× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, বুধবার , ৭ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৩ সফর ১৪৪৩ হিঃ

পাকিস্তানজুড়ে স্কুল খুলে দেয়া হচ্ছে, উপস্থিতি থাকবে অর্ধেক

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক
(১ মাস আগে) আগস্ট ৫, ২০২১, বৃহস্পতিবার, ১:৪৮ অপরাহ্ন

উদ্বেগজনকভাবে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি সত্ত্বেও সারাদেশে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পাকিস্তান। এক্ষেত্রে উপস্থিতি অর্ধেক নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে। চলবে সব পরীক্ষা। তাতে গ্রেস মার্ক হিসেবে দেয়া হবে শতকরা ৫ নম্বর। করোনা কতদিন স্থায়ী হবে তা অনিশ্চিত বলে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এর বাইরে থাকবে সিন্ধু প্রদেশ। এ প্রদেশটি ৯ দিনের লকডাউনে রয়েছে। কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী শাফকাত মাহমুদ আন্তঃপ্রাদেশিক শিক্ষামন্ত্রীদের কনফারেন্সে সভাপতিত্ব করার পর সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দিয়েছেন।
তিনি বলেছেন, করোনা সংক্রান্ত স্ট্যান্ডার্ড মানদ- বজায় রেখে সারাদেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তার কার্যক্রম চালাতে পারবে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন এক্সপ্রেস ট্রিবিউন। উল্লেখ্য, বুধবার পাকিস্তানে প্রায় ৫০০০ মানুষ নতুন করে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। সেখানে জাতীয় পর্যায়ে করোনা পজেটিভের হার শতকরা ৮ এর উপরে। মন্ত্রী আরো বলেছেন, সব সরকারি এবং বেসরকারি স্কুল শতকরা ৫০ ভাগ সক্ষমতা নিয়ে কার্যক্রম চালাতে পারবে। আমাদের ছেলেমেয়েদের শিক্ষা কার্যক্রমের বিষয়ে আমরা যত্নবান- এ বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, আমরা জানি না এই মহামারি কতদিন স্থায়ী হবে। তবে কমপক্ষে ৮ই আগস্ট পর্যন্ত সিন্ধুর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধই থাকবে। এ প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী মুরাদ আলি শাহ ঘোষণা দিয়েছেন, করোনা ভাইরাস সংক্রমণকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে তার প্রদেশে ৩১ শে জুলাই থেকে ৮ই আগস্ট পর্যন্ত লকডাউন থাকবে। এ জন্য প্রাদেশিক সরকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠাগুলোকে বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে এবং পরীক্ষা বাতিল করেছে।
ওই বৈঠকে শাফকাত মাহমুদ বলেন, সিন্ধুর শিক্ষামন্ত্রী সাঈদ গণি জানিয়েছেন যে- এ প্রদেশের করোনা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করা হবে ৮ই আগস্টের আগে এবং সেখান থেকেই পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে। ওই সভায় সিদ্ধান্ত নেয়ার সময় শিক্ষামন্ত্রী বলেন পাঞ্জাব, গিলগিট-বালতিস্তান, আজাদ জম্মু ও কাশ্মীর, বেলুচিস্তান এবং খাইবার পখতুনখাওয়া সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্কুলগুলো আবার খুলে দেয়ার। তবে এ সময়ে শতকরা ৫০ ভাগ উপস্থিতি নিশ্চিত করে স্কুল চলবে। তিনি আরো জানান, শিডিউল মতোই সারাদেশে পরীক্ষা হবে। তবে ব্যতিক্রম থাকবে সিন্ধু। নবম, দশম, একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষা ডাটাশিট অনুযায়ী হবে। আবশ্যিক বিষয়গুলোতে শিক্ষার্থীদের শতকরা ৫ ভাগ গ্রেস নম্বর দেয়া হবে। শিক্ষামন্ত্রী শাফকাত বলেন, কেন্দ্রীয় সরকার এই মধ্যে ইউনিভার্সিটির সব শিক্ষক, শিক্ষার্থী এবং স্টাফকে টিকা নেয়ার নির্দেশ দিয়েছে প্রাদেশিক সরকারগুলোকে। তিনি বলেছেন, ৩১ শে আগস্টের পর টিকা বাধ্যতামূলক করা হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
No name
৬ আগস্ট ২০২১, শুক্রবার, ৯:৩৬

Even day even roll number students, odd day odd roll number students will have to be present in the classes (50% each day)

শহীদ
৫ আগস্ট ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৯:২৪

দৈনিক একটি শ্রেণিকে ক্লাসের জন্য ডাকা যায়। কয়েকটি ভাগে ভাগ করে আলাদা আলাদা বিষয়ে পাঠদান করা যায়।

অন্যান্য খবর