× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৪ জানুয়ারি ২০২২, সোমবার , ১০ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

অটিজমের ঝুকি বৃদ্ধির কারন ও প্রতিকার

শরীর ও মন

মেহবুবা রহমান
২৯ আগস্ট ২০২১, রবিবার

অটিজম স্পেকট্রাম ডিসঅর্ডারের কোনও একক কারণ নেই, তবে এটি সাধারণত গৃহীত হয় যে এটি মস্তিষ্কের গঠন বা ক্রিয়ায় অস্বাভাবিকতার কারণে ঘটে। মস্তিষ্ক স্ক্যান নিউরোটাইপিকাল শিশুদের তুলনায় অটিজম আক্রান্ত শিশুদের মস্তিষ্কের আকৃতি এবং গঠনে পার্থক্য দেখায়।

গবেষণায় দেখা গেছে যে, অটিজম জেনেটিক এবং ননজেনেটিক বা পরিবেশগত প্রভাবের কারনে হয়ে থাকে।

এই প্রভাবগুলি একটি শিশুর অটিজমের কারন হয়ে থাকে, কিন্তু এই প্রভাবগ্রস্ত শিশুরা সবাই অটিজমে আক্রান্ত হবে ব্যপারটা তা নয়।

উদাহরণস্বরূপ, অটিজমের সাথে সম্পর্কিত কিছু জিন পরিবর্তন এমন ব্যক্তিদের মধ্যেও পাওয়া যেতে পারে যাদের এই ব্যাধি নেই। একইভাবে, অটিজমের জন্য পরিবেশগত ঝুঁকির কারণের মুখোমুখি প্রত্যেকেই এই ব্যাধি বিকাশ করবে না।

পরিবেশ গত কারনঃ
গবেষনায় দেখা গেছে পরিবেশগত কারনে অটিজমের ঝুকি বাড়তে পারে আবার কমতেও পারে।

ঝুঁকি বৃদ্ধির কারন-

১/বেশী বয়সে সন্তান ধারন

২/গর্ভাবস্থা এবং জন্মগত জটিলতা (প্রিমেচিউর [26 সপ্তাহের আগে], কম জন্মের ওজন, একাধিক গর্ভধারণ [যমজ, তিনগুণ, ইত্যাদি])

৩/এক বছরের কম ব্যবধানে সন্তান ধারন।

৪/গর্ভবতী মহিলারা যারা কিছু ওষুধ বা রাসায়নিকের সংস্পর্শে আসেন, যেমন অ্যালকোহল বা জীবাণুনাশক ওষুধ, তাদের অটিস্টিক শিশু হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে।

৫/গর্ভাবস্থায় ডায়াবেটিস বা স্থুলতা।

৬/কিছু পরিচিত জেনেটিক ডিসঅর্ডার অটিজমের জন্য বাড়তি ঝুঁকির সাথে যুক্ত, যার মধ্যে রয়েছে ফ্র্যাগাইল এক্স সিনড্রোম (যা বুদ্ধিবৃত্তিক অক্ষমতা সৃষ্টি করে) এবং টিউবারাস স্কেলেরোসিস (যা মস্তিষ্ক এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গগুলিতে সৌম্য টিউমার বৃদ্ধির কারণ হয়ে থাকে)।

ঝুঁকি কমানোর উপায়-

১/গর্ভাবস্তায়,গর্ভের পূর্বে এবং পরবর্তিতে ফলিক এসিড এর পর্যাপ্ততা।

২/সুস্থ জীবন যাপন করুন।

৩/ নিয়মিত চেক-আপ করুন, সুষম খাবার খান এবং ব্যায়াম করুন।

৪/ গর্ভাবস্থায় ওষুধ সেবন করবেন না। কোন ওষুধ খাওয়ার আগে আপনার ডাক্তারকে জিজ্ঞাসা করুন।

৫/অ্যালকোহল এড়িয়ে চলুন।

৬/বিদ্যমান স্বাস্থ্য অবস্থার জন্য চিকিৎসক এর শরণাপন্ন হন।

৭/ধর্মীয় অনুশাসন মেনে চলুন।

কিছু পরিচিত জেনেটিক ডিসঅর্ডার অটিজমের জন্য বাড়তি ঝুঁকির সাথে যুক্ত, যার মধ্যে রয়েছে ফ্র্যাগাইল এক্স সিনড্রোম (যা বুদ্ধিবৃত্তিক অক্ষমতা সৃষ্টি করে) এবং টিউবারাস স্কেলেরোসিস (যা মস্তিষ্ক এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গগুলিতে সৌম্য টিউমার বৃদ্ধির কারণ হয়ে থাকে) - যার প্রত্যেকটির মধ্যে পরিবর্তন ঘটে একটি একক, কিন্তু ভিন্ন, জিন।




মেহবুবা রহমান
ভার্টেক্স হোমিও হল
৪৮/বি উত্তর কমলাপুর স্টেশন রোড,
ফোনঃ০২২২২২২১৬০৭,০১৯০৬৬০১৮০১
প্রতি শুক্রবার অটিজম চিকিৎসায় ফ্রি পরামর্শ দেয়া হয়।।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর