× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, বুধবার , ১৪ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০ সফর ১৪৪৩ হিঃ

এই প্রথম সামনে এলো বানরের মস্তিষ্কের থ্রিডি ইমেজ

অনলাইন

নিজস্ব সংবাদদাতা
(১ মাস আগে) আগস্ট ৫, ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৬:২৪ অপরাহ্ন

প্রযুক্তি আজ আমাদের জীবনের সংজ্ঞাটাই পাল্টে দিয়েছে। যত দিন যাচ্ছে, বিজ্ঞান এবং তার অবদান 'প্রযুক্তির' ওপর ভর করে চিকিৎসা শাস্ত্রের নতুন নতুন দিক উন্মোচিত হচ্ছে। সেরকমই একটি যুগান্তকারী আবিষ্কার করে ফেলেছেন চীনা বিজ্ঞানীরা। চীনের বিজ্ঞানীরা এই প্রথম বানরের মস্তিষ্কের উচ্চ-রেজোলিউশন, থ্রিডি ইমেজ তুলতে সক্ষম হয়েছেন। মনে করা হচ্ছে, এটি একদিন পারকিনসনের মতো রোগের চিকিৎসার ক্ষেত্রে অনেক সাহায্য করতে পারে । ডেইলি মেইল জানিয়েছে, বেইজিংয়ের চাইনিজ একাডেমি অফ সায়েন্সেসের একটি দল ফ্লুরোসেন্ট ইমেজিং কৌশল ব্যবহার করে একটি সম্পূর্ণ ম্যাকাক বানরের মস্তিষ্কের বিস্তারিত ম্যাপ তৈরি করেছেন । আর তার জন্য ভলিউমেট্রিক ইমেজিং উইথ সিংক্রোনাস অন-দ্য-ফ্লাই-স্ক্যান (VISoR) নামে একটি বিশেষ পদ্ধতি অবলম্বন করা হয়েছিল। VISoR ব্যবহার করে ১০ বছর বয়সী তিনটি বানরের মস্তিষ্কের পরীক্ষা করেছেন বিজ্ঞানীরা।
এই গবেষণার ফল নেচার বায়োটেকনোলজি জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে। ছবির ফাইল সাইজ প্রায় এক পেটা বাইট, যা প্রায় ১০০০ টেরা বাইটের সমান। এই পরিমাণ স্পেসে প্রায় ৩ কোটি হাই ডেফিনিশন সিনেমা সেভ করা সম্ভব। VISoR এর মাধ্যমে বিজ্ঞানীরা বুঝতে পেরেছেন বানরের মস্তিষ্কে কীভাবে স্নায়ুকোষগুলি সংগঠিত থাকে। মাইক্রন রেজোলিউশনের ডিটেইলে এই তথ্য দেখতে পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। বানরের মস্তিষ্কের কয়েকশো কোটি নিউরনের ছবি থেকে অনেক ডিটেইল তথ্য পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। মানুষের মস্তিষ্কে প্রায় ১০,০০০ কোটি স্নায়ুকোষ থাকে। তার মধ্যেই আবার অনেক সূক্ষ্ম জোড়ও থাকে। মানুষের মস্তিষ্ক বানরের তুলনায় প্রায় ১৭ গুণ বড়। কিন্তু বিজ্ঞানীদের দাবি এই দুই মস্তিষ্কের তুলনা করা সম্ভব।গবেষকদের মতে, VISoR ক্লিনিক্যাল প্যাথলজির নমুনা সহ অন্যান্য টিস্যু এবং অঙ্গগুলির ইমেজিংয়েও সাহায্য করতে পারে, যা চিকিৎসা বিজ্ঞানের নতুন দিক খুলে দেবে। শুধু তাই নয়, মস্তিষ্ক এবং শরীরের 3D কাঠামো বুঝতেও এই পদ্ধতি সাহায্য করবে, এর ফলে আগামী দিনে জানা যাবে শরীরে যদি কোনো রোগ ঢোকে তাহলে শারীরিক কাঠামোর ওপর তা কিভাবে প্রভাব ফেলতে পারে। চীনের ঝেজিয়াং বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক ডুয়ান শুমিন জানাচ্ছেন , ' আশা করি, এই প্রযুক্তি বিস্তৃত এবং বৃহত্তর অ্যাপ্লিকেশনের জন্য আরও উন্নত করা হবে, ম্যাপিং , প্রাইমেট এবং অবশেষে মানুষের মস্তিষ্কের বোব্যাপ্তি বোঝার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে ''.

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর