× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২৩ অক্টোবর ২০২১, শনিবার , ৮ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ

বিলুপ্ত হয়ে যাওয়া ম্যামথকে পুনরায় জন্ম দিতে যাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক
(১ মাস আগে) সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৭:৫৭ অপরাহ্ন

বিলুপ্ত হয়ে যাওয়া প্রাণীকে আবারও ফিরিয়ে আনা এতোদিন বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনীর বিষয় ছিল। জুরাসিক পার্ক সিনেমায় ডাইনোসরকে ফিরিয়ে আনার ঘটনা একে সময়ের সবথেকে জনপ্রিয় সায়েন্স ফিকশন সিরিজে পরিণত করেছে। তবে এবার বাস্তবেই বিলুপ্ত হয়ে যাওয়া ম্যামথ ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করছেন বিজ্ঞানীরা। আধুনিক জিনতত্ব এখন হারিয়ে যাওয়া এসব প্রাণির পুনরুত্থানকে কল্পকাহিনী থেকে বাস্তবে নিয়ে আসতে চলেছে। বিজ্ঞানীরা এরইমধ্যে প্রাণীর ক্লোন তৈরি করেছেন। একইসঙ্গে প্রাণীর হাড় থেকে ডিএনএ সংগ্রহ করার পদ্ধতিও রপ্ত করেছেন তারা। ফলে লাখ লাখ বছর আগে বিলুপ্ত হয়ে যাওয়া প্রাণীর হাড় থেকে তাদেরকে আবারও জন্ম দেয়ার সম্ভাবনা সৃষ্টি হয়েছে।
মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএন জানিয়েছে, এমনই এক মহা পরিকল্পনা হাতে নিয়েছেন হার্ভার্ড মেডিক্যাল স্কুলের গবেষক জর্জ চার্চ ও তার গবেষক দল। ৪ হাজার বছর আগে বিলুপ্ত হয়ে যাওয়া দীর্ঘ কেশের ম্যামথকে পুনরায় জন্ম দেয়ার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছেন তারা।
বরফ যুগের এই প্রাণীকে ফিরিয়ে আনতে যে গবেষণা দরকার তার জন্য প্রয়োজন প্রচুর অর্থ। এরইমধ্যে গত সোমবার ১৫ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ আসার সুখবর দিয়েছেন গবেষকরা। বিলুপ্ত হয়ে যাওয়া প্রাণীদের আবারও ফিরিয়ে আনতে পারলে তা জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় সাহায্য করবে বলে মনে করেন গবেষকরা। এছাড়া, যেসব প্রাণী বিলুপ্তির হুমকিতে রয়েছে তাদে

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর