি নিয়ে যাতে কোনো ধরনের ভুল বুঝাবুঝি না হয় তাও বিবেচনায় রাখতে হচ্ছে বাংলাদেশকে। সব মিলে 'ড্যামেজ কন্ট্রোলে' পররাষ্ট্র সচিবের আমিরাত সফরটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ- বলছেন সংশ্লিষ্টরা। তাদের মতে, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় শ্রমবাজার মধ্যপ্রাচ্য। ওই অঞ্চলের ভ্রাতৃপ্রতিম প্রতিটি রাষ্ট্রের সঙ্গে বাংলাদেশের স্বতন্ত্র সম্পর্ক রয়েছে। কিন্তু সেই সম্পর্ক যে মাত্রায় উন্নীত হওয়ার কথা ছিল তা হয়নি। স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছরে এসে বাংলাদেশ আজ ওই সম্পর্ককে নতুন মাত্রায় নিয়ে যেতে আগ্রহী। এ নিয়ে বহুদিন ধরে কাজ চলছে। সম্প্রতি ইরানে জাতীয় নির্বাচন হয়েছে। সেই নির্বাচনে জয়ী প্রেসিডেন্ট সাইয়্যেদ ইব্রাহিম রাইসি আজ শপথ নিতে যাচ্ছেন। তেহরান পার্লামেন্টের ওই বর্ণাঢ্য আয়োজনে রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানসহ অন্তত পঞ্চাশের অধিক রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ অতিথিরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে সশরীরে অংশ নিচ্ছেন। বাংলাদেশ প্রথমবারের মতো প্রেসিডেন্টের শপথ অনুষ্ঠানে প্রতিনিধি দল পাঠিয়েছে। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম ৩ সদস্যের ওই প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। জরুরি ভিত্তিতে মঙ্গলবার রাতে তারা তেহরানের উদ্দেশ্যে রওনা করেছেন। ইরানের নতুন নেতৃত্বের প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ বার্তা নিয়ে গেছেন তারা। ঢাকার কর্মকর্তাদের দাবি- ইরানের পরিবর্তিত নেতৃত্বের  দায়িত্ব গ্রহণের ওই শুভলগ্নে ঢাকা থেকে মন্ত্রী পর্যায়ের প্রতিনিধি প্রেরণ দুই দেশের ভ্রাতৃত্বপূর্ণ সম্পর্কের গভীরতার বহিঃপ্রকাশ। ইরানের সঙ্গে বৈরিতা রয়েছে এমন অনেক দেশের সঙ্গে বাংলাদেশের বিদ্যমান হৃদ্যতার কালো ছায়া পড়ার শঙ্কা উপেক্ষা করেই প্রতিনিধিদল প্রেরণ করেছে ঢাকা!
কর্মকর্তারা বলছেন, ‘ডিপ্লোমেসি শুড বি ব্যালেন্সড অ্যান্ড ইন্টারেস্ট বেইজ্ড’- এক যুগের বেশি সময় ধরে এই নীতি চর্চায় শেখ হাসিনা সরকার যে পরিপক্বতা অর্জন করেছে এটা তারই প্রমাণ। তাছাড়া দুনিয়ার ক্ষমতাধরদের সঙ্গে অম্ল-মধুর সম্পর্কের চ্যালেঞ্জ নিয়ে এগিয়ে চলা মধ্যপ্রাচ্যের পরমাণুশক্তি সম্পন্ন ইরানের সঙ্গে ভাব জমাতে দক্ষিণ এশিয়ায় যে প্রতিযোগিতা রয়েছে, ডেলিগেশন পাঠিয়ে তাতেও ভারসাম্য আনার চেষ্টা করলো বাংলাদেশ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর