× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, সোমবার , ৪ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১১ সফর ১৪৪৩ হিঃ

অনেক দেশ টিকার তৃতীয় ডোজ দিচ্ছে, অনেক দেশ প্রথম ডোজই দিতে পারেনি!

অনলাইন

তারিক চয়ন
(১ মাস আগে) আগস্ট ৫, ২০২১, বৃহস্পতিবার, ১২:১৯ অপরাহ্ন

করোনাভাইরাসের টিকার তৃতীয় ডোজ দিতে হবে কি না, তা নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই আলোচনা চলে আসছে। এ তৃতীয় ডোজ যদি দিতেই হয় তবে তা কবে নাগাদ দিতে হবে তা নিয়েও চলছে জল্পনা।
সম্প্রতি সিএনএন এর এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ফাইজারের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, করোনার দুই ডোজের তুলনায় ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে অনেক বেশি কাজ করে তাদের টিকা।

উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্রের ফাইজার ও জার্মান প্রতিষ্ঠান বায়োএনটেক মিলে তৈরি করা এই করোনার টিকা বিশ্বের বিভিন্ন দেশেই প্রয়োগ করা হচ্ছে। করোনার টিকা হিসেবে অনুমোদন পাওয়া টিকাগুলোর মধ্যে অন্যতম এই টিকা। কিছুদিন আগেই বলা হয়েছিল, যুক্তরাষ্ট্রের নিয়ন্ত্রক সংস্থায় নিজেদের তৃতীয় ডোজের অনুমোদন চাইবে ফাইজার। কারণ, ফাইজার বায়োএনটেকের টিকার তৃতীয় ডোজ করোনার মূল ভ্যারিয়েন্ট, বেটা ভেরিয়েন্ট ও দক্ষিণ আফ্রিকায় শনাক্ত ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে বেশি অ্যান্টিবডি তৈরি করছে। করোনার টিকার দুই ডোজ দিলে যে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়, তার চেয়ে ৫ থেকে ১০ গুণ বেশি অ্যান্টিবডি তৈরি হয় তৃতীয় ডোজে।

ডয়চে ভেলে জানিয়েছে, এরই মধ্যে বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে নাগরিকদের করোনা টিকার তৃতীয় ডোজ দেয়া শুরু করেছে ইসরায়েল৷ গত শুক্রবার থেকে ষাটোর্ধ্বদের জন্য এই কার্যক্রম চালু করেছে তারা৷ শুক্রবার নিজে ফাইজারের টিকার তৃতীয় ডোজ নেওয়ার মধ্য দিয়ে এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন দেশটির প্রেসিডেন্ট আইজ্যাক হার্তস্যোগ৷ এর ফলে যত দ্রুত সম্ভব ইসরায়েল স্বাভাবিক পরিস্থিতি ফিরবে বলে আশা করেন তিনি৷
তৃতীয় ডোজ নিয়েছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুও। তৃতীয় ডোজ টিকার বিষয়ে এখনও পূর্ণাঙ্গ কোন গবেষণা প্রকাশিত না হলেও ইসরায়েল সবার আগে তৃতীয় ডোজ টিকার অনুমোদন দিয়েছে মূলত ফাইজারের তথ্যের উপর ভিত্তি করে।

ইসরায়েলের ঘনিষ্ট মিত্র বলে পরিচিত, যুক্তরাষ্ট্রের খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর এখনও বয়স্কদের তৃতীয় ডোজ করোনা টিকার বিষয়ে কোন সিদ্ধান্ত দেয়নি৷ ইউরোপীয় ইউনিয়নও এমন কোন অনুমোদন দেয়নি। কিন্তু ইউরোপের প্রভাবশালী দেশ জার্মানি করোনায় বেশি উপসর্গ হতে পারে এমন ব্যক্তিদের করোনা টিকার তৃতীয় বুস্টার ডোজ দেওয়া হবে বলা জানিয়েছে।
সোমবার দেশটি এমন ঘোষণা দিয়েছে বলা জানিয়েছে নিউইয়র্ক টাইমস। সেপ্টেম্বর থেকে জার্মানি ফাইজার বা মডার্না-র বুস্টার ডোজ দেয়া শুরু করবে। এক্ষেত্রে তারা বয়স্ক নাগরিক, কেয়ার হোমের বাসিন্দা, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম এমন লোকজনকে প্রাধান্য দেবে। এছাড়া দুই ডোজ অ্যাস্ট্রাজেনেকা বা এক ডোজ জনসন এন্ড জনসন ভ্যাকসিন নেয়া লোকজনও এই তৃতীয় ডোজ পাবেন কারণ ক্লিনিকাল ট্রায়ালে দেখা গেছে, এই টিকাগুলো খুব বেশি সুরক্ষা দেয় না।

ওয়াশিংটন পোস্ট জানিয়েছে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রো গত মাসে ঘোষণা দিয়েছেন, সেপ্টেম্বর থেকে ফ্রান্সের বিশেষ জনগোষ্ঠীকে বুস্টার ডোজ দেয়া হবে। বৃটেনও সেপ্টেম্বর থেকে এমন কর্মসূচী শুরুর কথা ভাবছে। হাঙ্গেরি দেশের সব মানুষকেই তৃতীয় ডোজ দিচ্ছে। স্পেন এবং ইতালিও এমনটা ভাবছে। রাশিয়াতেও তৃতীয় ডোজ দেয়া হচ্ছে।

উল্লেখ্য, বিশ্বের অনেক দেশ যেখানে তাদের উল্লেখযোগ্য সংখ্যক নাগরিককে প্রথম ডোজ টিকাই দিতে পারেনি, সেখানে এসব দেশের তৃতীয় ডোজ টিকা দেয়া নিয়ে একদিকে যেমন চলছে প্রশংসা, অন্যদিকে তেমনই চলছে সমালোচনা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর