× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, বুধবার , ৭ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৩ সফর ১৪৪৩ হিঃ
কলকাতা কথকতা

সল্টলেকের অভিজাত আবাসন থেকে লিভ ইনে থাকা তরুণ-তরুণীর মৃতদেহ উদ্ধার

কলকাতা কথকতা

বিশেষ সংবাদদাতা, কলকাতা
(১ মাস আগে) আগস্ট ৫, ২০২১, বৃহস্পতিবার, ১০:০০ পূর্বাহ্ন

সল্টলেকের অভিজাত আবাসন বসুন্ধরা থেকে তরুণ ও তরুণীর মৃতদেহ উদ্ধার হওয়ার ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। মৃত তরুণের নাম দেবাশীষ মুখোপাধ্যায় ও তরুণীর নাম সুদীপ্তা গুহ। চেন্নাই থেকে কয়েকমাস আগে তারা এই ফ্ল্যাটটি বুক করে পজেশন নেন। দুজনেই সেক্টর ফাইভ-এর তথ্য প্রযুক্তি তালুকে চাকরি করতেন বলে জানা গেছে। নয়াপট্টির ওই ফ্ল্যাট থেকে একটি সুইসাইড নোটও পাওয়া গেছে। তাতে লেখা আছে, দেনার দায়ে তারা আত্মঘাতী হচ্ছে। তাদের দেহের যেন একসঙ্গে সৎকার করা হয়।
পুলিশ হাতের লেখা পরীক্ষা করে দেখছে।
পুলিশের অনুমান, প্রথমে সুদীপ্তাকে শ্বাসরোধ করে মারা হয়, পরে দেবাশীষ গলায় দড়ি দিয়ে আত্মঘাতী হয়। সুদীপ্তার ঘাড়ে ও গলায় কিছু আঘাতের চিহ্ন তদন্তকারীদের কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে। তৃতীয় কোনো ব্যক্তি দুজনকে খুন করেনিতো?
জানা গেছে বৃহস্পতিবারই সুদীপ্তা-দেবাশীষের চেন্নাই ফিরে যাওয়ার কথা ছিল। আবাসনের মালিককে তারা সেই কথা জানিয়েও ছিলেন। বুধবার দুপুরের পর থেকে দেবাশীষ কিংবা সুদীপ্তা ফ্ল্যাটের দরজা না খোলায় সন্দেহ হয়। সন্ধ্যায় সিকিউরিটি গার্ড গিয়ে দরজায় কলিংবেল বাজিয়ে, ধাক্কা দিয়েও কোনো সাড়া পায়নি। ঘরে এয়ারকন্ডিশনার ও টিভি চলছিল। গার্ড বাইরে থেকে বিদ্যুৎসংযোগ বিচ্ছিন্ন করলেও ভিতর থেকে কোনো সাড়া আসেনি। এরপরই সল্ট লেকের ইলেকট্রনিক্স কমপ্লেক্স থানায় খবর দেয়া হয়। পুলিশ এসে দরজা ভেঙে মৃতদেহগুলি দেখতে পায়। জানা গেছে, দেবাশীষ খড়দহের ছেলে, সুদীপ্তার বাড়ি কোচবিহারে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর