× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, মঙ্গলবার , ১৩ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৯ সফর ১৪৪৩ হিঃ
আলাপন

রিস্ক নিতে চাই না -লিজা

বিনোদন

ফয়সাল রাব্বিকীন
১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, বুধবার

ক্লোজআপ ওয়ান তারকা সানিয়া সুলতানা লিজা। নতুন গান ও টিভি চ্যানেলের অনুৃষ্ঠান নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন। যদিও স্বাভাবিক সময়ে লিজার সব থেকে বেশি ব্যস্ততা থাকে স্টেজে। বছরজুড়েই দেশ-বিদেশের স্টেজ শো নিয়ে ব্যস্ত থাকেন তিনি। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির কারণে শো করছেন না। বরংচ নতুন গানে মনোযোগী হয়েছেন। সব মিলিয়ে কি অবস্থা? দিনকাল কেমন কাটছে? উত্তরে লিজা বলেন, বেশ ভালো আছি। কাজ নিয়ে ব্যস্ত আছি।
আর যেহেতু স্টেজ শো করছি না। তাই পরিবারকেও সময় দিচ্ছি। আপনার ও বেলাল খানের গাওয়া ‘পাখি’ গানটি এরইমধ্যে ইউটিউবে দেড় কোটি ভিউ অতিক্রম করেছে বেশ অল্প সময়ে। গানটি থেকে এতটা সাড়া মিলবে ভেবেছিলেন? লিজা বলেন, গানটি যখন করি তখন মনে হয়েছিলো একটা ড্যান্স সং হচ্ছে। আমরা শতভাগ দিয়েই কাজ করেছি অডিও-ভিডিওর। তবে শ্রোতা-দর্শক এতটাই পছন্দ করবেন ভাবিনি। তাদের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ। এরইমধ্যে আমি এ গানটির একটি অ্যাকুষ্টিক ভার্সনও প্রকাশ করেছি। সেটিও পছন্দ করছেন শ্রোতারা। নতুন গানের আর কি খবর? লিজা বলেন, গান নিয়ে তারাহুড়ো করতে চাই না। তাই ধীরে ধীরে কাজ করছি। এরইমধ্যে কয়েকটি গান তৈরি হয়েছে। এগুলোর সুর ও সংগীত করেছেন শওকত আলী ইমন, নাজির মাহমুদসহ অনেকে। এগুলো সামনে ভিডিওসহ প্রকাশ করবো। তবে করোনা পরিস্থিতির আরও উন্নতি হলে শুটিংয়ে যাবো। স্টেজ শোতেও তো অনেকেই ফিরছেন। আপনার পরিকল্পনা কি? এ গায়িকা বলেন, আমি আরও সময় নিতে চাই। এখনই স্টেজে ফিরতে চাই না। এরইমধ্যে স্টেজ শো শুরু হয়েছে টুকটাক করে। তবে রিস্ক নিতে চাই না। আরও অপেক্ষা করতে চাই। কারণ আমার কাছে নিজের ও পরিবারের নিরাপত্তার গুরুত্বই আগে। স্টেজটাকে অনেক মিস করলেও এখনই ফেরার ইচ্ছে নেই। সব স্বাভাবিক হলে বড় আয়োজনে স্টেজ শো শুরু হলে তবেই ফিরবো। এখন কাজের বাইরে সময় কাটছে কিভাবে? এ শিল্পী বলেন, পরিবারের সঙ্গে সুন্দর সময় পার করছি। বছরজুড়ে স্টেজে ব্যস্ত থাকায় পরিবারকে সময় দিতে পারি কম। তবে এবার সুযোগটা কাজে লাগাচ্ছি। করোনা পরিস্থিতির পর থেকেই পরিবারকেই বেশি সময় দিচ্ছি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর